English ভিডিও গ্যালারি ফটো গ্যালারি ই-পেপার মঙ্গলবার ১৯ নভেম্বর ২০১৯ ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ই-পেপার মঙ্গলবার ১৯ নভেম্বর ২০১৯
 / বিনোদন /  ফাহমির সঙ্গে অন্তরঙ্গ ছবি নিয়ে ক্ষেপেছেন মিথিলা
ফাহমির সঙ্গে অন্তরঙ্গ ছবি নিয়ে ক্ষেপেছেন মিথিলা
বিনোদন ডেস্ক :
প্রকাশ: বুধবার, ৬ নভেম্বর, ২০১৯, ১:৩২ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

ফাহমির সঙ্গে অন্তরঙ্গ ছবি নিয়ে ক্ষেপেছেন মিথিলা

ফাহমির সঙ্গে অন্তরঙ্গ ছবি নিয়ে ক্ষেপেছেন মিথিলা

সোমবার সন্ধ্যা থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অভিনেত্রী মিথিলা ও নির্মাতা ইফতেখার আহমেদ ফাহমির অন্তরঙ্গ ছবি ভাইরাল হয়েছে।
যেখানে ফাহমির সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখা গেছে মিথিলাকে।

পরে জানা যায়, ফাহমির ফেসবুক পেজটি হ্যাক করা হয়েছে। সেই পেজ থেকেই ছড়ানো হয়েছে ছবিগুলো। সেই সঙ্গে বিভ্রান্তি ছড়ানো নানা মন্তব্যও করা হচ্ছে পেজ থেকে। এই ছবি প্রকাশের দিন থেকেই চুপ ছিলেন ফাহমি ও মিথিলা। তবে অবেশেষে এই বিষয়ে মুখ খুলেছেন মিথিলা।

মঙ্গলবার রাতে এক ফেসবুকে পোস্টে মিথিলা লিখেছেন, ‘কী ঘটেছে তার কোনো ব্যাখ্যা দিতে আসিনি। বরং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমার কিছু ব্যক্তিগত ছবি নিয়ে যা হয়েছে, সেই সম্পর্কে নিজের অবস্থান পরিস্কার করতে চাই। এসব ছবির কিছু বাস্তব, কিছু মনগড়া। আমার সুনাম ক্ষুণ্ন করতে কিছু অপরাধী প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে এগুলো অনলাইনে ছেড়ে দিয়েছে।’

জানা যায়, ২০১৭-১৮ সালে ইফতেখার আহমেদ ফাহমির সঙ্গে মিথিলার সম্পর্ক ছিল। সম্পর্কের কথা স্বীকার করে মিথিলা লিখেছেন ‘ফাহমির ফেসবুক প্রোফাইল হ্যাক হয়েছিল। তখনই অপরাধীরা খারাপ উদ্দেশ্যে ব্যবহারের জন্য এগুলো খুঁজে নিয়েছে।

এখানে ডেটিং শব্দটির ওপর জোর দিতে চাই, যার অর্থ আমরা একটি সম্পর্কে ছিলাম। সহজভাবে বললে দুটি মানুষ একে অপরের সঙ্গে জড়ালে ঘনিষ্ঠ মুহূর্ত কাটায়, ছবি তোলে। প্রযুক্তির যুগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তারা এগুলো ভাগ করে নেয়। তবে নিজের গোপনীয়তা রক্ষা করতে না পারার দায় আমারই।

আমার লজ্জা লাগছে এই ভেবে, দেশের কিছু কুৎসিত লোক আমার ব্যক্তিগত মুহূর্তগুলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইচ্ছেমতো পোস্ট, শেয়ার ও ব্যবহারের সুযোগকে কাজে লাগিয়েছে। আমার খ্যাতি ও ভাবমূর্তিকে অসম্মান করে তারা সাবস্ক্রিপশন বাড়াচ্ছে ও নানান খবর ছড়িয়ে দিচ্ছে।’

এই অভিনেত্রী আরও লিখেন, ‘আমাকে কার্যত ধর্ষণ করা হচ্ছে। আমার লজ্জা হয় সেসব মিডিয়ার জন্য, বিশেষ করে কয়েকটি নিউজ পোর্টাল আমার অনুমতি ছাড়াই আমাকে উদ্ধৃত করে এই খবর প্রকাশ করেছে। অথচ আমি এ নিয়ে কখনোই কথা বলিনি বা কোনো বক্তব্য দেইনি। ঘরে-বাইরে, ভার্চুয়াল জগতসহ সর্বত্র যেকোনো জায়গায় নারীদের যৌন হেনস্তা করা হলে একইভাবে লজ্জিত ও ক্ষিপ্ত হই।

দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, আমার সম্মান ও মর্যাদা শুধু আমার আকার আর পোশাকের কিংবা ব্যক্তিগত ছবির মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। জীবনে কঠোর পরিশ্রম, সৃজনশীলতা ও শিক্ষার মাধ্যমে সব অর্জন করেছি। আমার অতীতের ব্যক্তিগত মুহূর্তগুলো চুরি করে কিছু অপরাধীর কুকর্মের কারণে এসব ভেঙে যাওয়ার মতো ঠুনকো নয়।

এরই মধ্যে আইনি পদক্ষেপ নিয়েছেন মিথিলা। সাইবার ক্রাইম বিভাগে অভিযোগ করেছেন তিনি। মিথিলা বলেন ‘আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহায়তায় যারা আমার মান-সম্মান নিয়ে খেলেছে সেই দুষ্কৃতিকারীদের চিহ্নিত করে ছাড়বো। শপথ করছি, নিজের জন্য এবং হ্যাকার ও সাইবার অপরাধীদের শিকার হওয়া সবার জন্য লড়বো।



সর্বশেষ খবর
বিয়ের সাজে টমেটোর গয়না!
রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন ব্যর্থতার জন্য দায়ি বাংলাদেশ : মিয়ানমার
লবণের পর্যাপ্ত মজুদ রয়েছে: শিল্প মন্ত্রণালয়
শাহজালালে প্রায় ৬০ লক্ষ টাকা মূল্যের স্বর্ণ উদ্ধার
সাংবাদিকের চোখে গুলি: প্রতিবাদে চোখে ব্যান্ডেজ নিয়ে সংবাদ পাঠ
স্পষ্ট বাংলায় ওষুধের গায়ে মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখের বিষয়ে জানাতে কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ
৫ বছরের জন্য নিষিদ্ধ শাহাদাত
সর্বাধিক পঠিত
সেবার মানসিকতা সারা দেশে শিশু-কিশোরদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী
পেঁয়াজের দাম কমছে হিলিতে
সরকারি চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধাদের বয়সসীমা ৬০
পেঁয়াজও পচে যায়: প্রধানমন্ত্রী
এবার পেঁয়াজের দাম স্বাভাবিক না হলে হস্তক্ষেপ করবে আদালত
নতুন সড়ক আইন নিয়ে বাড়াবাড়ি না করতে নির্দেশ কাদেরের
ঢাকায় আসছেন দেব-রুক্মিণী
আরও দেখুন...


Copyright © 1962-2019
All rights reserved
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর: মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন জিটু
সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : রেড ক্রিসেন্ট বোরাক টাওয়ার, লেভেল-৫, ইস্কাটন গার্ডেন রোড, রমনা, ঢাকা-১০০০।
ফোনঃ +৮৮-০২-৯৬৬৬৬৮৫, ৯৬৭৫৮৮৫, ৯৬৬৪৮৮২-৩, ফ্যাক্সঃ +৮৮-০২-৯৬১১৬০৪, হটলাইন : +৮৮০-১৯২৬৬৬৭০০২-৩, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Website: http://www.dainikbangla.com.bd, Developed by i2soft
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর: মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন জিটু
সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : রেড ক্রিসেন্ট বোরাক টাওয়ার, লেভেল-৫, ইস্কাটন গার্ডেন রোড, রমনা, ঢাকা-১০০০।
ফোনঃ +৮৮-০২-৯৬৬৬৬৮৫, ৯৬৭৫৮৮৫, ৯৬৬৪৮৮২-৩, ফ্যাক্সঃ +৮৮-০২-৯৬১১৬০৪, হটলাইন : +৮৮০-১৯২৬৬৬৭০০২-৩, ই-মেইল : [email protected], [email protected]