English ভিডিও গ্যালারি ফটো গ্যালারি ই-পেপার মঙ্গলবার ২৭ অক্টোবর ২০২০ ১২ কার্তিক ১৪২৭
ই-পেপার মঙ্গলবার ২৭ অক্টোবর ২০২০
 / আন্তর্জাতিক / শীর্ষ ধনী থেকে আজ নিঃস্ব অনিল আম্বানি
শীর্ষ ধনী থেকে আজ নিঃস্ব অনিল আম্বানি
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১১:০১ এএম | অনলাইন সংস্করণ

শীর্ষ ধনী থেকে আজ নিঃস্ব অনিল আম্বানি

শীর্ষ ধনী থেকে আজ নিঃস্ব অনিল আম্বানি

ভারতের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি মুকেশ আম্বানির নাম  কমবেশি সবার জানা। ফরচুন ম্যাগাজিনের তথ্য মতে, তার সম্পদের পরিমাণ প্রায় ৬৪ বিলিয়ন বা ছয় হাজার ৪০০ কোটি ডলার। ভারতের রিলায়েন্স গ্রুপের প্রধান তিনি। আর মুকেশ আম্বানির ছোট ভাই অনিল আম্বানি। তিনিও কিছুদিন আগে পর্যন্ত ছিলেন একজন বিলিওনেয়ার। ভারতের অন্যতম শীর্ষ ধনী।

তবে গত সম্প্রতি তিনি যে তথ্য দিয়েছেন তাতে জানা গেছে, সঞ্চিত অলংকার বিক্রি করে এখন তিনি খরচ চালাচ্ছেন। লন্ডনের এক আদালতে শুনানির সময় মুম্বাইতে বসে অনলাইনে আইনজীবীদের জেরার তিনি বলেন, অলংকার বিক্রি করে তাকে আইনজীবীর বিল পরিশোধ করতে হচ্ছে।
অনিল আম্বানি আগেই জানিয়েছিলেন তার সম্পদ শূন্যে নেমে এসেছে। মুকেশ ও অনিল আম্বানি উত্তরাধিকার সূত্রে এই বিপুল ব্যবসায়িক সাম্রাজ্যের মালিক হন। তাদের বাবা ধীরুভাই আম্বানি রিলায়েন্সের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন ।

২০০২ সালে ধীরুভাই আম্বানি মারা যাওয়ার পর দুই ভাই কাঁধে ব্যবসার দায়িত্ব আসে। তাদের মধ্যে তীব্র মতবিরোধ তৈরি হওয়ার পর দুই ভাই রিলায়েন্স গ্রুপ ভাগ করে নেন। যদিও মুকেশ আম্বানি দিনে দিনে সম্পদ আরও বাড়িয়েছেন, আর অনিল আম্বানি হারানোর খাতায় নাম লিখিয়েছেন।

ভারতীয় একাধিক গণমাধ্যম জানায়, অনিল আম্বানিকে শুক্রবার চিনের তিনটি ব্যাংকের দায়ের করা এক মামলার শুনানিতে ভার্চুয়াল আদালতের হাজিরা দেন। সেই শুনানিতে তিনি তার সম্পদ এবং ব্যক্তিগত জীবনযাত্রা সম্পর্কে যা বলেছেন তা ফলাও করে ছাপা হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সংবাদপত্রে বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে। 

চীনের রাষ্ট্রায়ত্ব তিন ব্যাংক অনিল আম্বানির মালিকানাধীন রিলায়েন্স কমিউনিকেশনস লিমিটেডের কাছে ৭০ কোটি ডলার পাবে। এজন্য মামলা করেছে তারা। ২০১২ সালে ঋণ নিয়েছিলেন অনিল।
তিনটি চীনা ব্যাংক বলছে, এর আগে আদালত এক রুলিং জারি করে অনিল আম্বানিকে নির্দেশ দিয়েছে অর্থ পরিশোধের জন্য, কিন্তু তারা এখনো কোনো অর্থ পায়নি।

আদালতে শুনানি চলাকালে একজন বিচারক মন্তব্য করেছিলেন, অনিল আম্বানি বিলাসী জীবন-যাপন করেন। এছাড়া তার বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ আনা হয়। 

জবাবে আনিল বলেন, তার জীবন যাপন খুব সাদাসিধে। তিনি বিলাসী জীবন-যাপন করেন বলে যেসব জল্পনা, তা মোটেই সত্য নয়। তিনি একজন ম্যারাথন দৌড়বিদ, ধূমপান করেন না এবং জুয়াও খেলেন না।
তার অতীত, বর্তমান বা ভবিষ্যৎ বিলাসবহুল জীবন নিয়ে যেসব ইঙ্গিত করা হয়, তাও একেবারে জল্পনা-কল্পনা বলে জানান তিনি।

সূত্র: বিবিসি, এনডিটিভি  




সর্বশেষ খবর
৯ ঘণ্টা পর স্বাভাবিক হলো খুলনার সঙ্গে সারাদেশের রেল যোগাযোগ
আরও অবনতি,স্বাভাবিকভাবে কিউডিনই কাজ করছে না সৌমিত্রের
হঠাৎ ঋতু বদলে ঠান্ডা-জ্বর হলে যা করবেন
মুসলিম বিশ্বের কাছে ম্যাক্রোঁকে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান লিবিয়ার
প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী তৃণমূলের ফুটবল উন্নয়নে কাজ শুরু করেছে বাফুফে
শরীরে ৪৫৩ টি ছিদ্র, মাথায় সিং বানিয়ে ওয়ার্ল্ড রেকর্ড !
দেশে ক্রিকেট ফেরানোর আগে দুঃসংবাদ পেল নিউজিল্যান্ড
সর্বাধিক পঠিত
স্বামীর ‘বর্বর’ শারীরিক সম্পর্কে লাশ হলো কিশোরী স্ত্রী
সেলিমপুত্র ইরফানের এক বছর জেল
নূরের গণচাঁদা : নয় দিনে ৯ লাখ ৭৭ হাজার টাকা
হাজী সেলিমের বাসায় র‍্যাবের অভিযান
এরফান সেলিমের বাসা থেকে বিদেশি মদ-বিয়ার-অস্ত্র উদ্ধার করেছে র‌্যাব
পদ হারাতে পারেন কাউন্সিলর ইরফান সেলিম
ফরাসী পণ্য বর্জনের ডাক দিলেন এরদোয়ান
আরও দেখুন...


Copyright © 1962-2019
All rights reserved
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর: মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন জিটু
সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : রেড ক্রিসেন্ট বোরাক টাওয়ার, লেভেল-৫, ইস্কাটন গার্ডেন রোড, রমনা, ঢাকা-১০০০।
ফোনঃ +৮৮-০২-, ৫৫১৩৮৫০১, ৫৫১৩৮৫০২, ৫৫১৩৮৫০৩, ফ্যাক্সঃ +৮৮-০২-৫৫১৩৮৫০৪, ই-মেইল : [email protected], [email protected], [email protected]
Website: http://www.dainikbangla.com.bd, Developed by i2soft
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর: মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন জিটু
সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : রেড ক্রিসেন্ট বোরাক টাওয়ার, লেভেল-৫, ইস্কাটন গার্ডেন রোড, রমনা, ঢাকা-১০০০।
ফোনঃ +৮৮-০২-, ৫৫১৩৮৫০১, ৫৫১৩৮৫০২, ৫৫১৩৮৫০৩, ফ্যাক্সঃ +৮৮-০২-৫৫১৩৮৫০৪, ই-মেইল : [email protected], [email protected], [email protected]