English ভিডিও গ্যালারি ফটো গ্যালারি ই-পেপার শুক্রবার ১৬ এপ্রিল ২০২১ ৩ বৈশাখ ১৪২৮
ই-পেপার শুক্রবার ১৬ এপ্রিল ২০২১
 / আন্তর্জাতিক / বিয়ের দিন জানতে পারলো শাশুরি তার আপন মা!
বিয়ের দিন জানতে পারলো শাশুরি তার আপন মা!
আন্তজাতিক ডেস্ক:
প্রকাশ: বুধবার, ৭ এপ্রিল, ২০২১, ১০:২০ এএম | অনলাইন সংস্করণ

বিয়ের দিন জানতে পারলো শাশুরি তার আপন মা!

বিয়ের দিন জানতে পারলো শাশুরি তার আপন মা!

ছেলের বিয়ের আসরে হবু পুত্রবধূর হাতের জন্মদাগের ওপর চোখ আটকে গিয়েছিল চীনের এক নারীর। সঙ্গে সঙ্গে ওই নারীর মনে পড়ে যায় তাঁর হাতের মুঠো থেকে হারিয়ে যাওয়া একটা ছোট্ট হাত... ওই হাতেও যে ঠিক এমনই একটা দাগ ছিল! কালবিলম্ব না করে তিনি ছুটে যান মেয়েটির মা-বাবার কাছে। জানতে চান, মেয়েটি কি আদৌ তাঁদের নিজেদের সন্তান, না কি বিশ বছর আগে তাঁরা কোনো শিশুকে দত্তক নিয়েছিলেন? খবর সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার ও দ্য ডেইলি মেইলের।


গত ৩১ মার্চ চীনের চিয়াংসু প্রদেশের সুচোউ শহরের এ ঘটনা কোনো সিনেমার কাহিনির চেয়ে কম রোমাঞ্চকর নয়। তবে এই ঘটনার বিস্তারিত জানতে হলে যেতে হবে দুই দশক অতীতে। কোনো এক দুর্ঘটনায় নিজের তিন বছরের মেয়েকে হারিয়ে ফেলেছিলেন ওই নারী। অনেক থানা-পুলিশ করেছেন। কিন্তু কোনো হদিশ মেলেনি সন্তানের।

এরপর কেটে গেছে কুড়ি বছর। সম্প্রতি ওই নারীর ছেলের বিয়ে ঠিক হয়। হবু পুত্রবধূর সঙ্গে আলাপ হয়েছিল আগেই, কিন্তু তখন হবু পুত্রবধূর হাতের সেই জন্মদাগ চোখে পড়েনি। বিয়ের আসরে যখন  চোখে পড়ল, তখন আর এক মুহূর্তও দেরি করলেন না ওই নারী। হবু পুত্রবধূর মা-বাবাকে সোজা প্রশ্ন করেন— ‘আপনাদের মেয়েকে কি আপনারা দত্তক নিয়েছিলেন?’


মেয়ের হবু শাশুড়ির এমন প্রশ্ন শুনে হতচকিত হয়ে যান সেই দম্পতি। কুড়ি বছর আগে রাস্তায় থেকে একটি শিশুকে তুলে এনে নিজেদের মেয়ের মতো লালন-পালন করেছেন তাঁরা। কিন্তু, সে কথা তো কেউ জানে না। এমনকি, তাঁদের মেয়েও জানে না। মেয়েটির মা-বাবার উত্তর শুনে ওই নারী বুঝতে পারেন— হবু পুত্রবধূ আর কেউ নয়, অনেক বছর আগে হারিয়ে যাওয়া তাঁর নিজের মেয়ে।

বিয়ের অনুষ্ঠানে আসে অতিথিদের মধ্যে ততক্ষণে ফিসফাস শুরু হয়ে গেছে। আর হারানো মাকে ফিরে পেয়ে হাউমাউ করে কাঁদছে মেয়েটি।

কয়েক মিনিট পর কনের হুঁশ ফেরে। এ বিয়ে তো তা হলে অসম্ভব। বর যে তার আপন ভাই! চমক তখনও শেষ হয়নি। ওই নারী জানান, তাঁর ছেলেটি তাঁর গর্ভজাত সন্তান নয়! মেয়েকে খুঁজে না পেয়ে এই ছেলেকে দত্তক নিয়েছিলেন তিনি। ছেলেটিও জানত না যে সে দত্তক সন্তান। যেহেতু দুজনের মধ্যে কোনো রক্তের সম্পর্ক নেই, তাই এই বিয়ে হতেও বাধা নেই।

এরপর চার হাত এক করে ওই নারী বললেন, ‘বিশ বছর ধরে যে দুঃস্বপ্নের ভার বয়ে চলেছি, আজ তা থেকে মুক্ত হলাম।’  আর, নববধূ সলাজ হেসে বললেন, ‘বিয়ে করে যতটা না, মাকে খুঁজে পেয়ে তারচেয়ে অনেক বেশি খুশি লাগছে।’




সর্বশেষ খবর
লকডাউন নয় ক্র্যাকডাউনে নেমেছে সরকার: ফখরুল
দুই দশক পর আফগানিস্তান ছাড়ছে ন্যাটো বাহিনী
ট্রিলিয়ন ডলারে বেড়েছে অনলাইন কেনাকাটা
ঈদের আগেই ৫০ লাখ পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দিবে সরকার
নিরপরাধ শিশুর চোখে গুলি করল ইসরাইলি সেনা
সেলফি তুলতেও বের হচ্ছে মানুষ!
শ্মশান ও কবরস্থানে ভিড়, মৃতদেহ নিয়ে চিন্তিত স্বজনেরা
সর্বাধিক পঠিত
সোনারগাঁওয়ে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, ৪টি ঘর পুড়ে ছাই
প্রবাসী কর্মীদের জন্য বিশেষ ফ্লাইট : যেসব দেশের যাত্রীরা এই সুযোগ পাবেন
সম্মিলিত শক্তি দিয়ে প্রতিহত করতে হবে করোনা: কাদের
করোনায় মারা গেছেন সাবেক আইনমন্ত্রী আবদুল মতিন খসরু
‘সর্বাত্মক লকডাউন’র শুরুতেই ৯৬ জনের মৃত্যুর রেকর্ড
পানির নিচে অঙ্কুশ-ঐন্দ্রিলার উষ্ণ ফটোশুট
কাদের মির্জারকে গ্রেফতারের আল্টিমেটাম
আরও দেখুন...


Copyright © 1962-2019
All rights reserved
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর: মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন জিটু
সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : রেড ক্রিসেন্ট বোরাক টাওয়ার, লেভেল-৫, ইস্কাটন গার্ডেন রোড, রমনা, ঢাকা-১০০০।
ফোনঃ +৮৮-০২-, ৫৫১৩৮৫০১, ৫৫১৩৮৫০২, ৫৫১৩৮৫০৩, ফ্যাক্সঃ +৮৮-০২-৫৫১৩৮৫০৪, ই-মেইল : [email protected], [email protected]m, [email protected]
Website: http://www.dainikbangla.com.bd, Developed by i2soft
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর: মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন জিটু
সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : রেড ক্রিসেন্ট বোরাক টাওয়ার, লেভেল-৫, ইস্কাটন গার্ডেন রোড, রমনা, ঢাকা-১০০০।
ফোনঃ +৮৮-০২-, ৫৫১৩৮৫০১, ৫৫১৩৮৫০২, ৫৫১৩৮৫০৩, ফ্যাক্সঃ +৮৮-০২-৫৫১৩৮৫০৪, ই-মেইল : [email protected], [email protected], [email protected]