ENGLISH
ফটোগ্যালারি
ভিডিও গ্যালারি
শিরোনাম :
বাংলাদেশের দরকার ৯২৮ বিলিয়ন ডলার: অর্থমন্ত্রী      পাকিস্তান পার্লামেন্টে বাংলাদেশের সমালোচনা      হারের স্বাদ পেল বার্সেলোনা      প্রযুক্তি পণ্যের আমদানি নির্ভরতা কমছে: মোস্তাফা জব্বার      বাংলাদেশের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন ওপেক মহাপরিচালকের      ইয়েমেনে একমাসে নিহত ৪৫৯       আমরা নোংরা পলিটিক্স করি না, বিশ্বাসও করি না : ওবায়দুল কাদের      
মঙ্গলবার জাতীয় নাট্যশালায় প্রাঙ্গণেমোরের ‘শেষের কবিতা’
Published : Sunday, 7 January, 2018
মঙ্গলবার জাতীয় নাট্যশালায় প্রাঙ্গণেমোরের ‘শেষের কবিতা’ বিনোদন ডেস্ক : জাতীয় নাট্যশালার মূল মিলনায়তনে আগামী ৯ জানুয়ারি, মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টায় মঞ্চায়িত হবে প্রাঙ্গণেমোর নাট্যদলের নাটক ‘শেষের কবিতা’। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘শেষের কবিতা’ উপন্যাস থেকে এর নাট্যরূপ দিয়েছেন অনন্ত হিরা, নির্দেশনা দিয়েছেন নূনা আফরোজ। এটি প্রাঙ্গণেমোরের ৬ষ্ঠ প্রযোজনা।

অভিনয় করবেন-নূনা আফরোজ, অনন্ত হিরা, রামিজ রাজু, শুভেচ্ছা, আউয়াল রেজা, সরোয়ার সৈকত, মাইনুল তাওহীদ, চৈতী, কারিমা, জাহিদ, ঊষা, আশা, রিগ্যান, সীমান্ত, মনির, বিপ্লব, বাধন, টুসি।

শেষের কবিতা উপন্যাসটি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ৬৭ বছর বয়সে লিখেছিলেন। বহুল পঠিত এই উপন্যাসের নাট্যরূপ প্রাঙ্গণেমোরের ‘শেষের কবিতা’। এই নাটকের মূল চরিত্র অমিত ও লাবণ্য।

শিলং পাহাড়ের পথে বিপরীতমুখী দুটি গাড়ির পরস্পর আকস্মিক দুর্ঘটনায় পরিচয় হয় বিলেত ফেরত ব্যারিস্টার অমিত রায় ও লাবণ্যর। নির্জন পাহাড়ের সবুজ অরণ্য ঘেরা দুর্লভ অবসরে দুজন দুজনকে দেখে মুগ্ধ হয়। অমিত লাবণ্যকে বিয়ে করতে অস্থির হয়ে ওঠে। কিন্তু লাবণ্যর মন তাতে সায় দেয় না।

অনেক তর্ক-বিতর্ক, মান-অভিমানের পর অমিত লাবণ্যর বিয়েটা যখন অনিশ্চয়তার দোলাচলে দুলতে দুলতে সিদ্ধান্তে পৌঁছায়, ঠিক সেই সময় অমিতের বন্ধু কেতকী শিলং গিয়ে উপস্থিত হয়। কেতকীর সঙ্গে বিলেতে থাকার সময় অমিতের একটা গভীর মুগ্ধতার সম্পর্ক ছিল এবং সে সময়টাতে অমিত কেতকীকে ভালোবেসেই একটি আংটি পরিয়েছিল।

লাবণ্যর সঙ্গে অমিতের বিয়ের খবর শুনে কেতকী সে আংটি খুলে রাগে অভিমানে অশ্রুসিক্ত নয়নে শিলং ছেড়ে চেরাপুঞ্জি চলে যায়। অমিত যে আংটিটি লাবণ্যকে পরিয়েছিল সেটিও লাবণ্য ফিরিয়ে দেয়। অমিত দুজনের কাছ থেকেই প্রত্যাখ্যাত হয়। অমিত কি করবে ভেবে পায় না।

কদিন পর চেরাপুঞ্জি থেকে ফিরে এসে অমিত দেখে লাবণ্য চলে গেছে। অমিত ফিরে যায় কলকাতায়। তার কিছুদিন পরে অমিতের সঙ্গে বিয়ে হয় কেতকীর। তারও কিছুদিন পরে লাবণ্যর একটি চিঠি আসে অমিতের কাছে। সেই চিঠির এক পাশে শোভনলালের সঙ্গে লাবণ্যর বিয়ের খবর। আর চিঠির অন্য পাশে অমিতের জন্য লেখা একটি দীর্ঘ কবিতা।






সম্পাদক ও প্রকাশক: মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন জিটু
সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৪৫/৩/এ, বীর উত্তম সি.আর.দত্ত রোড (ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, সোনারগাঁও রোড), হাতির পুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫,বাংলাদেশ।
ফোনঃ +৮৮-০২-৯৬৬৬৬৮৫, ৯৬৭৫৮৮৫, ৯৬৬৪৮৮২-৩, ফ্যাক্সঃ +৮৮-০২-৯৬১১৬০৪, হটলাইন : +৮৮০-১৯২৬৬৬৭০০২-৩
ই-মেইল : mdainikbangla@gmail.com, editordainikbangla@gmail.com, web : www.dainikbangla.com.bd