বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের বিশেষ কর্মসূচি

বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. শওকত আলী খান ব্যাংকের কর্মপরিবেশ উন্নয়ন ও ব্যাংকার-গ্রাহক সম্পর্ক উন্নয়নের লক্ষ্যে ফেব্রুয়ারি মাসব্যাপী বিশেষ কর্মসূচি ঘোষণা করেন। সম্প্রতি ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় থেকে ভার্চুয়াল সভার মাধ্যমে তিনি এ কর্মসূচি ঘোষণা ও বাস্তবায়নবিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ দিক-নির্দেশনা দেন। ছবি: সংগৃহীত
করপোরেট ডেস্ক
প্রকাশিত
করপোরেট ডেস্ক
প্রকাশিত : ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ১০:৪৬

বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. শওকত আলী খান ব্যাংকের কর্মপরিবেশ উন্নয়ন ও ব্যাংকার-গ্রাহক সম্পর্ক উন্নয়নের লক্ষ্যে ফেব্রুয়ারি মাসব্যাপী বিশেষ কর্মসূচি ঘোষণা করেন। সম্প্রতি ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় থেকে ভার্চুয়াল সভার মাধ্যমে তিনি এ কর্মসূচি ঘোষণা ও বাস্তবায়নবিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ দিক-নির্দেশনা দেন। এ সময় ব্যাংকের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক চানু গোপাল ঘোষ, খান ইকবাল হোসেন ও সালমা বানুসহ প্রধান কার্যালয়ের সব মহাব্যবস্থাপক ও উপমহাব্যবস্থাপকরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি সংযুক্ত ছিলেন সব বিভাগীয় মহাব্যবস্থাপক, বিভাগীয় নিরীক্ষা কর্মকর্তা, মুখ্য আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক, সব করপোরেট শাখাপ্রধান ও আঞ্চলিক নিরীক্ষা কর্মকর্তারা। ব্যাংক ঘোষিত ১০০ দিনের কর্মপরিকল্পনার অন্যতম কর্মসূচি ছিল কর্মপরিবেশ উন্নয়ন। ব্যাংকার-গ্রাহক সম্পর্ক উন্নয়ন ও গ্রাহক সেবার মান বৃদ্ধির জন্য গ্রাহকদের মতামতের ভিত্তিতে সর্বোত্তম গ্রাহক সেবা নিশ্চিত করার ওপর কর্মসূচিতে বিশেষ গুরুত্বারোপ করা হয়।

বিষয়:

এসসিবির পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

শিপার্স কাউন্সিল অফ বাংলাদেশের (এসসিবি) ২০২৪-২৫ মেয়াদের পরিচালনা পর্ষদের প্রথম সভা গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে কাউন্সিলের নিজস্ব অফিসের সম্মেলন কক্ষে চেয়ারম্যান মো. রেজাউল করিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় এসসিবির বার্ষিক কর্ম পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয় এবং পূর্ববর্তী সভার কার্যবিবরণী ও এসসিবির হিসাব বিবরণী অনুমোদনসহ ব্যাংক হিসাব পরিচালনার জন্য স্বাক্ষরকারী মনোনয়ন করা হয়। এ ছাড়া কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বেতন বৃদ্ধির ও অত্র কাউন্সিলের নতুন স্পেস ক্রয়ের বিষয়ে সভায় সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

কাউন্সিলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান আরিফুল আহ্সান; ভাইস চেয়ারম্যান গনেশ চন্দ্র সাহা এবং পরিচালকরা- এ কে এম আমিনুল মান্নান (খোকন); আরজু রহমান ভুঁইয়া; সৈয়দ মো. বখতিয়ার; জিয়াউল ইসলাম; আতাউর রহমান খান; কে এম আরিফুজ্জামান ও লোকপ্রিয় বড়ুয়া পর্ষদ সভায় যোগদান করেন। বিজ্ঞপ্তি

বিষয়:

সাজ্জাদুল হাসানকে বিমানের সংবর্ধনা

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সংসদ সদস্য সাজ্জাদুল হাসান গত ২৫ ফেব্রুয়ারি বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের প্রধান কার্যালয় পরিদর্শন করেন। এ উপলক্ষে বলাকায় একটি সংবর্ধনা ও মতবিনিময় অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিমান পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান সাবেক সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোকাম্মেল হোসেন, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মফিদুর রহমান, বিমান বোর্ডের সদস্য এয়ার ভাইস মার্শাল হাসান মাহমুদ খান এবং ব্যারিস্টার তানজিবুল আলম। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও অতিরিক্ত সচিব শফিউল আজিম। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিমানের পরিচালক, মহাব্যবস্থাপক এবং ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

বলাকায় সাজ্জাদুল হাসানকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানানো হয় এবং তার কর্মময় জীবন নিয়ে নির্মিত একটি সংক্ষিপ্ত তথ্যচিত্র প্রদর্শিত হয়। এ ছাড়াও বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিভিন্ন দিক নিয়ে সার্বিক আলোচনা হয়। বিজ্ঞপ্তি

বিষয়:

র‌্যাংগসের এলজি ওএলইডি ইভিও-৩ সিরিজ বাজারজাত শুরু

দেশের শীর্ষস্থানীয় ইলেকট্রনিক্স কোম্পানি এবং এলজি ইলেকট্রনিক্স বাংলাদেশের অফিসিয়াল ডিস্ট্রিবিউটর র‌্যাংগস ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে এলজি ওএলইডি ইপিও ত্রি সিরিজ উদ্বোধন করেছে। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

দেশের শীর্ষস্থানীয় ইলেকট্রনিক্স কোম্পানি এবং এলজি ইলেকট্রনিক্স বাংলাদেশের অফিসিয়াল ডিস্ট্রিবিউটর র‌্যাংগস ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে এলজি ওএলইডি ইপিও ত্রি সিরিজ উদ্বোধন করেছে। বিনাস হোসেন, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক, র‌্যাংগস ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড এবং এলজি ইলেক্ট্রনিক্স বাংলাদেশ ব্রাঞ্চের ব্যবস্থাপনা পরিচালক পিটার ইয়ংগিল কো যৌথভাবে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন। এ ছাড়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার মোহাম্মদ জানে আলমসহ র‌্যাংগস ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড ও এলজি ইলেকট্রনিক্স বাংলাদেশ ব্রাঞ্চের অন্য বিভাগীয় কর্মকর্তারা।

আসন্ন ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে ঢাকার বাংলামোটরের সোনারতরী টাওয়ারে এ উদ্বোধন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। যেখানে এলজি ওএলইডি ইপিও ত্রি সিরিজ বাংলাদেশের বাজারে প্রথমবারের মতো আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে। নতুন সিরিজের এই টিভিসহ এলজির সব পণ্য পাওয়া যাবে দেশব্যাপী র‌্যাংগস ইলেকট্রনিক্সের বিভিন্ন শোরুম ও অনলাইন স্টোর shop.rangs.com.bd-তে।

উদ্বোধনী অফার হিসেবে থাকছে ওয়াশিং মেশিন বা এসির সঙ্গে সর্বোচ্চ ৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত ছাড়ের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। লেটেস্ট মডেলের এই টিভিতে ব্রাইটনেস বুস্টার থাকার কারণে আগের তুলনায় আরও বেশি ব্রাইট ডিসপ্লে পাওয়া যাবে। আলফা ০৯, ০৬ জেনারেশন প্রসেসর ব্যবহৃত হওয়ার জন্য যেকোনো গেম খেলা যাবে একদম নিরবচ্ছিন্নভাবে। ভার্চুয়াল ৯.১.২ আপ-মিক্স অবজেক্ট বেজড ত্রিডি সারাউন্ড সাউন্ড সিস্টেমে উপভোগ করা যাবে অনন্য সাউন্ড অ্যান্ড মিউজিক। আরও থাকছে আলট্রা স্লিম ডিজাইন এবং হ্যান্ডস-ফ্রি ভয়েস কমান্ড। সর্বাধুনিক বুব-কমফোর্ট ডিসপ্লে টেকনোলজি ব্যবহার করার জন্য ৫০% কম ক্ষতিকর বেগুনি রশ্মি ও ফ্লিকার-ফ্রি টিভি দেখার অভিজ্ঞতা পাওয়া যাবে এই টিভিতে। র‌্যাংগস ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড গত ৪০ বছর থেকে বাংলাদেশের বাজারে অফিসিয়াল ইলেকট্রনিক্স পণ্য বাজারজাত করছে ও নিশ্চিত করে যাচ্ছে অফিসিয়াল বিক্রয়োত্তর সেবা। বিজ্ঞপ্তি

বিষয়:

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ে রোবটিক্স প্রতিযোগিতা ইনফিনিক্সের 

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন ক্যাম্পাসে সম্প্রতি দুই দিনব্যাপী রোবটিক্স ইভেন্টের আয়োজন করে তরুণদের পছন্দের স্মার্টফোন ব্র্যান্ড ইনফিনিক্স। ‘টেকস্প্রেকট্রা ২.০’ নামের এই রোবটিক প্রতিযোগিতা দেখতে ক্যাম্পাসে জড়ো হয় শতশত শিক্ষার্থী। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন ক্যাম্পাসে সম্প্রতি দুই দিনব্যাপী রোবটিক্স ইভেন্টের আয়োজন করে তরুণদের পছন্দের স্মার্টফোন ব্র্যান্ড ইনফিনিক্স। ‘টেকস্প্রেকট্রা ২.০’ নামের এই রোবটিক প্রতিযোগিতা দেখতে ক্যাম্পাসে জড়ো হয় শতশত শিক্ষার্থী। ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের রোবটিক ক্লাবের তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত এই আয়োজনে ৫০০-এর বেশি টেকপ্রেমী শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। রোবট বানানো ও প্রোগ্রামিং নিয়ে শিক্ষার্থীরা তাদের দক্ষতা প্রদর্শনের সুযোগ পান এই আয়োজনে। অনুষ্ঠান শুরু হয় আইডিয়া কম্পিটিশিনের মাধ্যমে। শিক্ষার্থীরা এখানে রোবটিক প্রযুক্তি নিয়ে তাদের উদ্ভাবনী চিন্তাগুলো তুলে ধরেন। ওই আয়োজনে তরুণ শিক্ষার্থীদের এই প্রেরণাকে স্বাগত জানায় প্রযুক্তি ব্র্যান্ড ইনফিনিক্স। পাশাপাশি প্রযুক্তি সমৃদ্ধ ভবিষ্যৎ গড়তে তরুণদের উৎসাহিত করে গেমিংয়ে উন্নত অভিজ্ঞতা দিতে কাজ করা এ ব্র্যান্ডটি।

রোবটিক প্রযুক্তি প্রদর্শনের এই আয়োজনে সবচেয়ে বেশি দৃষ্টি আকর্ষণ করে ‘সকারবট’ ও ‘লাইন-ফলোয়িং রোবট রেস’ নামের প্রতিযোগিতা দুটি। শিক্ষার্থীদের বানানো রোবটগুলো এই প্রতিযোগিতায় দ্রুততার সঙ্গে নির্ভুলভাবে লক্ষ্যে পৌঁছাতে সক্ষম হয়। রোবটের এমন আচরণ মোহিত করে উপস্থিত দর্শকদের। সবচেয়ে বেশি গোল করার জন্য ‘সকারবট’ নামের গেমটিতে একটি বল নিয়ে লড়াই করে বেশ কয়েকটি রোবট। অন্যদিকে, অত্যন্ত উত্তেজনাপূর্ণ লাইন-ফলোয়িং রোবট রেসে সবার আগে ফিনিশ লাইনে পৌঁছাতে দৌড়ায় আরও কয়েকটি রোবট। মাত্র ৩ সেন্টিমিটার প্রস্থের একটি ট্র্যাকে এ প্রতিযোগিতায় নামে রোবটগুলো।

মূলত, নতুন ধরনের রোবট তৈরি করে অগ্নিনির্বাপণ ও যাতায়াত ব্যবস্থায় নানা সমস্যা সমাধান করতে টেকস্পেকট্রা ২.০ আয়োজন করা হয়। ইনফিনিক্সের মাধ্যমে এমন একটি উদ্ভাবনী প্ল্যাটফর্ম পায় আগ্রহী ও উদ্যোগী শিক্ষার্থীরা। বাংলাদেশের গেমিং ও রোবটিকস ইন্ডাস্ট্রির সম্ভাবনাময় ভবিষ্যতের ইঙ্গিতও পাওয়া যায় এ সফল আয়োজনের মাধ্যমে।

ইনফিনিক্সের উৎসাহে শিক্ষার্থীরা এই আয়োজনে উন্নত ভবিষ্যতের মান নির্ধারণ করেন। পাশাপাশি বর্তমানই যে আগামীতে পৌঁছানোর পথ, সেটি আবারও মনে করিয়ে দেন তারা। প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের শুভেচ্ছা জানাতে অন্যদের মধ্যে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইনফিনিক্স ও ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। বিজ্ঞপ্তি

বিষয়:

ইসলামী ব্যাংকের বোর্ড সভা

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ পিএলসির পরিচালনা পর্ষদের এক সভা গতকাল মঙ্গলবার ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে অনুষ্ঠিত হয়। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ পিএলসির পরিচালনা পর্ষদের এক সভা গতকাল মঙ্গলবার ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে অনুষ্ঠিত হয়। ব্যাংকের চেয়ারম্যান আহসানুল আলম এতে সভাপতিত্ব করেন। সভায় ভাইস চেয়ারম্যান ইউসিফ আবদুল্লাহ এ আল-রাজি ও ডা. তানভীর আহমেদ, অন্য পরিচালকরা, ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও মুহাম্মদ মুনিরুল মওলা এবং অ্যাডিশনাল ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও কোম্পানি সেক্রেটারি জেকিউএম হাবিবুল্লাহ উপস্থিত ছিলেন। বিজ্ঞপ্তি

বিষয়:

আইএফআইএলের ২৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী

২৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্‌যাপন করেছে দেশের প্রথম পূর্ণাঙ্গ শরিয়াহ্ভিত্তিক আর্থিক প্রতিষ্ঠান ইসলামিক ফিন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড (আইএফআইএল)। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

২৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্‌যাপন করেছে দেশের প্রথম পূর্ণাঙ্গ শরিয়াহ্ভিত্তিক আর্থিক প্রতিষ্ঠান ইসলামিক ফিন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড (আইএফআইএল)। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল মঙ্গলবার প্রতিষ্ঠানের প্রধান কার্যালয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানে কেক কেটে অনুষ্ঠানের সূচনা করেন আইএফআইএলের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান কেবিএম মঈন উদ্দিন চিশ্তী। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। আইএফআইএলের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচিতে অংশ নেয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কেবিএম মঈন উদ্দিন চিশ্তী আইএফআইএলের ২৩ বছর পূর্তিতে গ্রাহক, শেয়ার হোল্ডার, বাংলাদেশ ব্যাংক, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন, ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ লিমিটেড, এনবিআরসহ সব অংশীদার, আইএফআইেএলের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা শুভেচ্ছা জানান। আইএফআইেএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মোহাম্মদ মোশারফ হোসেন তার বক্তব্যে প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন ক্ষেত্রে সফলতা ও অর্জনের কথা তুলে ধরেন এবং ভবিষ্যতে প্রতিষ্ঠানের সুনাম বজায় রাখতে সবার সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন। এ সময় পর্ষদের পরিচালক, অতিথি, বিভাগীয় প্রধান এবং অন্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। দেশব্যাপী আইএফআইএল শাখাগুলোতেও নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে উৎসবমুখর পরিবেশে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্‌যাপিত হয়। বিজ্ঞপ্তি

বিষয়:

সাসটেইনেবল এন্টারপ্রাইজ প্রজেক্টের সুপণ্য ইলেকট্রিক-মেশিনারি মেলা

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

দুই দিনব্যাপী ২৪-২৫ ফেব্রুয়ারি ইলেকট্রিক, মেশিনারি অ্যান্ড ইকুইপমেন্ট মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে রাজধানীর কদমতলীর দনিয়া আম্বিয়া বানু কমিউনিটি সেন্টারে। ‘সাসটেইনেবল এন্টারপ্রাইজ প্রজেক্ট (এসইপি)’ প্রকল্প আয়োজিত সুপণ্যের এই মেলায় ১১ জন ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা অংশগ্রহণ করে। পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ) এবং জানালা বাংলাদেশ যৌথভাবে এই মেলার আয়োজন করছে। আয়োজকরা জানায়, ক্ষুদ্র উদ্যোক্তারা পরিবেশবান্ধব উপায়ে এবং আধুনিক প্রযুক্তির সাহায্যে তৈরিকৃত মানসম্মত যন্ত্রপাতি, ইলেকট্রিক পণ্য ও বাথরুম ফিটটিংস প্রদর্শন করে এই মেলায়। দুই দিনের এই মেলায় দেশীয় উদ্যোক্তাদের তৈরি মানসম্মত যন্ত্রপাতি, ইলেকট্রিক পণ্য ও বাথরুম ফিটটিংস দেখে দর্শনার্থীরা মুগ্ধ এবং তারা দেশীয় উদ্যোক্তাদের এই প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। বিজ্ঞপ্তি

বিষয়:

মাহমুদুল ইসলামের নতুন বই বাংলাদেশে ব্যাংকাসুরেন্স

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

দেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক নিরাপত্তায় এবং একটি কল্যাণকর রাষ্ট্র গঠনে বিমার বহুমুখী ভূমিকা রয়েছে। বিমা খাতের উন্নয়ন ও সম্প্রসারণে বিপণন ব্যবস্থা বহুমুখীকরণের লক্ষ্যে বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ বাংলাদেশে করপোরেট এজেন্ট হিসেবে ব্যাংকের মাধ্যমে বিমা পণ্য বিপণনের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। ব্যাংকের মাধ্যমে বিমা বিক্রয়ের এক অভিনব পদ্ধতির নাম ব্যাংকাসুরেন্স। যার মাধ্যমে ব্যাংক ও বিমাকারীর যৌথ প্রচেষ্টায় গ্রাহকরা দ্রুত ও নির্ভরযোগ্য বিমা সেবা গ্রহণ করতে পারবে। যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, ইতালি, জার্মানি, স্পেন, নেদারল্যান্ডসের মতো দেশের ব্যাংকগুলো নিজস্ব পণ্যের পাশাপাশি বিমাপণ্যও বিক্রি করে এবং বাংলাদেশেও এর বিশাল সম্ভাবনা রয়েছে।

দেশের স্বনামধন্য বিমা প্রতিষ্ঠানে প্রশিক্ষণ ও গবেষণা বিভাগের প্রধান হিসেবে কর্মরত মো. মাহমুদুল ইসলাম তার নিয়মিত লেখনী ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বিমাশিল্পের উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। এটি তার লেখা দশম বই। লেখক বলেন, বাংলা ভাষায় প্রথম ব্যাংকাসুরেন্সবিষয়ক বই ‘বাংলাদেশে ব্যাংকাসুরেন্স’। এই বইটি এমনভাবে লেখা হয়েছে, ব্যাংক ও ইন্স্যুরেন্সে সম্পৃক্ত কর্মী-কর্মকর্তারা উপকৃত হওয়ার পাশাপাশি যারা ব্যাংকাসুরেন্সে ক্যারিয়ার গড়তে চান তাদের বিশেষ সহায়ক হবে। এ ছাড়া বইতে বিশেষ কিছু বিষয়ে আলোকপাত করা হয়েছে, যাতে প্রতিযোগিতামূলক বাজারে ব্যাংক ও বিমা কর্মকর্তা উভয়ে নিজ নিজ অবস্থানে পেশাগত সাফল্য দেখাতে পারে। বিজ্ঞপ্তি

বিষয়:

পূবালী ব্যাংক থেকে বিকাশে টাকা আনা-নেওয়ার সেবা চালু

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

দেশের অন্যতম বৃহত্তম বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক পূবালী ব্যাংক পিএলসির সঙ্গে বিকাশের দ্বিমুখী লেনদেন সেবা চালু হলো। ফলে ব্যাংকটির গ্রাহকরা এখন তাৎক্ষণিকভাবে বিকাশ অ্যাপ দিয়ে তাদের অ্যাকাউন্টে খরচ ছাড়াই ‘অ্যাড মানি’ বা টাকা আনতে পারছেন। পাশাপাশি, গ্রাহকরা বিকাশ থেকে পূবালী ব্যাংকে তার নিজের অ্যাকাউন্টে বা অন্য অ্যাকাউন্টেও তাৎক্ষণিক টাকা আনতে বা পাঠাতে পারছেন।

পূবালী ব্যাংকের রয়েছে দেশজুড়ে ৫০৪টি শাখা, ১৯০টি উপশাখা, ১৯টি ইসলামিক ব্যাংকিং উইন্ডো ও ৬৯ লক্ষাধিক গ্রাহক। বিকাশের বৃহত্তম অ্যাড মানি নেটওয়ার্কে পূবালী ব্যাংক যুক্ত হওয়ায় এই নিয়ে দেশের শীর্ষস্থানীয় ৪৫টি বাণিজ্যিক ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট থেকে খুব সহজেই বিকাশ অ্যাকাউন্টে টাকা আনার সুযোগ তৈরি হলো। তেমনি বিকাশ থেকে ১৬টি ব্যাংকের অ্যাকাউন্টে তাৎক্ষণিক টাকা পাঠানোর সুবিধাও আরও বিস্তৃত হলো। এই দ্বিমুখী লেনদেন সেবা পেতে প্রথমে গ্রাহককে বিকাশ অ্যাপের হোমস্ক্রিন থেকে ‘অ্যাড মানি’ অথবা ‘বিকাশ টু ব্যাংক’ আইকনে ট্যাপ করে ‘ব্যাংক অ্যাকাউন্ট’ অপশনে যেতে হবে। এরপর ‘পূবালী ব্যাংক পিএলসি’ নির্বাচন করে ব্যাংক অ্যাকাউন্টের প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে বিকাশ অ্যাকাউন্টের সঙ্গে লিংক করতে হবে। ‘অ্যাড মানি’ বা নিজের অ্যাকাউন্টে ‘বিকাশ টু ব্যাংক’ করার জন্য লিংক স্থাপনের ক্ষেত্রে ব্যাংকে নিবন্ধিত মোবাইল নম্বর ও বিকাশ নম্বর একই হতে হবে। তবে ‘অন্য অ্যাকাউন্ট’-এ ‘বিকাশ টু ব্যাংক’ করতে সরাসরি পূবালী ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নম্বর টাইপ করলেই চলবে।

লিংক স্থাপন হয়ে গেলে একজন গ্রাহক বিকাশ অ্যাপের ‘অ্যাড মানি’র মাধ্যমে পূবালী ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে যেকোনো সময় প্রয়োজন মতো বিকাশ অ্যাকাউন্টে টাকা আনতে পারবেন। আবার ব্যাংকে না গিয়ে পূবালী ব্যাংকের যেকোনো অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠানোসহ ঋণের কিস্তি ইত্যাদি নানাবিধ সেবাও ‘বিকাশ টু ব্যাংক’-এর মাধ্যমে ঘরে বসেই নেওয়া যাবে। লেনদেন সম্পন্ন হওয়ার পর গ্রাহক এসএমেএসের মাধ্যমে নোটিফিকেশন পেয়ে যাবেন। উল্লেখ্য, অ্যাড মানি বা বিকাশ টু ব্যাংক, উভয়ক্ষেত্রেই বাংলাদেশ ব্যাংক নির্ধারিত লিমিট প্রযোজ্য হবে।

অ্যাড মানির মাধ্যমে পূবালী ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে বিকাশে টাকা এনে বিকাশের ৭ কোটি ৫০ লাখ ভেরিফায়েড রেজিস্টার্ড গ্রাহক সেন্ড মানি, মোবাইল রিচার্জ, ইউটিলিটি বিল পরিশোধ, অফলাইন-অনলাইন কেনাকাটার পেমেন্ট, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে অনুদান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বেতন পরিশোধ, ই-টিকেটিং, বিভিন্ন অনলাইন নিবন্ধনের ফি পরিশোধসহ অসংখ্য সেবা খুব সহজেই নিতে পারছেন। পাশাপাশি, বিকাশ থেকে পূবালী ব্যাংকের অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠানোর মাধ্যমে পূবালী ব্যাংকের পাই অ্যাপসের সব সেবা গ্রহণ ও আর্থিক লেনদেনে গ্রাহকদের জন্য আরও স্বাধীনতা ও সক্ষমতা নিয়ে এল এই দ্বিমুখী লেনদেনের সেবা। বিজ্ঞপ্তি

বিষয়:

ব্যাংকার্স ওয়েলফেয়ারের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্‌যাপন

প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্‌যাপন করেছে ব্যাংকারদের সংগঠন ‘ব্যাংকার্স ওয়েলফেয়ার ক্লাব বাংলাদেশ’। সম্প্রতি রাজধানীর দিলকুশায় নিজস্ব অফিসে কেক কেটে সংগঠনটির বর্ষপূর্তি উদ্‌যাপন করা হয়। এ উপলক্ষে সংগঠনের সভাপতি ও মার্কেন্টাইল ব্যাংকের সিএফও ড. তাপস চন্দ্র পালের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
করপোরেট ডেস্ক

প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্‌যাপন করেছে ব্যাংকারদের সংগঠন ‘ব্যাংকার্স ওয়েলফেয়ার ক্লাব বাংলাদেশ’। সম্প্রতি রাজধানীর দিলকুশায় নিজস্ব অফিসে কেক কেটে সংগঠনটির বর্ষপূর্তি উদ্‌যাপন করা হয়। এ উপলক্ষে সংগঠনের সভাপতি ও মার্কেন্টাইল ব্যাংকের সিএফও ড. তাপস চন্দ্র পালের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সাধারণ সম্পাদক লায়ন হামিদুল আলম সখার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন অতিথি, সংগঠনের উপদেষ্টা ও বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক নির্বাহী পরিচালক ড. আবুল কালাম আজাদ, কাজী এনায়েত হোসেন ও বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিচালক খালেদ মাহবুব মোর্শেদ। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন সংগঠনের সহসভাপতি কুদরত এ হায়াত খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. আনোয়ারুল ইসলাম খন্দকার, সদস্য মো. মুকিতুল কবীর, মো. আবদুল হামীদ সোহাগ ও রোজিনা পারভীন। পবিত্র রমজান উপলক্ষে রোজাদার জনসাধারণের মধ্যে ইফতার বিতরণ, বিজয় দিবস উপলক্ষে স্মরণিকা প্রকাশ ও আন্তঃব্যাংক দাবা প্রতিযোগিতা আয়োজন, ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জাতীয় প্রেসক্লাবে আলোচনা সভা, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন পালন ও মহান স্বাধীনতা দিবস পালনসহ ‘ব্যাংকার্স ওয়েলফেয়ার ক্লাব বাংলাদেশের নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা সংগঠনের নেতারা তাদের বক্তব্যে তুলে ধরেন। সামনের দিনেও কল্যাণমুখী কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংকসহ ৬১টি ব্যাংকের সাবেক ও বর্তমান কর্মকর্তাদের মধ্যে সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতি রক্ষায় এ সংগঠন কাজ করে যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন সংগঠনের নেতারা।

বিষয়:

কারিগরদের প্রশিক্ষণ কোর্সের সমাপ্তি ও বাংলাদেশ আনসার ভিডিপি ড্রাইভিং কোর্সের শুভ উদ্বোধন

ছবি: দৈনিক বাংলা
আপডেটেড ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ২১:২২
করপোরেট ডেস্ক

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশন (বিআরটিসি) প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে কর্মরত কারিগরদের মাসব্যাপী ইঞ্জিন, বডি এবং অটো-ইলেক্ট্রিক ও এসি সিস্টেম কোর্সের সমাপনী অনুষ্ঠান এবং অনলাইনে বিআরটিসি (নরসিংদী) বাস ডিপো ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে বাংলাদেশ আনসার ভিডিপি ড্রাইভিং কোর্সের উদ্বোধন করেছেন বিআরটিসির চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম।

প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত ৩০ জন কারিগরদের মাসব্যাপী প্রশিক্ষণ শেষে তাত্ত্বিক ও ব্যবহারিক পরীক্ষা নেওয়া হয়। তাদের মধ্য থেকে প্রথম তিন জনকে পুরষ্কার প্রদানের জন্য মনোনীত করা হয়। প্রথম স্থান অধিকারী জনাব ফয়সাল আহমেদকে (কারিগর-এ, টুঙ্গিপাড়া বাস ডিপো ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্র) চেয়ারম্যান পদক প্রদান করা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে চেয়ারম্যান বলেন, ‘প্রশিক্ষণ হলো কর্মচারীদের সাফল্যের চাবিকাঠি। যার মাধ্যমে কর্মকর্তা-কর্মচারী কার্য সম্পাদন বিষয়ে বাস্তব জ্ঞান, দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারে। প্রশিক্ষণার্থী ও প্রশিক্ষকগণ বিআরটিসির ধারক ও বাহক। আপনাদের নিরলস প্রচেষ্টায় অগ্রগতির ধারাবাহিকতায় এগিয়ে যাওয়া বিআরটিসি যেন পিছিয়ে না যায় সে জন্য আপনাদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ করে তোলা হচ্ছে।’

প্রশিক্ষণার্থী ইকবাল হোসেন বলেন, ‘এই ট্রেনিংয়ের মাধ্যমে আমরা অনেক কিছু শিখছি। অনেক অজানা জিনিস জানতে পেরেছি। প্রশিক্ষণের সুযোগ সৃষ্টি করে দেওয়ায় চেয়ারম্যানের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।’

অন্য এক প্রশিক্ষণার্থী বলেন, ‘আগে বিআরটিসির পরিবেশ খুবই খারাপ ছিলো। প্রশিক্ষণ নেওয়ার মতো কোনো পরিবেশ ছিলো না।’

এসময় তেজগাঁও প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের ইউনিট প্রধান মো. শাহীন আলম, কোর্স পরিচালক জনাব ফাতেমা বেগম (জিএম, আইসিডব্লিউএস ও প্রশিক্ষণ), পরিচালক (প্রশাসন) এসএম কামরুজ্জামান (উপসচিব), পরিচালক (কারিগরি) কর্নেল মোহাম্মদ মোবারক হোসেন মজুমদার, পিএসসি এবং পরিচালক (অর্থ, হিসাব ও অপারেশন) ড. অনুপম সাহা (যুগ্মসচিব) প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রশিক্ষণার্থীদের সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিআরটিসির পরিচালকসহ অন্যান্য উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা।


এনআরবি ব্যাংকের পুঁজি বাজারে লেনেদেন শুরু

প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে অর্থ সংগ্রহ করা এনআরবি ব্যাংক লিমিটেডের লেনদেন শুরু হয়েছে আজ। দেশের দুই প্রধান স্টক এক্সচেঞ্জ, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ ও চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জ -এ ব্যাংক খাতের কোম্পানি হিসেবে এন’ ক্যাটাগরিতে লেনদেন হবে স্থির মূল্য পদ্ধতির ভিত্তিতে আইপিওতে আসা কোম্পানিটির শেয়ার।
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
কর্পোরেট ডেস্ক

আজ ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ ও চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জ -এর নিকুঞ্জ অফিসে এনআরবি ব্যাংকের তালিকাভুক্তি ও শেয়ার ট্রেডিং উদ্বোধন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ-এর ভারপ্রাপ্ত ম্যানেজিং ডিরেক্টর এজিএম সাতিক আহমেদ শাহ, এনআরবি ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মাহতাবুর রহমান, ভাইস চেয়ারম্যানদ্বয় গোলাম কবির ও মোহাম্মদ জামিল ইকবাল, ব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাকির আমিন চোধুরী, ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক মামুন মাহমুদ শাহ, ব্যাংকের পরিচালকবৃন্দ সহ ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ, চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জ এবং এনআরবি ব্যাংক -এর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

সকাল দশটায় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ-এ রীতি অনুযায়ী ঘন্টা বাজিয়ে এনআরবি ব্যাংক-এর শেয়ার লেনেদেন কাযক্রম শুরু হয়। পরবর্তীতে, নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে লিস্টিং এগ্রিমেন্ট এ স্বাক্ষর করেন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ, চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জ ও এনআরবি ব্যাংক লিমিটেডে-এর প্রতিনিধিবৃন্দ।

গত ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ তারিখে এনআরবি ব্যাংক লিমিটেডের আইপিও শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের মধ্যে বরাদ্দ করা হয়। পুঁজি বাজারে বিনিয়োগকারীদের নিকট থেকে ১০০ কোটি টাকার প্রাথমিক গণ প্রস্তাব (আইপিও) আহবানের প্রেক্ষিতে ৩.৬১ গুণ সাড়া পায় এনআরবি ব্যাংক অর্থাৎ ৩৬০.৫৫ কোটি টাকার আবেদন জমা পড়ে। কোম্পানির প্রতিটি শেয়ারের ভিত্তিমূল্য স্থীর মূল্য পদ্ধতিতে দশ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। উল্লেখ্য, দেশে বসবাসকারী বিনিয়োগকারীদের ক্ষেত্রে প্রতি ১০,০০০ টাকার বিপরীতে ২৫৫ টি শেয়ার বরাদ্দ করা হয়েছে এবং প্রবাসী বাংলাদেশি আবেদনকারীদের ক্ষেত্রে যা দাড়িয়েছে ২১০ টি শেয়ার ।

এনআরবি ব্যাংক-এর আইপিও-তে বিনিয়োগকারী, নিয়ন্ত্রক সংস্থা ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে ব্যাংকটি। এনআরবি ব্যাংক-এর প্রতি এই আস্থা ও ভরসা ব্যাংককে আগামী দিনগুলোতে সামনে এগিয়ে যেতে অনুপ্রাণিত করবে।


ওয়ার্ল্ড মিলিটারি আর্চারি চ্যাম্পিয়নশিপ উদ্বোধন

আপডেটেড ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ১৪:৫৭
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

তৃতীয় সিআইএসএম ওয়ার্ল্ড মিলিটারি আর্চারি চ্যাম্পিয়নশিপ বাংলাদেশ-২০২৪ প্রতিযোগিতা গতকাল সোমবার উদ্বোধন করা হয়। অনুষ্ঠানে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের পিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লেফটেন্যান্ট জেনারেল মিজানুর রহমান শামীম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এ বছর বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হচ্ছে প্রতিযোগিতাটি; যা ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সার্বিক তত্ত্বাবধানে বাংলাদেশ আর্মি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বাংলাদেশসহ ১২টি দেশের মোট ১০৭ জন পুরুষ, মহিলা ও প্যারা আরচ্যার অংশগ্রহণ করবেন। প্রতিযোগিতায় মোট ১৪টি স্বর্ণ, ১৪টি রৌপ্য এবং ২৬টি ব্রোঞ্জ মেডেল প্রদান করা হবে। এ ছাড়া সম্পূর্ণ প্রতিযোগিতার ওপর ভিত্তি করে একটি দলকে ফেয়ার প্লে ট্রফি প্রদান করা হবে। প্রতিযোগিতাটি বাংলাদেশ সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীর প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় আয়োজন করা হচ্ছে এবং টেকনিক্যাল পার্টনার হিসেবে রয়েছে বাংলাদেশ আরচ্যারি ফেডারেশন। বিজ্ঞপ্তি


banner close