রোববার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

ইসলামী ব্যাংক ফাউন্ডেশন ও আইসিএমএবির মধ্যে করপোরেট চুক্তি সই

দৈনিক বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত
দৈনিক বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ১২:১৬

ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালসমূহে ছাড়কৃত মূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদানের লক্ষ্যে ইসলামী ব্যাংক ফাউন্ডেশন (আইবিএফ) ও ইনস্টিটিউট অব কস্ট অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট অ্যাকাউন্টিং অব বাংলাদেশ (আইসিএমএবি)-এর মধ্যে একটি করপোরেট চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। এ চুক্তির ফলে আইসিএমএবির সব ফেলো মেম্বার ও তাদের পরিবারবর্গ এবং রেজিস্টার্ড শিক্ষার্থীগণ ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালসমূহে বিশেষ ডিসকাউন্ট মূল্যে চিকিৎসাসেবা গ্রহণ করতে পারবেন। সম্প্রতি ইসলামী ব্যাংক ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ আলী ও আইসিএমএবির নির্বাহী পরিচালক ড. মোহাম্মদ জাকারিয়া মাসুদ এ-সংক্রান্ত চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

ইসলামী ব্যাংক ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ও ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ-এর পরিচালক কাজী শহীদুল আলম প্রধান অতিথি হিসেবে এ সময় উপস্থিত ছিলেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইবিএফের ভাইস চেয়ারম্যান সালেহ জহুর, আইবিএফের ইসি চেয়ারম্যান তানভীর আহমদ, ইসলামী ব্যাংকের পরিচালক কামরুল হাসান, সৈয়দ আবু আসাদ, আবু সাঈদ মুহাম্মদ কাশেম এবং আইসিএমএবির প্রেসিডেন্ট সেলিম উদ্দিন প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি


বগুড়ায় জনতা ব্যাংকের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

পবিত্র রমজান ও ঈদুল ফিতর উপলক্ষে গত রোববার বগুড়ার গাবতলী এলাকায় সমাজের সুবিধাবঞ্চিত অসহায়, দরিদ্র মানুষের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছে জনতা ব্যাংক পিএলসি। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

পবিত্র রমজান ও ঈদুল ফিতর উপলক্ষে গত রোববার বগুড়ার গাবতলী এলাকায় সমাজের সুবিধা বঞ্চিত অসহায়, দরিদ্র মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছে জনতা ব্যাংক পিএলসি। ব্যাংকের পরিচালক মো. আব্দুল মজিদ পাশার সভাপতিত্বে স্থানীয় সংসদ সদস‌্য অধ‌্যাপক ডা. মোস্তফা আলম নান্নু প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে দুস্থদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন। ব‌্যাংকের রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের জি এম অরুণ প্রকাশ বিশ্বাস, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুসরাত জাহান বন‌্যা, বিশিষ্ট ব‌্যক্তি ও ঊর্ধ্বতন নির্বাহীরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।


ঈদে ‘আইপিডিসি আমাদের গান’ নিয়ে আসছে চঞ্চল চৌধুরী  

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

পবিত্র ঈদুল ফিতরের উৎসবের আবহের মাঝে ‘আইপিডিসি আমাদের গান’ ইউটিউব চ্যানেল থেকে প্রকাশিত হতে যাচ্ছে জনপ্রিয় একটি গানের নতুন পরিবেশনা। বরেণ্য সংগীতজ্ঞ গাজী মাজহারুল আনোয়ার রচিত গানটি যৌথভাবে পরিবেশন করেছেন কণ্ঠশিল্পী মিফতাহ জামান এবং দেশের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী, যিনি একাধারে সঙ্গীতজগতেও প্রশংসনীয় পদচারণা রেখেছেন। ‘আইপিডিসি আমাদের গান’-এর চলমান ৫ম সিজনটি উৎসর্গ করা হয়েছে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সম্মাননা স্বাধীনতা পুরস্কার এবং একুশে পদকপ্রাপ্ত খ্যাতিমান সংগীতজ্ঞ গাজী মাজহারুল আনোয়ার-কে যিনি এদেশের শিল্প-সংস্কৃতির ইতিহাসে এক অমর নাম। সাতবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এই গুণী সঙ্গীতজ্ঞের সৃষ্ট বিশ হাজারেরও বেশি গানের আবেদন আজও বাংলাদেশের মানুষের কাছে বিরাজমান। সেই গানগুলোকেই নতুনভাবে শ্রোতাদের সামনে উপস্থাপন করতে ‘আইপিডিসি আমাদের গান’-এর ৫ম সিজনের আয়োজন। বিজ্ঞপ্তি


হামদর্দের নতুন নিয়োগপ্রাপ্তদের প্রশিক্ষণ

হামদর্দ ল্যাবরেটরিজ (ওয়াক্ফ) বাংলাদেশের মেডিকেল ও বিক্রয় প্রতিনিধিদের প্রাথমিক প্রশিক্ষণ সমাপনী ও নিয়োগপত্র বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার সকালে রাজধানীর বাংলামোটরে হামদর্দের প্রধান কার্যালয়ের মিলনায়তনে এটি অনুষ্ঠিত হয়। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

হামদর্দ ল্যাবরেটরিজ (ওয়াক্ফ) বাংলাদেশের মেডিকেল ও বিক্রয় প্রতিনিধিদের প্রাথমিক প্রশিক্ষণ সমাপনী ও নিয়োগপত্র বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার সকালে রাজধানীর বাংলামোটরে হামদর্দের প্রধান কার্যালয়ের মিলনায়তনে এটি অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন হামদর্দ ল্যাবরেটরিজ (ওয়াক্ফ) বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও চিফ মোতাওয়াল্লি, হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা ড. হাকীম মো. ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া। এ সময় ড. হাকীম মো. ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া বলেন, ‘প্রকৃত অর্থেই হামদর্দ ব্যথার সাথী হিসেবে কাজ করছে। সমগ্র বাংলাদেশের মানুষের কাছে হামদর্দ এখন প্রিয় প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। আন্তরিকতা থাকলে অবশ্যই এই প্রতিষ্ঠানে সফল হওয়া সম্ভব। কাজ কখনো কাউকে খালি হাতে ফেরায় না। সুতরাং হামদর্দের শিক্ষা ও স্বাস্থ্যসেবাকে ছড়িয়ে দিতে নিরন্তরভাবে প্রচেষ্টা চালাতে হবে।’

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাকীম মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন রাসেল। অনুপ্রেরণামূলক বক্তব্য দেন পরিচালক তথ্য ও গণসংযোগ আমিরুল মোমেনীন মানিক, কোম্পানি সেক্রেটারি ও পরিচালক প্রশাসন এবং এইচআরডি (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো. আব্দুল মজিদ। সভাপতিত্ব করেন পরিচালক বিপণন মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম। উপস্থিত ছিলেন উপ-পরিচালক বিপণন ডা. আবুল তৈমুর চৌধুরী, উপ-পরিচালক বিক্রয় মোখলেছুর রহমান মারুফ। অনুষ্ঠানে প্রশিক্ষণ গ্রহণকারীদের হাতে নিয়োগপত্র তুলে দেওয়া হয়। দোয়া ও মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয় অনুষ্ঠান। বিজ্ঞপ্তি


বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশন প্রতিষ্ঠা দিবস উদযাপন

কমিশন ভবনে স্থাপিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন ও কমিশন চত্বরে বেলুন উড্ডয়ন। ছবি : সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

‘বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশন প্রতিষ্ঠা দিবস’-২০২৪ উপলক্ষে গতকাল সোমবার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল ও মৃত্যুঞ্জয়ী স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে কমিশন চত্বরে বেলুন উড্ডয়ন, ব্যানার, ফেস্টুন প্রদর্শন করা হয়। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনের চেয়ারম্যান, সদস্যবৃন্দ ও কমিশন সচিবালয়ের সচিব মহোদয় উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে কমিশন সচিবালয়ের সব কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা অংশগ্রহণ করেন। বিজ্ঞপ্তি


বর্ণিল সাজে সেজেছে সাগরকন্যা কুয়াকাটা

আপডেটেড ৮ এপ্রিল, ২০২৪ ১৬:১৪
কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি

ঈদুল ফিতর ও পহেলা বৈশাখের ছুটিকে কেন্দ্র করে পর্যটকদের পদচারণায় মুখরিত হবে সূর্যোদয়-সূর্যাস্তের বেলাভূমি ‘সাগরকন্যা’ কুয়াকাটায়। পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পর ব্যাপকভাবে পর্যটক দেখা গেছে কুয়াকাটায়। তাই এবারের ঈদে ব্যবসা-বাণিজ্য গতি পাবে বলে মনে করছেন ব্যবসায়ীরা। এরই মধ্যে ৬০ শতাংশ হোটেল মোটেল কক্ষ বুকিং হয়েছে বলে হোটেল-মোটেল ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। পর্যটকদের সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা ও সেবা দিতে প্রস্তুতি নিয়েছে প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও পৌর কর্তৃপক্ষ।

খুশির ছোঁয়া লেগেছে স্থানীয় পর্যটন ব্যবসায়ীদের মধ্যে, ইতোমধ্যে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সাজিয়েছেন আবাসিক হোটেল, রেস্তোরাঁ। বেচাকেনার জন্য তৈরি রয়েছে রাখাইন মহিলা মার্কেট, ঝিনুক মার্কেট, বার্মিজ আচার, কাঁকড়া ফ্রাই, পর্যটকদের ছবি তোলার জন্য প্রস্তুত ক্যামেরাম্যান। চটপটি-ফুচকার দোকানে দেখা গেছে মানুষের আনাগোনা। কুয়াকাটা দর্শনীয় স্থানগুলো ভ্রমণ করাতে প্রস্তুত , মোটরসাইকেল ও অটোরিকশা চালক, কুয়াকাটা থেকে সমুদ্রপথে বিভিন্ন দ্বীপ ও বনাঞ্চল ভ্রমণ করানোর জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে ট্যুরিস্ট বোট, স্পিড বোট ও ওয়াটার বাইক ।

কুয়াকাটা সৈকতের জিরো পয়েন্ট থেকে পূর্ব ও পশ্চিমে মনোমুগ্ধকর ১৮ কিলোমিটার বেলাভূমি রয়েছে। পর্যটকরা এখানকার ট্যুরিজম পার্ক, জাতীয় উদ্যান (ইকোপার্ক), শ্রীমঙ্গল বৌদ্ধ বিহার, সীমা বৌদ্ধ বিহার ঘুরে দেখেন। এ ছাড়া কুয়াকাটার পশ্চিমে সমুদ্র পথে ফাতরার বন, সোনাকাটা ফকিরহাট (ইকোপার্ক), লাল কাঁকড়ার চর, লেম্বুর বন, শুটকি পল্লি ও ভ্রমণপিপাসুদের আগ্রহের কেন্দ্রে থাকে।

আচার বিক্রেতা মো. জহির রায়হান বলেন, নানা ধরনের দেশি বিদেশি আচার ও চকলেট উঠেয়েছি দোকানে। টানা ছুটিতে কুয়াকাটায় হাজারো পর্যটকের আনাগোনা থাকবে। তাদের কাছে আমরা বাহারী স্বাদের আচার ও চকলেট বিক্রি করব। দাম ও মানের বিষয়ে আমরা পর্যটকদের কথা মাথায় রাখি বরাবরই।

অভিজাত আবাসিক সিকদার রিসোর্ট এন্ড ভিলার্স এবং ওসান ভিউ হোটেল এন্ড কনভেনশন এসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার মো. আল-আমীন খান বলেন, ‘আমাদের এখন পর্যন্ত ৫০ শতাংশ অগ্রীম বুকিং সম্পন্ন হয়েছে। প্রতিক্ষণই পর্যটকরা ফোনে খোঁজ-খবর নিচ্ছে। আশাবাদী শতভাগ রুম বুক হয়ে যাবে। আমরা পর্যটকদের জন্য স্পেশাল ডিসকাউন্ট রেখেছি।’

হোটেল মোটেল ওনার্স অসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোতালেব শরিফ বলেন, ‘আমরা আশাবাদী পবিত্র ঈদুল ফিতর ও পহেলা বৈশাখের ছুটিকে কেন্দ্র করে কুয়াকাটায় অনেক ট্যুরিস্টের আগমন হবে। আবার আগের মত প্রাণ খুঁজে পাবে কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত, হাসি ফুটবে সকল ব্যবসায়ীদের মনে। হোটেল মোটেল গুলোতে ৬০ শতাংশের মত আগাম বুকিং হয়েছে।’

কুয়াকাটা বিচ ম্যানেজমেন্ট কমিটির সদস্য সচিব ও কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রবিউল ইসলাম বলেন, ‘ঈদ পরবর্তী সময়ে কুয়াকাটায় পর্যটকদের ভিড় বাড়বে এমন ধারণা মাথায় রেখেই আমরা প্রস্তুতি সভা করেছি। ভ্রাম্যমাণ আদালতের একটি দল সার্বক্ষণিক মাঠে থাকবে। চিকিৎসক দল, ফায়ার সাভির্স অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের সদসরাও তৈরি রয়েছে।

টুরিস্ট পুলিশ কুয়াকাটা রিজিয়নের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘কুয়াকাটায় ঘুরতে আসা সব পর্যটকের সেবা দেওয়া ও আইনি সহায়তা দেওয়া আমাদের কর্তব্য। পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে কুয়াকাটায় অনেক পর্যটক আসবে, তাই আমরা অনেক নিরাপত্তাব্যবস্থা করেছি। সৈকতের বিভিন্ন পয়েন্টে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। সাদা পোশাকে আমাদের সদস্যরা টহলে থাকবেন। আশা করছি আমরা পর্যটকদের শতভাগ নিরাপত্তা দিতে পারব।’

কুয়াকাটা পৌরসভার মেয়র মো. আনোয়ার হাওলাদার জানান, এবারের ঈদুল ফিতরের লম্বা ছুটিতে অনেক বেশি পর্যটক আসবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তাই নিরাপত্তাসহ সবকিছু বিবেচনা করেই এবার ঈদের ছুটিতে আগত পর্যটকদের সেবা দিতে প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।


গণমাধ্যম ব্যক্তিত্বদের সম্মানে বিনা তেলে তৈরি সাওল ইফতার

শত শত বছরের তেলময় খাদ্যাভ্যাসের বিপরীতে বিনা তেলে তৈরি স্বাস্থ্যসম্মত, নিরাপদ ও সুস্বাদু ‘সাওল ইফতার’ আয়োজন করেছে সাওল হার্ট সেন্টার, বাংলাদেশ। গত বুধবার রাজধানীর ইস্কাটন গার্ডেনে ‘কাজল মিলনায়তনে’ গণমাধ্যম ব্যক্তিত্বদের সম্মানে সাওলের ‘ওয়েল ফ্রি কিচেন’-এর তৈরি ব্যতিক্রমী, অভিনব ও জনসচেতনতামূলক এ ইফতার। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

শত শত বছরের তেলময় খাদ্যাভ্যাসের বিপরীতে বিনা তেলে তৈরি স্বাস্থ্যসম্মত, নিরাপদ ও সুস্বাদু ‘সাওল ইফতার’ আয়োজন করেছে সাওল হার্ট সেন্টার, বাংলাদেশ। গত বুধবার রাজধানীর ইস্কাটন গার্ডেনে ‘কাজল মিলনায়তনে’ গণমাধ্যম ব্যক্তিত্বদের সম্মানে সাওলের ‘ওয়েল ফ্রি কিচেন’-এর তৈরি ব্যতিক্রমী, অভিনব ও জনসচেতনতামূলক এ ইফতার। মানবদেহের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর ভোজ্যতেলের সবচেয়ে বেশি ব্যবহার হয় সংযম সাধনের মাস রমজানে। কাটাছেঁড়া-রক্তপাত ছাড়া বিনা রিং, বিনা অপারেশনে হৃদরোগ চিকিৎসার পথিকৃৎ সাওল হার্ট সেন্টার, বাংলাদেশ ‘জনস্বাস্থ্য আন্দোলন’-এর অংশ হিসেবে রমজানে বিনা তেলে ইফতার তৈরি করে থাকে। হৃদরোগ সৃষ্টির ১৫টি কারণের মধ্যে অন্যতম হলো খাদ্যাভ্যাস ও লাইফস্টাইল। এর মধ্যে ভোজ্যতেল মহাঘাতক। খাবারে ভোজ্যতেল পরিহার করতে পারলে হৃদরোগের, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ অতিওজন, গ্যাস্ট্রিকসহ অনেক রোগের বিরাট ঝুঁকি দূর হয়ে যায়। ২০০৮ থেকে বিনা তেলে রান্না আর ২০০৯ সাল থেকে রমজানে সাওল হার্ট সেন্টার, বাংলাদেশ বিনা তেলে তৈরি স্বাস্থ্যসম্মত, নিরাপদ ও সুস্বাদু ‘সাওল ইফতার’ সরবরাহ করছে। সাওল ইফতার অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ম হামিদ, সিনিয়র সাংবাদিক শামসুদ্দিন পেয়ারা, কালের কণ্ঠের সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন, সমাজতাত্ত্বিক সলিমুল্লাহ খান, দৈনিক প্রথম আলোর নির্বাহী সম্পাদক সাজ্জাদ শরিফ, দৈনিক প্রথম আলোর ব্যবস্থাপনা সম্পাদক আনিসুল হক, সমকালের উপদেষ্টা সম্পাদক আবু সাঈদ খান, নিউএজের সম্পাদক নুরুল কবির, দেশ রূপান্তরের সম্পাদক মোস্তফার মামুন, কথাসাহিত্যিক সুমন্ত আসলাম, ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের প্রধান বার্তা সম্পাদক আশিস সৈকত, মাছরাঙা টেলিভিশনের বার্তা প্রধান রেজওয়ানুল হক রাজা, কবি ও লেখক ফরিদুর রহমান, ইনসাইডার সৈয়দ বোরহান কবির, কথাসাহিত্যিক আন্দালিব রাশদী, সাংবাদিক মুন্নি সাহা, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি সাজ্জাদ আলম খান তপু, সাংবাদিক রুমি নোমান, মানব জমিনের প্রধান বার্তা সম্পাদক কাজল ঘোষ, কথাসাহিত্যিক ঝর্না রহমান, কবি কামরুল হাসান, কথাসাহিত্যিক সালাহউদ্দিন শুভ, লেখক এহসান মাহমুদ, কবি জাহানারা পারভিন। সাবেক সংসদ সদস্য নুরুল ইসলাম মনি, সাবেক সিনিয়র সচিব আবু আলম শহিদ খান, সাবেক স্বাস্থ্য সচিব ও লেখক হোসেন আবদুল মান্নান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এ বি এম খুরশীদ আলম, আইইডিসিআরের পরামর্শক, কাজী মিনা আহমেদ, জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. মুশতাক হোসেন, জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞডা. আবু জামিল ফয়সাল, সংস্কৃতি বিকাশ কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও চিকিৎসাবিজ্ঞানী ডা. লিয়াকত আলী, ডা. আমিনুল হাসান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাস্থ্য অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. আবদুল হামিদ প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি


ইউআইটিএস ল’ ক্লাবের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা

ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্সেসের (ইউআইটিএস) আইন বিভাগের বিভাগীয় মুট কোর্ট রুমে গত বুধবার আইন অনুষদের ডিন অ্যাডভোকেট মো. আব্দুল মান্নান ভূঁইয়া, বিভাগীয়প্রধান রেহনুমা চৌধুরী, বিভাগীয় শিক্ষকমণ্ডলী ও শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে ঈদ পূর্ব মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্সেসের (ইউআইটিএস) আইন বিভাগের বিভাগীয় মুট কোর্ট রুমে গত বুধবার আইন অনুষদের ডিন অ্যাডভোকেট মো. আব্দুল মান্নান ভূঁইয়া, বিভাগীয়প্রধান রেহনুমা চৌধুরী, বিভাগীয় শিক্ষকমণ্ডলী ও শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে ঈদ পূর্ব মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। সভায় আইন অনুষদের ডিন অ্যাডভোকেট মো. আব্দুল মান্নান ভূঁইয়া সবাইকে নিরাপদে ঈদ পালন করার এবং কোনো প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা যেন না ঘটে তার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানান, সেই সাথে সবাইকে ঈদের অগ্রিম শুভেচ্ছা ও ঈদ মোবারক জানান। পরে মতবিনিময় সভায় ইউআইটিএস ল’ ক্লাবের পূর্ণাঙ্গ কমিটির নাম ঘোষণা করা হয়। কমিটিতে সভাপতি নির্বাচিত হন শার্মিলা আঞ্জুম ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন রিয়াদ মিয়া। ক্লাবটির অ্যাডভাইজর হিসেবে রয়েছেন আইন বিভাগের শিক্ষক মেহেদী হাসান সরকার। বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান রেহনুমা চৌধুরী ইউআইটিএস ল’ ক্লাবের সব সদস্যকে অভিনন্দন জানান এবং ক্লাবের সর্বাত্মক সফলতা কামনা করেন। বিজ্ঞপ্তি


ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিতে কুইজ প্রতিযোগিতা

২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস এবং জাতীয় দিবস পালন উপলক্ষে ডিজিটাল মাধ্যমে কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি। এই কুইজ প্রতিযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় দুই সহস্রাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থী-কর্মী অংশগ্রহণ করেন। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

একাধিক কর্মসূচির মাধ্যমে ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে প্রাণ উৎসর্গকারী বীর শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি। ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস এবং জাতীয় দিবস পালন উপলক্ষে কুইজ প্রতিযোগিতা এবং ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস পালনে ‘রিমেম্বারিং দ্য ১৯৭১ জেনোসাইড’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এসব আয়োজনের মাধ্যমে বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধ এবং স্বাধীনতার জন্য প্রাণ উৎসর্গকারী বীর শহীদদের সম্পর্কে আরও গভীরভাবে জানতে পেরেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। গত বুধবার কুইজ প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়েছে।

২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস এবং জাতীয় দিবস পালন উপলক্ষে ডিজিটাল মাধ্যমে কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি। এই কুইজ প্রতিযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় দুই সহস্রাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থী-কর্মী অংশগ্রহণ করেন। কুইজ প্রতিযোগিতার বৈচিত্র্যময় এবং চিত্তাকর্ষক বিভিন্ন প্রশ্ন প্রতিযোগীদের বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধকে আরও ভালোভাবে বুঝতে সহায়তা করেছে। শিক্ষার্থীরা যেন বাংলাদেশের দীর্ঘ ৯ মাসব্যাপী রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে আরও গভীরভাবে জানতে সেই সঙ্গে দেশের ইতিহাস এবং বীর শহীদদের আত্মত্যাগ উপলব্ধি করতে পারে সেলক্ষ্যেই এই কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

এ ছাড়া ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস পালনে ‘রিমেম্বারিং দ্য ১৯৭১ জেনোসাইড’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ডিপার্টমেন্ট অব ইংলিশ অ্যান্ড হিউম্যানিটিজের প্রফেসর ড. নাহিদ আফরোজ কবির তার আলোচনায় ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর নির্মম হত্যাকাণ্ড সম্পর্কে আলোকপাত করেন। পাকিস্তানি বাহিনীর নৃশৃংশতার বিভিন্ন চিত্র তুলে ধরে তিনি বলেন বাংলাদেশে গণহত্যার জন্য বাংলাদেশের জনগণের কাছে পাকিস্তানের ক্ষমা চাওয়া উচিত। গত বুধবার মহান স্বাধীনতা দিবস এবং জাতীয় দিবস উদ্‌যাপন উপলক্ষে ‘প্রিয় স্বাধীনতা’ শীর্ষক কুইজ প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করেন ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির ভারপ্রাপ্ত ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর সৈয়দ মাহফুজুল আজিজ। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সবচেয়ে কম সময়ে সব প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিয়ে কুইজ প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ডিপার্টমেন্ট অব কম্পিউটার সাইন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের শিক্ষার্থী আসিফ ইকবাল খান নুহাশ, শামিউর রহমান এবং মো. জাওয়াদুল হক, নিউ ক্যাম্পাসের সাইট ইঞ্জিনিয়ার মো. মাহতাব উদ্দিন, আইটি সিস্টেমস অফিসের অ্যাসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার আব্দুল মালেক এবং ডিপার্টমেন্ট অব কম্পিউটার সাইন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের রিসার্চ অ্যাসিস্ট্যান্ট মো. ইশমাম তাসিন।

কুইজ প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রফেসর সৈয়দ মাহফুজুল আজিজ বলেন, ‘অনেক রক্ত এবং ত্যাগের বিনিময়ে আমরা আমাদের স্বাধীনতা লাভ করেছি। মহান মুক্তিযুদ্ধে প্রাণ উৎসর্গকারীদের এই রক্ত বৃথা যেতে দেওয়া যাবে না। যেকোনো মূল্যে আমাদের স্বাধীনতার চেতনাকে সমুন্নত রেখে একটি সুখী-সমৃদ্ধ জাতি আমাদের গড়তে হবে। আমাদের শিক্ষার্থীসহ সবাইকে এই দায়িত্বটা নিতে হবে।’ বিজ্ঞপ্তি


রোজাদারদের মধ্যে ইসলামী ব্যাংকের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ পিএলসির উদ্যোগে ঢাকায় রোজাদারদের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত, এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে ৪ এপ্রিল ২০২৪, বৃহস্পতিবার রাজধানীর মহাখালী আমতলী ঈদগাহ মাঠে এ খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন। ব্যাংকের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর ও সিইও মুহাম্মদ মুনিরুল মওলার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন ব্যাংকের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ঢাকা সেন্ট্রাল জোনপ্রধান মাহমুদুর রহমান। এ সময় সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও গুলশান সার্কেল-১ শাখাপ্রধান এ এস এম নাসির উদ্দিনসহ স্থানীয় বিশিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। বিজ্ঞপ্তি


স্মার্টফোন কিনে লাখ টাকা পুরস্কার জিতলেন রিয়েলমি গ্রাহক

প্রি-বুক রিয়েলমি সি৬৭ ক্যাম্পেইনে অংশ নেওয়া ভাগ্যবান একজন বিজয়ীকে এক লাখ টাকা পুরস্কার প্রদান করেছে তরুণদের জনপ্রিয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড রিয়েলমি। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

প্রি-বুক রিয়েলমি সি৬৭ ক্যাম্পেইনে অংশ নেওয়া ভাগ্যবান একজন বিজয়ীকে এক লাখ টাকা পুরস্কার প্রদান করেছে তরুণদের জনপ্রিয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড রিয়েলমি। রিয়েলমি স্মার্টফোন কিনে একটি আকর্ষণীয় লটারির মাধ্যমে এক লাখ টাকার এ অসাধারণ সুযোগ জিতে নিয়েছেন শরীফ আহমেদ। রিয়েলমি বাংলাদেশের ব্র্যান্ডিং ডিরেক্টর ড্যারেন ঝ্যাং সম্প্রতি বিজয়ীর হাতে এক লাখ টাকার চেক তুলে দেন।

এ ছাড়া রিয়েলমি সি৬৭ কিনে আরও ১০ জন ভাগ্যবান ক্রেতা লটারির মাধ্যমে নির্বাচিত হয়ে পেয়েছেন বোগো (একটি কিনলে একটি ফ্রি) ডিলের পুরস্কার। বাংলাদেশের স্মার্টফোনের বাজারে রিয়েলমি সি৬৭ ছাড়ার সময়, ব্র্যান্ডটি তাদের গ্রাহকদের জন্য অসাধারণ এক সুযোগ নিয়ে হাজির হয়। স্মার্টফোন সিরিজটি বাজারে আসার সঙ্গে সঙ্গে রিয়েলমির অনুমোদিত আউটলেটগুলোতে ডিভাইসটির প্রি-বুকিং দিলে, লটারির মাধ্যমে বিজয়ী স্মার্টফোনপ্রেমী গ্রাহকদের এক লাখ টাকা এবং একটি কিনলে একটি ফ্রি অফারের ঘোষণা দেয় জনপ্রিয় এই স্মার্টফোন ব্র্যান্ডটি।

রিয়েলমি বাংলাদেশের ব্র্যান্ডিং ডিরেক্টর ড্যারেন ঝ্যাং বলেন, ‘অনন্য স্থায়িত্ব ও গুণগতমান ধরে রেখে একটি যথার্থ টেক ব্র্যান্ড হতে চায় রিয়েলমি। তার একটি উদাহরণ হলো রিয়েলমি সি৬৭। এই ক্যাম্পেইনে অংশ নেওয়ায়, আমি এক লাখ টাকা বিজয়ীকে এবং ১০ জন স্মার্টফোন বিজয়ীকে আন্তরিক অভিনন্দন জানাই।’

এক লাখ টাকার ভাগ্যবান বিজয়ী শরীফ আহমেদ বলেন, ‘একটি ফোন কিনে এক লাখ টাকার পুরস্কার জিতে যাব, তা আমি স্বপ্নেও ভাবিনি। এতে আমি খুবই আনন্দিত। রিয়েলমিকে আমার অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। রিয়েলমি ও এর স্মার্টফোন ডিভাইসের সঙ্গে আমার এই অভিজ্ঞতা সব সময়ই অসাধারণ ছিল!’

সি-সিরিজের রিয়েলমি সি৬৭ হলো সেগমেন্টের প্রথম স্মার্টফোন ডিভাইস, যাতে রয়েছে ১০৮ মেগাপিক্সেলের কোয়ালিটি ক্যামেরা। এটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ শট নেওয়ার ক্ষেত্রে স্মার্টফোন গ্রাহককে দেয় দারুণ ফটোগ্রাফিক সক্ষমতা। আনুষ্ঠানিকভাবে তোলা স্যাম্পল ছবিগুলোতে দেখা গেছে, প্রতিযোগী ব্র্যান্ডগুলোর ৫০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার তুলনায় এই ডিভাইসের ১০৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা তুলনামূলক অনেক স্পষ্ট ছবি তুলতে সক্ষম। বিজ্ঞপ্তি


সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের কেএফসির ঈদ উপহার

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

মহিমান্বিত রমজানে মজাদার ইফতার আয়োজন ও ঈদের নতুন জামা উপহার দিয়ে ৩০০ সুবিধাবঞ্চিত শিশুর মুখে হাসি ফুটিয়েছে কেএফসি ‘ঈদি ফর অ্যাঞ্জেলস’। যেন ওরাও সবার সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে পারে।

এই আয়োজন সম্পর্কে ট্রান্সকম ফুড লিমিটেড-এর সিইও, অমিত দেব থাপা বলেন, ‘ঈদি ফর অ্যাঞ্জেলস ছিল মানুষের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশের আমাদের একটি উপায়। সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মধ্যে ঈদের খুশি ছড়িয়ে দিতে পেরে আমরা অনেক গর্বিত, কারণ আমরা বিশ্বাস করি আনন্দ, হাসিমুখ সবার সঙ্গে ভাগ করে নেওয়া সবচেয়ে সুন্দর বিষয়। বিশেষ করে পবিত্র রমজানে মাসে, সবার জন্য ভালোবাসা ও আনন্দে পরিপূর্ণ একটি সুন্দর পৃথিবী গড়ে তুলতে এটি আমাদের একটি ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা ছিল।’

কেএফসি স্বপ্নের পাঠশালা সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মৌলিক শিক্ষা, বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ, স্বাস্থ্যবিধি এবং প্রতিভা বিকাশ করতে একটি বিস্তৃত পাঠ্যক্রমের মাধ্যমে ওদের একটি সুন্দর ভবিষ্যৎ গড়ে তুলতে সাহায্য করার জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। একটি সমৃদ্ধিশীল সমাজ গড়ে তুলতে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের দক্ষভাবে গড়ে তোলাই এই আয়োজনের মূল লক্ষ্য। বিজ্ঞপ্তি


সোয়াককে মার্কেন্টাইল ব্যাংকের অনুদান

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

মার্কেন্টাইল ব্যাংক সোসাইটি ফর দ্য ওয়েলফেয়ার অব অটিস্টিক চিলড্রেন (সোয়াক)-কে ৫ লাখ টাকা অনুদান দিয়েছে। গত বৃহস্পতিবার সোয়াক কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ব্যাংকের কোম্পানি সচিব আবু আসগার জি. হারুনী সোয়াকের চেয়ারপারসন সুবর্ণা চাকমার কাছে অনুদানের চেক হস্তান্তর করেন। এ সময় মার্কেন্টাইল ব্যাংকের এসভিপি প্রধান শামীম আহমদ, করপোরেট অ্যাফেয়ার্স ডিভিশনের প্রধান মুকিতুল কবিরসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন নির্বাহী ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। মার্কেন্টাইল ব্যাংক প্রতিবছর সামাজিক দায়বদ্ধতা কর্মসূচির অংশ হিসেবে সোয়াককে অর্থ সহায়তা দিয়ে আসছে।


ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে ১০ লাখ টাকা পেলেন রাজশাহীর মাদ্রাসাশিক্ষক

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

ওয়ালটনের দেশব্যাপী চলমান ‘ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-২০’-এ ফ্রিজ কিনে এবার মিলিয়নিয়ার হয়েছেন রাজশাহীর মাদ্রাসাশিক্ষক আমিনুল ইসলাম। পেলেন নগদ ১০ লাখ টাকা। এই নিয়ে ওয়ালটন ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে সারা দেশে মিলিয়নিয়ার হয়েছেন ৩৩ জন গ্রাহক। গত বৃহস্পতিবার রাজশাহীর তানোর উপজেলার থানার মোড় এলাকায় তানোর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে মিলিয়নিয়ার আমিনুল ইসলামের হাতে ১০ লাখ টাকার চেক তুলে দেন জনপ্রিয় চিত্রনায়ক আমিন খান এবং বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় খল-অভিনেতা মিশা সওদাগর।

মাদ্রাসা শিক্ষক আমিনুল ইসলামের গ্রামের বাড়ি নওগাঁর মান্দা উপজেলার খাগড়ায়। পরিবারে রয়েছেন স্ত্রী, বাবা-মা ও ভাইসহ ৫ জন সদস্য। তিনি রাজশাহী কলেজ থেকে গণিতে স্নাতকোত্তর শেষ করে বর্তমানে শহরের আমচত্বর এলাকার আল-মারকাযুল ইসলামি আসসালাফি মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করছেন।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন তানোর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুর রহিম, ওয়ালটন ডিস্ট্রিবিউটর নেটওয়ার্কের ডিভিশনাল সেলস ম্যানেজার মিজানুর রহমান, রিজিওনাল সেলস ম্যানেজার আসাদ্জ্জুামান এবং ওয়ালটনের ডিস্ট্রিবিউটর শোরুম ‘তছলিম ইলেকট্রনিক্স’-এর স্বত্বাধিকারী শহিদুল ইসলাম প্রমুখ।


banner close