রোববার, ২৩ জুন ২০২৪

বেঙ্গল ইসলামি লাইফ ইন্স্যুরেন্সের স্বাস্থ্যবিমা দাবির চেক হস্তান্তর

বেঙ্গল ইসলামি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের আড়াইহাজার সার্ভিস পয়েন্ট অফিসের বিমাগ্রাহক রুবিনা বেগমের কাছে সম্প্রতি স্বাস্থ্যবিমা দাবির চেক হস্তান্তর করা হয়। ছবি: সংগৃহীত
দৈনিক বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত
দৈনিক বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত : ২২ মে, ২০২৪ ১২:৩০

বেঙ্গল ইসলামি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের আড়াইহাজার সার্ভিস পয়েন্ট অফিসের বিমাগ্রাহক রুবিনা বেগমের কাছে সম্প্রতি স্বাস্থ্যবিমা দাবির চেক হস্তান্তর করা হয়। স্বাস্থ্যবিমা দাবির চেক হস্তান্তর করেন কোম্পানির উপব্যবস্থাপনা পরিচালক ও এলিগেন্ট প্রকল্প প্রধান মো. জসিম উদ্দিন। চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন সহকারী প্রকল্প প্রধান মো. এনামুল হক, আড়াইহাজার সার্ভিস পয়েন্ট অফিসের ইনচার্জ মো. আমানুল্লাহ প্রমুখ। বিমাগ্রাহক রুবিনা বেগমের পিত্তথলিতে পাথরের উপস্থিতি শনাক্ত হওয়ায় অস্ত্রোপচারের সমুদয় খরচ বেঙ্গল ইসলামি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড পুনর্ভরন করে। বিজ্ঞপ্তি

বিষয়:

বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় কাজ করবে প্রাণ-আরএফএল ও আমল ফাউন্ডেশন

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
করপোরেট ডেস্ক

বর্জ্য অপসারণে কার্যকর ব্যবস্থাপনা এবং উৎসে বর্জ্য পৃথকীকরণে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘আমল ফাউন্ডেশন’-এর সঙ্গে সমঝোতা চুক্তি করেছে দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্পগ্রুপ ‘প্রাণ-আরএফএল’।

গতকাল বুধবার বাড্ডায় প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের প্রধান কার্যালয়ে এই সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় বলে প্রাণ-আরএফএলের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের বিপণন পরিচালক কামরুজ্জামান কামাল এবং আমল ফাউন্ডেশনের পরিচালক ইশরাত করিম নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে এই চুক্তিতে সই করেন।

প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের হেড অব করপোরেট ব্র্যান্ড নুরুল আফসারসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী ‘বর্জ্য অপসারণে কার্যকর ব্যবস্থাপনা ও বর্জ্য পৃথকীকরণের মাধ্যমে একটি সবুজ আগামী’ শীর্ষক প্রকল্প বাস্তবায়নে কাজ করবে দুই প্রতিষ্ঠান। প্রকল্পটির লক্ষ্য একটি বর্জ্য পৃথকীকরণ ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা ও উৎসে বর্জ্য পৃথকীকরণের মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে সচেতন করা, যার মাধ্যমে আরও টেকসই এবং পরিবেশবান্ধব বর্জ্য ব্যবস্থাপনা গড়ে তোলা সম্ভব হবে।

কামরুজ্জামান কামাল বলেন, ‘বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় এক্সটেন্ডেড প্রডিউসার রেসপন্সিবিলিটি বা ইপিআরের অংশ হিসেবে আমরা এ প্রকল্পটি গ্রহণ করেছি। এ প্রকল্প সফলভাবে বাস্তবায়ন করার জন্য আমরা আমল ফাউন্ডেশনের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করব।’

আমল ফাউন্ডেশনের ইশরাত করিম বলেন, ‘আমরা আশা করি, এই সমঝোতা বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় এক নতুন দিগন্তের উন্মোচন করবে। আমরা প্রাথমিকভাবে স্বল্প পরিসরে কাজ করছি। ভবিষ্যতে বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় আমরা আরও বড় পরিসরে প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের সাথে কাজ করতে পারব।’

তিনি জানান, দুই বছরব্যাপী এই প্রকল্পে আমল ফাউন্ডেশন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের সহযোগিতায় জরিপ পরিচালনা, বর্জ্য সংগ্রহকারীদের প্রশিক্ষণ প্রদানসহ বিভিন্ন কর্মকাণ্ড পরিচালনা করবে।


আইএসএজিও সনদ পেল ইউএস-বাংলা

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
করপোরেট ডেস্ক

গ্রাউন্ড হ্যান্ডলিং সেবায় ইন্টারন্যাশনাল এয়ার ট্রান্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশনের (আইএটিএ) নিবন্ধন পেয়েছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স।

মঙ্গলবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ইউএস-বাংলা বলেছে, বাংলাদেশে বেসরকারি বিমান সংস্থাগুলোর মধ্যে তারাই প্রথম আইএটিএর সেইফটি অডিট ফর গ্রাউন্ড অপারেশনস প্রোগ্রাম বা আইএসএজিও সনদ পেল।

এর আগে রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী সংস্থা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এই সনদ পেয়েছিল।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ইউএস-বাংলা বলেছে, তারা আইএটিএর সেইফটি অডিট ফর গ্রাউন্ড অপারেশনস প্রোগ্রামের অধীনে নিবন্ধিত হয়েছে, যার আওতায় রয়েছে প্রতিষ্ঠান ও ব্যবস্থাপনা, লোড কন্ট্রোল, প্যাসেঞ্জার ও ব্যাগেজ হ্যান্ডলিং, এয়ারক্রাফ্ট হ্যান্ডলিং এবং লোডিং, এয়ারক্রাফ্ট গ্রাউন্ড মুভমেন্ট, কার্গো এবং মেইল হ্যান্ডলিংয়ের মতো বিষয়।

এই সনদ পাওয়ায় যাত্রীরা এখন ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ওপর আরে বেশি ‘আস্থা’ রাখতে পারবেন বলে মনে করছে বিমান পরিবহন সংস্থাটি।

ইউএস-বাংলা ২০২৩ সাল থেকে আইওএসএ (আইএটিএ অপারেশনাল সেইফটি অডিট) নিবন্ধিত বিমান সংস্থা; এখন এটি আইএসএজিও নিবন্ধিত এয়ারলাইন্স হলো।


ইউজিসিতে যোগ দিলেন অধ্যাপক জাকির হোসেন

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. জাকির হোসেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনে (ইউজিসি) পূর্ণকালীন সদস্য হিসেবে যোগদান করেছেন। গতকাল বুধবার ইউজিসি চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলমগীরের কাছে তিনি যোগদানপত্র পেশ করেন। পরে তিনি ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন ও এক মিনিট নীরবতা পালন করেন। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. জাকির হোসেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনে (ইউজিসি) পূর্ণকালীন সদস্য হিসেবে যোগদান করেছেন। গতকাল বুধবার ইউজিসি চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলমগীরের কাছে তিনি যোগদানপত্র পেশ করেন। পরে তিনি ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন ও এক মিনিট নীরবতা পালন করেন। গত ১৩ জুন এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে শিক্ষা মন্ত্রণালয় অধ্যাপক ড. মো. জাকির হোসেনকে কমিশনের পূর্ণকালীন সদস্য হিসেবে চার বছরের জন্য নিয়োগ প্রদান করে। কমিশনের সদস্য হিসেবে তিনি প্রচলিত বিধি অনুযায়ী বেতন-ভাতাসহ অন্যান্য সুবিধাদি পাবেন। অধ্যাপক ড. মো. জাকির হোসেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগ থেকে বিকম (অনার্স) ও এমকম ডিগ্রি সম্পন্ন করে সুইডেনের বিটিএইচ থেকে বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনে এমএসসি ডিগ্রি অর্জন করেন। পরবর্তীতে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। তাঁর ২০টি গবেষণা প্রবন্ধ দেশ-বিদেশের খ্যাতনামা জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। তাঁর প্রকাশিত গ্রন্থের সংখ্যা ৪টি এবং সম্পাদিত গ্রন্থের সংখ্যা ৮টি। তিনি জবির জার্নাল অব বিজনেস স্টাডিজের প্রধান সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন।

প্রায় ২৯ বছর শিক্ষকতা জীবনে অধ্যাপক ড. মো. জাকির হোসেন একাডেমিক দায়িত্বের পাশাপাশি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের চেয়ারপারসন, বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ডিন, সিন্ডিকেট সদস্য, অর্থ কমিটির সদস্য, একাডেমিক কাউন্সিলের সদস্য, শিক্ষক সমিতির সভাপতি এবং উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্য, শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও কোষাধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি জবির নীল দলেরও সভাপতি ছিলেন।

এ ছাড়া তিনি বাংলাদেশ ইকোনমিক অ্যাসোসিয়েশনসহ বিভিন্ন পেশাজীবী ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ইউজিসি সদস্য হিসেবে যোগদান করায় অধ্যাপক ড. মো. জাকির হোসেনকে অভিনন্দন জানিয়েছেন কমিশনের চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) সদস্যরা, সচিব, বিভাগীয় প্রধানরা, ইউজিসি অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন ও কর্মচারী ইউনিয়নসহ সর্বস্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। বিজ্ঞপ্তি


মাইলস্টোন কলেজে গার্ল গাইডসের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

উত্তরায় স্বনামধন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মাইলস্টোন কলেজে বাংলাদেশ গার্ল গাইডস অ্যাসোসিয়েশন রাজধানী অঞ্চলের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালিত হয়েছে। প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষায় অতি প্রয়োজনীয় বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির আয়োজক ছিল বাংলাদেশ গার্ল গাইডস অ্যাসোসিয়েশন মাইলস্টোন কলেজ শাখা। সম্প্রতি উত্তরার ডিয়াবাড়িতে মাইলস্টোন কলেজের স্থায়ী ক্যাম্পাসে বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষরোপণের মাধ্যমে এ কর্মসূচি সফলভাবে পালন করা হয়। বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন মাইলস্টোন কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ জিয়াউল আলম, উপাধ্যক্ষ সালমা রউফ, বাংলাদেশ গার্ল গাইডস অ্যাসোসিয়েশন রাজধানী অঞ্চলের আঞ্চলিক কমিশনার রওশন ইসলাম এবং প্রশিক্ষক ইসতে আরা। গার্ল গাইডস অ্যাসোসিয়েশন মাইলস্টোন কলেজ শাখার রেঞ্জার গাইডার নূরুন নাহারের তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে গার্ল গাইডস মাইলস্টোন শাখার সব সদস্য অংশগ্রহণ করেন। বিজ্ঞপ্তি


ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ও ড্যাফোডিল কম্পিউটার্সের মধ্যে চুক্তি

ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে আধুনিক ইন্টিগ্রেটেড ইউনিভার্সিটি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম বাস্তবায়নের লক্ষ্যে দেশের শীর্ষস্থানীয় আইটি জায়েন্ট ড্যাফোডিল কম্পিউটার্স লিমিটেডের মধ্যে সম্পাদিত চুক্তি বিনিময় করছেন ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার মো. মশিউর রহমান এবং ড্যাফোডিল কম্পিউটার্স লিমিটেডের পক্ষে মহাব্যবস্থাপক জাফর আহমেদ পাটোয়ারী। এ সময় ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. রাকিব আহমেদ ও ড্যাফোডিল পরিবারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. মোহাম্মদ নুরুজ্জামানসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক এবং একাডেমিক কার্যক্রমকে তথ্যপ্রযুক্তির সমন্বয়ে আরও গতিশীল ও স্মার্ট ক্যম্পাসে রূপান্তরের উদ্দেশ্যে ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ড্যাফোডিল কম্পিউটার্স লিমিটেডের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। সম্প্রতি ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাসে এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার মো. মশিউর রহমান এবং ড্যাফোডিল কম্পিউটার্স লিমিটেডের পক্ষে মহাব্যবস্থাপক জাফর আহমেদ পাটোয়ারী নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. রাকিব আহমেদ ও ড্যাফোডিল পরিবারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. মোহাম্মদ নুরুজ্জামানসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এ চুক্তির আলোকে ড্যাফোডিল কম্পিউটার্স লিমিটেড ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির জন্য একটি উন্নত ইন্টিগ্রেটেড ইউনিভার্সিটি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম সফটওয়্যার তৈরি ও বাস্তবায়ন করে দেবে, যার মাধমে ছাত্রছাত্রী ভর্তি কার্যক্রম থেকে শুরু করে ছাত্র তথ্য ব্যবস্থাপনা, কোর্স নিবন্ধন, গ্রেডিং, সময়সূচি, পরীক্ষা ও স্বয়ংক্রিয় উপায়ে ফলাফল তৈরি, ব্লক চেইনের মাধ্যমে সনদপত্র যাচাইকরণ, মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা, হিসাব ও অর্থ ব্যবস্থাপনাসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের যাবতীয় প্রশাসনিক ও একাডেমিক প্রক্রিয়া ডিজিটালাইজডসহ সব কার্যক্রম সহজ ও গতিশীল হবে। এ সিস্টেমের অন্য বৈশিষ্ট্যগুলো হলো- স্মার্ট ম্যানেজমেন্ট ড্যাশবোর্ড , দ্রুত অননুমোদন ব্যবস্থাপনা, স্মার্ট টাস্ক ও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সংযোজন, যার মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের যাবতীয় অপারেশনাল ফ্রেম ওয়ার্ককে ডিজিটাল ও আধুনিক করা হবে, যা প্রশাসনিক কাজের দক্ষতা ও শিক্ষার মানকে উন্নত করবে। বিজ্ঞপ্তি


সার্কুলার টেক্সটাইল হ্যাকাথন উদ্ভাবন কর্মসূচি চালু

বিইউএফটি, নেদারল্যান্ডসের ইউনিভার্সিটি অব গ্রোনিংজেন এবং বিএই যৌথভাবে সম্প্রতি ঢাকার তুরাগের নিশাতনগরে বিইউএফটির স্থায়ী ক্যাম্পাসে ‘সার্কুলার টেক্সটাইল হ্যাকাথন’ নামে একটি উদ্ভাবন কর্মসূচি চালু করেছে। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

বিজিএমইএ ইউনিভার্সিটি অব ফ্যাশন অ্যান্ড টেকনোলজি (বিইউএফটি), নেদারল্যান্ডসের ইউনিভার্সিটি অব গ্রোনিংজেন এবং বাংলাদেশ অ্যাপারেল এক্সচেঞ্জ (বিএই) যৌথভাবে সম্প্রতি ঢাকার তুরাগের নিশাতনগরে বিইউএফটির স্থায়ী ক্যাম্পাসে ‘সার্কুলার টেক্সটাইল হ্যাকাথন’ নামে একটি উদ্ভাবন কর্মসূচি চালু করেছে। এ প্রকল্পটি ডাচ এজেন্সি ফর এন্টারপ্রেনারশিপের (আরভিও) সহযোগিতায় আরভিও অরেঞ্জ কর্নারের জন্য সার্কুলার টেক্সটাইল হ্যাকাথনের অংশ। এর লক্ষ্য হলো বাংলাদেশের টেক্সটাইল শিল্পের মধ্যে উদ্ভাবন এবং সার্কুলার ইকোনমি অনুশীলনের প্রচার করা। অনুষ্ঠানে বিইউএফটির বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান মো. শফিউল ইসলাম অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। অন্য অতিথিদের মধ্যে ছিলেন বিইউএফটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. এস এম মাহফুজুর রহমান, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইঞ্জিনিয়ার আইয়ুব নবী খান, গ্রোনিংজেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র গবেষক টিটাস ভ্যান ডার স্পেক, গ্রোনিংজেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্যাকাল্টি কিম পোল্ডনার, বিএইর প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও মোস্তাফিজ উদ্দিন, বিএইর পার্টনারশিপ লিড খালিদ হোসেন, নেদারল্যান্ডস দূতাবাসের বেসরকারি খাত উন্নয়ন অর্থনৈতিক বিষয়ের সিনিয়র নীতি উপদেষ্টা তানজিলা তাজরীন, নেদারল্যান্ডস দূতাবাসের ব্যবসায় উন্নয়নের নীতি উপদেষ্টা অশিম রহমান, বিইউএফটির ফ্যাশন স্টাডিজ বিভাগের প্রধান শর্মিলী সরকার মিশু, বিইউএফটির ফ্যাশন স্টাডিজ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক রায়েদ বরকত এবং বিইউএফটির ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ। বিজ্ঞপ্তি


সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটি ও ইউনাইটেড হাসপাতালের মধ্যে চুক্তি

সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটি এবং ইউনাইটেড হাসপাতাল লিমিটেডের মধ্যে সম্প্রতি একটি সেবা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটি ও ইউনাইটেড হাসপাতাল লিমিটেডের মধ্যে সম্প্রতি একটি সেবা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়টির সম্মেলন কক্ষে এ চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান আয়োজন করে সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটির ক্যারিয়ার ও প্রফেশনাল ডেভেলপমেন্ট সার্ভিসেস (সিপিডিএস)। ইউনাইটেড হাসপাতাল লিমিটেডের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন এর মহাব্যবস্থাপক ও সিআরডি প্রধান মো. রেজাউল মানিক, করপোরেট কমিউনিকেশনস ও বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার সৈয়দ আশরাফ-উল-মাসুম এবং অন্য কর্মকর্তারা। সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটির পক্ষে উপস্থিত ছিলেন উপাচার্য, অধ্যাপক ড. ইউসুফ মাহবুবুল ইসলাম, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম. মোফাজ্জল হোসেন, রেজিস্ট্রার, ডিন, বোর্ড অব ট্রাস্টিজ-এর সেক্রেটারি, সিপিডিএস পরিচালক, মেডিকেল অফিসার এবং বিএসপিআর উপ-পরিচালক। এই চুক্তিটি চিকিৎসা ও স্বাস্থ্যসেবা ক্ষেত্রে উভয় প্রতিষ্ঠানের মধ্যে একটি দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক গড়ে তুলবে। বিজ্ঞপ্তি


জাপানে ফেলোশিপ ট্রেনিংয়ের সুযোগ পাবেন বিএসএমএমইউর চিকিৎসকরা

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) সঙ্গে জাপান-বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (জেবিএমএ) সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। এর ফলে এখন থেকে প্রতিবছর বিএসএমএমইউর চিকিৎসকরা জাপানে ফেলোশিপ ট্রেনিংয়ের সুযোগ পাবেন। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) সঙ্গে জাপান-বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (জেবিএমএ) সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। এর ফলে এখন থেকে প্রতিবছর বিএসএমএমইউর চিকিৎসকরা জাপানে ফেলোশিপ ট্রেনিংয়ের সুযোগ পাবেন। আর এই ট্রেনিংয়ের সব ব্যয়ভার বহন করবে জাপান-বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন। সম্প্রতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে এই সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানি রাষ্ট্রদূত ইউয়ামা কিমিনোরি। সভাপতিত্ব করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. দীন মো. নূরুল হক। এ সমঝোতা স্মারকের মাধ্যমে প্রতিবছর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লিনিক্যাল ডিপার্টমেন্টের বিশেষজ্ঞ পর্যায়ের চিকিৎসকরা জাপানের একটি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিন থেকে ছয় মাসের উচ্চতর ফেলোশিপ ট্রেনিংয়ের সুযোগ পাবেন। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (একাডেমিক) অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. মনিরুজ্জামান খান, ডিন অধ্যাপক ডা. আবু নাসার রিজভী, ডিন অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ হোসেন, ডিন অধ্যাপক ডা. দেবব্রত বণিক, ডিন অধ্যাপক ডা. দেবতোষ পাল, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল হান্নান, প্রক্টর অধ্যাপক ডা. মো. হাবিবুর রহমান দুলাল, জাপান-বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ডা. শেখ আলীমুজ্জামান প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি


‘খাদ্য ব্যবস্থা রূপান্তরে পুষ্টি ব্যবস্থাপনা’ শীর্ষক ন্যাশনাল ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

কেয়ার বাংলাদেশের নেতৃত্বে জয়েন্ট অ্যাকশন ফর নিউট্রিশন আউটকামস (JANO) কনসোর্টিয়ামের যৌথ উদ্যোগ ঢাকাতে হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে সারাদিন ব্যাপী আয়োজিত ‘খাদ্য ব্যবস্থা রূপান্তরে পুষ্টি ব্যবস্থাপনা ২০২৪’ শীর্ষক ন্যাশনাল ওয়ার্কশপ এর বিষয় বস্তু ছিল JANO এবং আইসিটি দ্বারা নির্মিত ধারণা এবং জ্ঞানগুলো প্রচার। একইসঙ্গে সামনের দিনগুলোতে কি চ্যালেঞ্জ হবে এবং কি কি অভিজ্ঞতা অর্জন হলো তা দর্শকদের সঙ্গে সরাসরি মত বিনিময় করা।

অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব মো: শামসুল আরেফিন পুষ্টি বিষয়ক সমস্যাগুলোর টেকসই সমাধানে প্রযুক্তির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার উপর জোর দেন। বাংলাদেশ জাতীয় পুষ্টি কাউন্সিলের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক ড. মোহাম্মদ মাহববুর রহমান পুষ্টি ব্যবস্থাপনা এবং জনস্বাস্থ্যের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ সম্পর্ক নিয়ে গভীর দৃষ্টি ভঙ্গি প্রকাশ করেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথিরা পুষ্টি ব্যবস্থাপনা এবং টেকসই উন্নয়নের জন্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। এনডিসি মো. শহিদুল আলম খাদ্য নিরাপত্তা এবং পুষ্টির ব্যবস্থাপনা পর্যবেক্ষণের উপর জোর দেন। মো. হাবিবুর রহমান ডিজিটাল ক্ষমতায়নের প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দিয়ে প্রশাসনে আইসিটির রূপান্তর মূলক ভূমিকা তুলে ধরেন। মো. মামুনর রশীদ বৈশ্বিক স্বাস্থ্য চ্যালেঞ্জগুলোর উপর আলোকপাত করেন এবং সহযোগিতামূলক সমাধানের পক্ষে কথা বলেন।

জানো (JANO) বাংলাদেশে বহু-ক্ষেত্র ভিত্তিক পুষ্টি কার্যক্রম পরিচালনা এবং পুষ্টি

ব্যবস্থাপনার মূল অংশীদারগণের মধ্যে সমন্বয় সাধনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। এফএনএস কার্যক্রম বাস্তবায়নকারী অংশীদারগণ আটটি মন্ত্রণালয় এবং অসংখ্য সংস্থাসহ বেশ কয়েকটি সরকারি বিভাগকে তাদের পুষ্টি-সংক্রান্ত এবং পুষ্টি-কেন্দ্রিক/সংবেদনশীল কার্যক্রম পরিচালনায় সহায়তা প্রদান করেছে।


ডিআরআরএর সহায়তায় কর্মশালা

জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ এবং ডিজএবলড রিহেবিলিটেশন অ্যান্ড রিসার্চ অ্যাসোসিয়েশনের (ডিআরআরএ) সহায়তায় গতকাল বুধবার ‘জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন নীতি, ২০২২: বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন জনগোষ্ঠী’ শীর্ষক কর্মশালা আগারগাঁওয়ের বিনিয়োগ ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ এবং ডিজএবলড রিহেবিলিটেশন অ্যান্ড রিসার্চ অ্যাসোসিয়েশনের (ডিআরআরএ) সহায়তায় গতকাল বুধবার ‘জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন নীতি, ২০২২: বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন জনগোষ্ঠী’ শীর্ষক কর্মশালা আগারগাঁওয়ের বিনিয়োগ ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি রাষ্ট্রীয় কাজে দেশের বাইরে থাকায় তার লিখিত বক্তব্য পাঠ করা হয়। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘আজ চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের দ্বারপ্রান্তে দাঁড়িয়ে আগামীর চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আমাদের সামনে দক্ষ জনশক্তির বিকল্প নেই। মেশিন লার্নিং ও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার কারণে শ্রমশক্তির কর্মসংস্থানের সুযোগ এখন সংকুচিত। নতুন নতুন প্রযুক্তি যেমনভাবে শ্রমনির্ভর কাজের ক্ষেত্র সংকুচিত করেছে, তেমনি প্রযুক্তি দক্ষতানির্ভর নতুন বহু ক্ষেত্রও তৈরি হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, আমাদের জনশক্তিকে সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে তৈরি করতে হবে। দেশীয় ও আন্তর্জাতিক শ্রমবাজারের চাহিদা অনুযায়ী দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলার মাধ্যমে ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত তথা স্মার্ট বাংলাদেশ গঠন এখন বাস্তবতা। কর্মশালায় বিশেষ অতিথি ছিলেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালায়বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সংসদ সদস্য বেগম শবনম জাহান শীলা। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সরকারের সচিব ও জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান নাসরীন আফরোজ। বিজ্ঞপ্তি


সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটি ও ইউনাইটেড হাসপাতালের মধ্যে চুক্তি

সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটি এবং ইউনাইটেড হাসপাতাল লিমিটেডের মধ্যে সম্প্রতি একটি সেবা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটি ও ইউনাইটেড হাসপাতাল লিমিটেডের মধ্যে সম্প্রতি একটি সেবা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়টির সম্মেলন কক্ষে এ চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান আয়োজন করে সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটির ক্যারিয়ার ও প্রফেশনাল ডেভেলপমেন্ট সার্ভিসেস (সিপিডিএস)। ইউনাইটেড হাসপাতাল লিমিটেডের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন এর মহাব্যবস্থাপক ও সিআরডি প্রধান মো. রেজাউল মানিক, করপোরেট কমিউনিকেশনস ও বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার সৈয়দ আশরাফ-উল-মাসুম এবং অন্য কর্মকর্তারা। সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটির পক্ষে উপস্থিত ছিলেন উপাচার্য, অধ্যাপক ড. ইউসুফ মাহবুবুল ইসলাম, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম. মোফাজ্জল হোসেন, রেজিস্ট্রার, ডিন, বোর্ড অব ট্রাস্টিজ-এর সেক্রেটারি, সিপিডিএস পরিচালক, মেডিকেল অফিসার এবং বিএসপিআর উপ-পরিচালক। এই চুক্তিটি চিকিৎসা ও স্বাস্থ্যসেবা ক্ষেত্রে উভয় প্রতিষ্ঠানের মধ্যে একটি দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক গড়ে তুলবে। বিজ্ঞপ্তি


ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের ৬ শতাংশ সুদে ঋণ দেবে এনআরবিসি ব্যাংক 

ঋণ বিতরণের জন্য মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর একটি হোটেলে এসএমই ফাউন্ডেশনের সঙ্গে চুক্তি করেছে এনআরবিসি ব্যাংক। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের উদ্যোক্তাদের মাত্র ৬ শতাংশ সুদে ঋণ দেবে এনআরবিসি ব্যাংক। একজন উদ্যোক্তা সহজশর্তে ১ লাখ টাকা থেকে ২৫ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ নিতে পারবেন। তবে শিল্পের মূলধনি যন্ত্রপাতি ক্রয়ের জন্য ঋণ নিতে পারবেন সর্বোচ্চ ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত। করোনাভাইরাসের ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় এসএমই ফাউন্ডেশনের ‘রিভলভিং ফান্ড’ থেকে এই ঋণ বিতরণ করা হবে। ঋণ বিতরণের জন্য মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর একটি হোটেলে এসএমই ফাউন্ডেশনের সঙ্গে চুক্তি করেছে এনআরবিসি ব্যাংক। এনআরবিসি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (চলতি দায়িত্ব) মো. রবিউল ইসলাম এবং এসএমই ফাউন্ডেশনের চেয়ারপারসন অধ্যাপক ড. মো. মাসুদুর রহমান নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন শিল্প মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব জাকিয়া সুলতানা, অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব মো. আবদুর রহমান খান, এসএমই ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) সালাউদ্দিন মাহমুদ এবং এনআরবিসি ব্যাংকের সিআরএমডি-২ (এসএমই) প্রধান মোহাম্মদ হাজ্জাজ বিন মাহফুজ প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি


সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের নতুন ৫ এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেট উদ্বোধন

সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের পাঁচটি নতুন এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেট উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল বুধবার প্রধান কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী জাফর আলম এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেটগুলো উদ্বোধন করেন। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের পাঁচটি নতুন এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেট উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল বুধবার প্রধান কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী জাফর আলম এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেটগুলো উদ্বোধন করেন। ব্যাংকের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক মুহাম্মদ ফোরকানুল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুল হান্নান খান ও মোহাম্মদ হাবীবুর রহমান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন এজেন্ট ব্যাংকিং ডিভিশনের প্রধান মো. মশিউর রহমান। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ব্যাংকের ব্রাঞ্চেস কন্ট্রোল ডিভিশনের প্রধান জয়নাল আবেদীনসহ ঊর্ধ্বতন নির্বাহীরা। অনুষ্ঠানে ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট আঞ্চলিক প্রধান, শাখা ব্যবস্থাপক, আউটলেটগুলোর এজেন্টসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন। নতুন এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেটগুলো হলো- ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে ধরমণ্ডল সড়ক বাজার, কুমিল্লার বুড়িচংয়ে পূর্ণমতি বাজার, জামালপুরের মেলান্দহে ঝাউগড়া বাজার, কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরের রামদীতে আগরপুর বাসস্ট্যান্ড এবং ভোলার চরফ্যাশনে আঞ্জুরহাট বাজার। প্রধান অতিথির বক্তব্যে জাফর আলম বলেন, আমরা সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংককে গণমানুষের ব্যাংক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছি। দেশের সব অঞ্চলের মানুষ যাতে ব্যাংকিং সেবা পায় সে লক্ষ্যেই দেশব্যাপী শাখা-উপশাখার পাশাপাশি এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেটগুলো কাজ করছে। তিনি বলেন, ইসলামী ব্যাংকিং একটি কল্যাণকর ব্যবস্থা। ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সব শ্রেণি-পেশার মানুষ এ সুবিধা পাচ্ছেন। তিনি এসব এলাকার মানুষকে এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেট থেকে ব্যাংকিং সেবা গ্রহণের আহ্বান জানান। বিজ্ঞপ্তি


banner close