রোববার, ৩ মার্চ ২০২৪
৬৫তম গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ডস ২০২৩

বিয়ন্সের রাত

গ্র্যামির মঞ্চে বিয়ন্সে
আপডেটেড
৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ১০:০২
বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত
বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত : ৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ১০:০০

গতকাল যখন যানজটে আটকে পড়েন পপতারকা বিয়ন্সে, তখনো তিনি জানেন না গ্র্যামির এই রাত তার জীবনের সবচেয়ে ঈর্ষণীয় সফলতার খবর নিয়ে এসেছে। যানজট তাকে ঠিক সময়ে উৎসবে ঢুকতে দেয়নি। তবে গ্র্যামির সোনালি রাত তাকে উপহার দিয়েছে সবচেয়ে বেশি পুরস্কার পাওয়ার শিল্পীর মর্যাদা। গতকাল চারটি পুরস্কার পেয়ে তার ঘরে জমা হয়েছে ৩২টি গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড, যা আর কারও ঝুলিতে নেই। এমন রাতে আবেগপ্রবণ না হয়ে পারেন! বিয়ন্সে বললেন, ‘চেষ্টা করেছি যেন বেশি আবেগপ্রবণ না হয়ে যাই।’

বেস্ট আরএনবি সং, বেস্ট ডান্স/ইলেকট্রনিক রেকর্ডিং, বেস্ট ডান্স/ ইলেকট্রনিক রেকর্ডিং অ্যালবাম ও বেস্ট ট্র্যাডিশনাল আরএনবি পারফরম্যান্স পুরস্কার পেয়েছেন এবারের আসরে। পুরস্কার উৎসর্গ করেছেন স্বামী জেজি ও কুইর কমিউনিটিকে।

কয়েক দিন আগেই ঘোষণা দিয়েছেন বিশ্বব্যাপী শুরু করবেন সংগীত সফর। গত বুধবার তার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে জানান, ‘রেনেসাঁস বিশ্ব সফর’ নিয়ে মারাত্মকভাবে রোমাঞ্চিত তিনি।

বিয়ন্সের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট অনুযায়ী, সুইডেনের স্টকহোমের ফ্রেন্ডস অ্যারেনা থেকে চলতি বছরের মে থেকে শুরু হবে এই সফর। সফরসূচি অনুযায়ী যুক্তরাষ্ট্রের নিউ অরলিন্সের সিজার্স সুপারডোমে সেপ্টেম্বরে সফর শেষ হওয়ার কথা। গ্র্যামিজয়ী এই গায়িকার ‘রেনেসাঁ’ সপ্তম অ্যালবাম। গত বছরের জুলাইয়ে প্রকাশিত হয় অ্যালবামটি। বের হওয়ার পর ভক্তদের কাছে দারুণ সমাদর পায়। এবার অ্যালবামের গানগুলো বিশ্বভ্রমণের অপেক্ষায়। সংগীত সফর, গ্র্যামিতে ইতিহাস- সবকিছু মিলে মার্কিন পপতারকা বিয়ন্সের সফলতা এ বছর আকাশ ছুঁতে চাইছে।

তবে অ্যালবাম অব দ্য ইয়ারে হারাতে পারেননি হ্যারি স্টাইলকে। গ্র্যামির অন্যতম এই পুরস্কার হ্যারি জিতলেন বিয়ন্সে ও অ্যাডেলের মতো শিল্পীদের হারিয়ে। অ্যাডেলে জিতেছেন বেস্ট পপ সলো ‘ইজি অন মি’ গানের জন্য।

ওদিকে র‌্যাপে বাজিমাত করেছেন কেন্ড্রিক লামার। বেস্ট র‌্যাপ পারফরম্যান্স, বেস্ট র‌্যাপ সং ও বেস্ট র‌্যাপ অ্যালবাম গেছে তার ঝুলিতে। লিজো জিতেছেন রেকর্ড অব দ্য ইয়ার। বনি রেইট জিতেছেন সং অব দ্য ইয়ার। গ্র্যামির ইতিহাসে দ্বিতীয়বারের মতো ট্রান্সজেন্ডার ওম্যান হিসেবে পুরস্কার জিতেছেন কিম পেট্রাস। বেস্ট পপ ডুয়ো/গ্রুপ পারফরম্যান্স জিতেছেন যৌথভাবে স্যাম স্মিথের সঙ্গে।

এবার হিপ-হপ গানের ৫০ বছর পূর্তি উদযাপিত হয়েছে। করোনার কারণে গত বছর লাস ভেগাসে আয়োজিত হয়েছিল। ফের উৎসবটি ফিরল লস অ্যাঞ্জেলেসে। সঞ্চালক ছিলেন ট্রাভোর নোয়া। ব্যাড বানি, জ্যাক হারলো, টেলর সুইফটরা মঞ্চ মাতিয়ে রেখেছিলেন তাদের গান দিয়ে।

বিজয়ীদের তালিকা

সং অফ দ্য ইয়ার: আই কান্ট ব্রেথ

বেস্ট পপ সোলো পারফরম্যান্স: হ্যারি স্টাইলস

বেস্ট পপ জুটি: লেডি গাগা ও আরিয়ানা গ্র্যান্ডে

বেস্ট আরএনবি অ্যালবাম: বিগার লাভ

বেস্ট ট্র্যাডিশনাল আরএনবি পারফরম্যান্স: এনিথিং ফর ইউ

বেস্ট প্রোগ্রেসিভ আরএনবি অ্যালবাম: ইট ইজ হোয়াট ইট ইজ

বেস্ট আরএনবি সং: বেটার দ্যান আই ইমাজিনড

বেস্ট নিউ আর্টিস্ট: মেগান দ্য স্ট্যালিয়ন

বেস্ট র‌্যাপ পারফরম্যান্স: বিয়ন্সে

বেস্ট র‌্যাপ অ্যালবাম: কিংস ডিজিজ

বেস্ট মেলোডিক র‌্যাপ পারফরম্যান্স: লকডাউন

বেস্ট ট্র্যাডিশনাল পপ ভোকাল অ্যালবাম: আমেরিকান স্ট্যান্ডার্ড

বেস্ট মিউজিক ভিডিও: ব্রাউন স্কিন গার্ল

বেস্ট সং রিটেন ফর ভিজুয়াল মিডিয়া: নো টাইম টু ডাই

বেস্ট কমপিলেশন সাউন্ডট্র্যাক ফর ভিজুয়াল মিডিয়া: জোজো র‌্যাবিট

বেস্ট স্কোর সাউন্ডট্র্যাক ফর ভিজুয়াল মিডিয়া: হিলডার গুয়োনোদোতর

বেস্ট গ্লোবাল মিউজিক অ্যালবাম: টোয়াইস অ্যাজ টল

বেস্ট ডান্স রেকর্ডিং: কেত্রানাদা

বেস্ট ডান্স/ইলেকট্রনিক অ্যালবাম: বুবা

বেস্ট রক অ্যালবাম: দ্য নিউ অ্যাবনর্মাল

বেস্ট রক সং: স্টে হাই

বেস্ট অল্টারনেটিভ মিউজিক অ্যালবাম: ফেচ দ্য বোল্ট কাটারস

বেস্ট মেটাল পারফরম্যান্স: বুম রাশ

বেস্ট কান্ট্রি সলো পারফরম্যান্স: হোয়েন মাই অ্যামি প্রেইজ

বেস্ট কান্ট্রি পারফরম্যান্স জুটি: ড্যান ও শে

বেস্ট কান্ট্রি অ্যালবাম: ওয়াইল্ডকার্ড

বেস্ট কান্ট্রি সং: ক্রাউডেড টেবল

বেস্ট নিউ এজ অ্যালবাম: মোর গিটার স্টোরিজ

বেস্ট জ্যাজ ভোকাল অ্যালবাম: সিক্রেটস আর দ্য বেস্ট স্টোরিজ

বেস্ট ইমপ্রোভাইজড জ্যাজ সলো: অল ব্লুজ

বেস্ট জ্যাজ ইনস্ট্রুমেন্টাল অ্যালবাম: ট্রিলজি ২

বেস্ট লার্জ জ্যাজ অনসাম্বল অ্যালবাম: ডেটা লর্ডস

বেস্ট লাতিন জ্যাজ অ্যালবাম: ফোর কোয়েশ্চেনস

বেস্ট গসপেল পারফরম্যান্স/সং: মুভিং অন


নিলামে ‘টাইটানিক’র নায়িকার পোশাক

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
বিনোদন ডেস্ক

ছাব্বিশ বছর পরেও এখনো দর্শক হৃদয়ে শীর্ষে রয়েছে বিশ্বখ্যাত ‘টাইটানিক’ সিনেমার সেই আসাধারণ জুটি জ্যাক-রোজ চরিত্র। হলিউডের বিখ্যাত অভিনেতা লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও ও কেট উইনস্লেট এই দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। এখনো সিনেমাটি দর্শকের সামনে এলে তা উপেক্ষা করা কঠিন হয়ে পড়ে।

সম্প্রতি সেই টাইটানিকের নায়িকা রোজ আথাৎ কেট উইন্সলেটের পরা একটি ওভারকোট নিলামে তোলা হয়েছে। ভারতীয় প্রতিবেদন অনুযায়ী, টাইটানিক সিনেমায় অভিনেত্রী কেট উইন্সলেট অন-স্ক্রিন চরিত্র ‘রোজ’-এর ভূমিকায় অভিনয়ের সময় পরা একটি ওভারকোট আমেরিকার নিউ জার্সির নিলামকারী সংস্থা গোল্ডিন অনলাইনে নিলাম করতে চলেছে।

প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও কেন গোল্ডিন জানিয়েছেন, ওভারকোটটির দাম এক লাখ ডলার অতিক্রম করে যাবে।

জানা যায়, ওভারকোটে গোলাপি উলের ওপর কালো এমব্রয়ডারি করা হয়েছে, যা ডিজাইন করেছিলেন ডেবোরা লিন স্কট। স্কটের ডিজাইনের ওপর ভিত্তি করে জে পিটারম্যান কোম্পানি এই কোটটি তৈরি করেন। টাইটানিকের জন্য পোশাক ডিজাইন করে স্কট একাডেমি পুরস্কারও পান।

গত শুক্রবার রাতে নিলাম শুরু হওয়ার পরই পাঁচজন এতে অংশ নিয়েছেন। এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ দাম উঠেছে ৩৪ হাজার ডলার। ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে নিলাম। যে বেশি দাম দিতে পারবেন, তারই সংগ্রহে যাবে এই ওভারকোট।

টাইটানিক প্রথম সিনেমা যা কি না প্রথম বিলিয়ন ডলারের ঘর অতিত্রম করেছিল, যা বক্স অফিসে ১ দশমিক ৮৪ বিলিয়ন ডলার আয় করেছিল। সিনেমাটি ১৪টি বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছিল এবং সেরা ছবি, সেরা পরিচালক এবং সেরা পোশাক ডিজাইনের জন্য অস্কারও পান।

বিষয়:

প্রিয় শখই কেড়ে নিল প্রাণ

আপডেটেড ৬ মে, ২০২৩ ১৯:১২
বিনোদন ডেস্ক

মাত্র ২৩ বছর বয়সেই মৃত্যু হল সিয়েনা ওয়য়ার। পরিবারের পক্ষ থেকে সিদ্ধান্ত নেয়া হল, লাইফ সাপোর্ট ব্যবস্থা খুলে নেয়া হবে। কারণ আর বাঁচার সম্ভাবনা ছিল না সিয়েনার। সঙ্গে সঙ্গেই বলে দেয়া হল মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতার ফাইনালিস্ট আর নেই।

২০২২ সালে মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার মডেল সিয়েনা। শেষ পর্ব পর্যন্ত পৌঁছান। শেষ ২২ জন ফাইনালিস্টের মধ্যে স্থান করে নিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার এই মডেল-কন্যা। যদিও তার আগে থেকেই মডেল হিসাবে রীতিমতো জনপ্রিয় ছিলেন তিনি। মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতা তাকে পৌঁছে দিয়েছিল পুরো বিশ্বের কাছে।

এরপরে ক্যারিয়ারের জন্য তিনি ইংল্যান্ডে চলে যেতে চান। সেখানেই মডেল এবং অভিনেত্রী হিসাবে কাজ শুরু করতে চান তিনি। শুধু তাই নয়, তার পরিবারের অনেকেই সেখানে থাকেন। এরপর থেকে তাদের সঙ্গেই থাকতে চান বলে জানিয়ছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেই স্বপ্ন পূরণ হল না। খুব প্রিয় শখের কারণেই প্রাণ গেল সিয়েনার।

শহরের মেয়ে হয়েও গ্রামের জীবন খুব পছন্দের ছিল সিয়েনার। ভালোবাসতেন ঘোড়ায় চড়তে। কয়েক সপ্তাহ আগে সেই শখের সূত্রেই ঘোড়ায় চড়েছিলেন তিনি। তখন ঘটে অঘটন। ঘোড়াটি উল্টে পড়ে যায়। চাপা পড়েন সিয়েনাও। চোট পান। সঙ্গে সঙ্গেই কোমায় চলে যান তিনি। এর পরে লাইফ সাপোর্ট ব্যবস্থা দিয়ে রাখা হয় তাকে। কিন্তু চিকিৎসকরা আশার আলো দেখতে পাচ্ছিলেন না।

শেষ পর্যন্ত চিকিৎসকরা জানান, ফিরে আসার আর কোনো সম্ভাবনা নেই সিয়েনার। পরিবারের সদস্যরা তাই লাইফসাপোর্ট খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন। পরিবারের সূত্রেই জানানো হয়েছে, জীবনাবসান হয়েছে অস্ট্রেলিয়ার এই ‍মডেলের। তার এজেন্টরাও জানিয়েছেন একই কথা।


শাড়ির মতো গাউনে নাওমি ক্যাম্পবেল

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
বিনোদন ডেস্ক

বিশ্বে ফ্যাশনের সবচেয়ে বড় রাত হিসেবে গণ্য করা হয় ‘মেট গালা’ ইভেন্টকে। গত সোমবার নিউইয়র্কের মেট্রোপলিটন মিউজিয়াম অব আর্ট-এ হয়ে গেছে ‘মেট গালা-২০২৩’। সিনেমা, থিয়েটার, নাটকসহ ফ্যাশন জগতের তারাকাদের সারা বছরের অপেক্ষা থাকে এই রাতটির জন্য। প্রতি বছরের মতো এ বছরেও ছিল একাধিক চমক। বলিউড থেকে হলিউডে একাধিক তারকার দেখা মিলেছে এই অনুষ্ঠানে। তবে এই বছরে খবরের শিরোনাম হয়েছেন ব্রিটিশ সুপার মডেল নাওমি ক্যাম্পবেল। শাড়ির আদলে একটি পোশাক পরেছেন তিনি, যা অনেককেই অবাক করেছিল।

এবারের ফ্যাশন শোর থিম ছিল জার্মানির বিখ্যাত ফ্যাশন ডিজাইন কার্ল লাজেরফেল্ডের কাজ। ২০১৯ সালে প্রয়াত হয়েছেন এই বিখ্যাত ফ্যাশন ডিজাইনার। তার নামেই এই শোয়ের থিমের মাধ্যমে তাকে শ্রদ্ধা জানানো হয়েছে।

মেট গালায় নাওমি ক্যাম্পবেল শাড়ির মতো করে একটি গাউন জড়িয়েছিলেন, যা চট করে দেখলে শাড়ির মতো মনে হয়। তবে তা শাড়ি নয়। হালকা গোলাপি সার্টিনের গাউনে টপসের সঙ্গে মিলিয়ে রুপালি ফুলের ডিজাইন ও ব্রুজ ছিল। রুপালি এমব্রয়ডারি করা একটি ব্লাউজের ওপর নিখুঁতভাবে শাড়ির মতো করেই পরেছিলেন গাউনটি। সঙ্গে মিল করে দুই হাতেও পরেছিলেন রুপালি ব্রেসলেট, যা সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে।

গত বছরও মেট গালায় ক্যাম্পবেল নিজেকে ‘বিশেষ’ করেছিলেন গহনায়। তিনি বিখ্যাত জ্যাকব অ্যান্ড কোম্পানির ৬ মিলিয়ন ডলারের বেশি দামের গহনা পরে এসেছিলেন ওই রাতের আসরে।


আগামী অস্কার ১০ মার্চ

২০২২ সালের অস্কারে সব থেকে আলোচিত ছিল চড়কাণ্ড
আপডেটেড ২৫ এপ্রিল, ২০২৩ ১৯:২৮
বিনোদন ডেস্ক

গতবারের মতো এবারও মার্চ মাসে, আগামী বছরের ১০ মার্চ বসছে ৯৬তম অস্কার আসর। একাডেমি অব মোশন পিকচার আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সেস এবং তাদের দীর্ঘদিনের প্রচার-সহযোগী এবিসি চ্যানেল গত সোমবার এ ঘোষণা দিয়েছে।

এ ছাড়া অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ তারিখও ঘোষণা দিয়েছে একাডেমি কর্তৃপক্ষ। একাডেমির গভর্নর অ্যাওয়ার্ডের আসর বসবে এ বছরের ১৮ নভেম্বর। অস্কারের তালিকায় থাকতে পারে এমন ছবিগুলো নিয়ে এই আসর জমে ওঠে।

ছবি জমা দেয়ার শেষ সময় চলতি বছরের ১৫ নভেম্বর। ১৪ থেকে ১৮ ডিসেম্বরের মধ্যে করা হবে প্রাথমিক শর্ট লিস্ট। সেটি জানিয়ে দেয়া হবে ২১ ডিসেম্বর। অস্কার মনোনয়ন ভোট চলবে আগামী বছরের ১১ থেকে ১৬ জানুয়ারি। ভোট গ্রহণের এক সপ্তাহ পর ২৩ জানুয়ারি মনোনয়ন ঘোষণা হবে।

১২ ফেব্রুয়ারি থাকবে অস্কারে আমন্ত্রিত অতিথিদের আতিথ্য। ২৩ ফেব্রুয়ারি দেয়া হবে সায়েন্টিফিক ও টেকনিক্যাল অ্যাওয়ার্ড। অস্কারে বিজয়ী ছবিগুলোর জন্য চূড়ান্ত ভোট নেয়া হবে ২২ থেকে ২৭ ফেব্রুয়ারি।

তবে অস্কার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এই তারিখগুলো আপাতত চূড়ান্ত। কোনো কারণে তারিখ পরিবর্তনের প্রয়োজন হলে তারা নতুন তারিখ নির্ধারণ করবে।


বব ডিলানের ছবিতে গাইবেনও চ্যালামেট

টিমোথি চ্যালামেট
আপডেটেড ১২ এপ্রিল, ২০২৩ ১৬:০৪
বিনোদন ডেস্ক

হলিউড অভিনেতা টিমোথি চ্যালামেট বিখ্যাত গায়ক বব ডিলানকে নিয়ে ছবিতে অভিনয় করবেন- এ পুরোনো খবর। ধরা হয়েছিল, চ্যালামেট সেখানে ডিলানের গানের সঙ্গে কেবল ঠোঁট মেলাবেন। কিন্তু পশ্চিমা গণমাধ্যমের খবর, এই ছবিতে গাইবেনও হলিউড অভিনেতা।

‘কলিডর’কে ছবির পরিচালক জেমস ম্যানগোল্ড হলিউড তারকা টিমোথি চ্যালামেটের গান গাওয়া প্রসঙ্গে বলেন, ‘অবশ্যই গাইবেন তিনি’। ম্যানগোল্ড বলেন, ‘মার্কিন সংস্কৃতিতে তখন সময়টা ছিল দারুণ। ববের গল্পটা কী? ১৯ বছরের বব ডিলান নিউইয়র্ক এলেন মাত্র দুই ডলার সঙ্গী করে। আর তিন বছরের মাথায় তিনি হয়ে উঠলেন বিশ্বব্যাপী তারকা।’

পরিচালক আরও জানান, দারুণ এক সত্য ঘটনা নিয়ে এই ছবির কাহিনি। মার্কিন সংস্কৃতিতে এ এক দুর্দান্ত সময়। দারুণ সব চরিত্র তখন আমেরিকা জুড়ে। উডি গুথরি থেকে বব ডিলান, পিট সিগার থেকে জোয়ান বায়েজ। এসব তারকার চরিত্রই দেখা যাবে ছবিজুড়ে।

২০২০ সালে ঘোষণা হয়েছিল, এই বায়োপিকের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছেন টিমোথি চ্যালামেট। ছবির নাম আপাতত রাখা হয়েছে, ‘আ কম্পিলিট আননোন’। আগস্ট থেকে শুরু হবে ছবির শুটিং।


নিজেকে মনে হয় এক দলা মাংস

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
বিনোদন ডেস্ক

হলিউড অভিনেত্রী ও টপ মডেল এমিলি রাতাজকোভস্কি দ্য লস অ্যাঞ্জেলেস টাইমসকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, হলিউডকে বিদায় জানিয়েছেন তিনি। এই সুপার মডেল তার ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন হলিউড অভিনেতা বেন অ্যাফ্লেকের বিপরীতে, ডেভিড ফিঞ্চারের ছবি ‘গল গার্ল’ দিয়ে।

এ ছাড়া ‘উই আর ইয়োর ফ্রেন্ডস’, ‘আই ফিল প্রিটি’, ‘লায়িং অ্যান্ড স্টিলিং’ ছবিতেও অভিনয় করেছেন তিনি। কিন্তু ২০১৯ সাল থেকে আর তাকে কোনো ছবিতে দেখা যায়নি। এমিলি বলেন, ‘আমার কখনোই মনে হয়নি যে, আমি একজন শিল্পী। আর এটাই আমার আঙিনা।’ তার অভিনয় ছাড়া নিয়ে বলেন, ‘আমার কেবলই মনে হয়েছে আমার শরীরটা এক দলা মাংস। আর মানুষ সেটা নিয়ে মুচমুচে আলোচনা করছে। মনে হচ্ছে ‘স্তনই’ আমার পরিচয়!’

‘গন গার্লের’ পরে খুব কঠিনভাবেই নানা চরিত্র খুঁজছিলেন এমিলি। তাতে মনে হয়েছে, তথাকথিত নায়িকা হিসেবে নয়, বেশ সিরিয়াসলি অভিনয়ে দীর্ঘদিন ধরে চলতে চান এই অভিনেত্রী। কিন্তু তাকে সব সময়ই পার্শ্ব অভিনেত্রীর চরিত্র দেয়া হয়েছে। কিন্তু এটা তার চেষ্টার ত্রুটি নয়। গত কয়েক বছর ধরেই চেষ্টা করেছেন এবং অডিশন দিয়েছেন। কিন্তু ভালো চরিত্র পাচ্ছিলেন না। এমনকি রুবেন অস্টল্যান্ডের কান চলচ্চিত্র উৎসব বিজয়ী ‘ট্র্যায়াঙ্গেল অব স্যাডনেস’ ছবিতেও অডিশন দিয়েছিলেন।

হলিউডে একজন অভিনেত্রী হিসেবে কাজ বাগাতে রাতাজকোভস্কি বুঝতে পেরেছিলেন যে, তার নিজেকে হলিউডের শক্তিশালী পুরুষদের কাছে সমর্পণ করতে হবে। এ কারণেই বিদায় জানান এই জগতকে। রাগে-ক্ষোভে ২০২০ সালের দিকে তার এজেন্ট, ব্যবসায়িক মুখপাত্র ও ব্যবস্থাপককে বিদায় করে দেন।

তিনি বলেন, ‘আমি নিজেই আমার ফোন ধরতে পারি। আমি নিজেই সিদ্ধান্ত নিতে পারি। তোমাদের কাউকেই আমি আমার মন থেকে গ্রহণ করতে পারছি না। তোমরা সবাই নারীদের ঘৃণা কর।’

বিষয়:

বেকেটের নাটক করবেন রিভস

কিয়ানু রিভস
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
বিনোদন ডেস্ক

হলিউড অভিনেতাদের ব্রডওয়েতে মঞ্চনাটক করার খবর হরহামেশাই পাওয়া যায়। এবার সেই পথে হাঁটলেন শক্তিমান হলিউড অভিনেতা কিয়ানু রিভস। ‘জন উইক’ সিরিজখ্যাত এই অভিনেতা এর আগেও থিয়েটারে কাজ করেছেন।

পশ্চিমা গণমাধ্যম এসশোবিজ বলছে, আইরিশ নাট্যকার স্যামুয়েল বেকেটের বিখ্যাত অ্যাবসার্ড নাটক ‘ওয়েটিং ফর গডোতে’ অভিনয় করবেন রিভস। ব্রডওয়েতে এটি তার প্রথম কোনো মঞ্চনাটকে অভিনয় হতে যাচ্ছে। এর আগে ১৯৯৫ সালে কানাডার মানিটোবা থিয়েটার সেন্টার প্রডাকশনের প্রযোজনায় উইলিয়াম শেকসপিয়ারের নাটক ‘হ্যামলেট’-এ অভিনয় করেন।

কিয়ানু রিভসের ব্রডওয়েতে অভিনয়ের খবর অনেকগুলো গণমাধ্যম করলেও কেউই বলতে পারেনি, নাটকটি কারা প্রযোজনা করছে কিংবা কে পরিচালনা করবেন। শুধু অভিনয় নয়, মঞ্চনাটক দেখা পছন্দও করেন রিভস। গত বছর তার ‘ম্যাট্রিক্স’ ছবির সহশিল্পী লরেন্স ফিশবার্ন অভিনীত নাটক ‘আমেরিকান বাফেলো’ দেখতে গিয়েছিলেন তিনি। মিউজিক্যাল নাটকে তার অভিনয় করার খুব ইচ্ছা। কিন্তু তিনি গাইতে পারেন না। তাই এই ইচ্ছা নিজের কাছেই রেখে দিয়েছেন। এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন কিয়ানু রিভস। তিনি বলেন, ‘আমি মিউজিক্যালে অভিনয় করতে খুব পছন্দ করি। কিন্তু আমি গান গাইতে পারি না। আমি জানি না, কেউ আমাকে মিউজিক্যালে নেবে কিনা। কিন্তু আমি নিশ্চিত আমি চেষ্টা করতাম। মানে আমি গাইতে পারি একটু আধটু কিন্তু অত ভালো না আরকি। স্বপ্ন দেখতে তো দোষ নেই।’

এর আগে ব্রডওয়েতে ‘ওয়েটিং ফর গডো’ মঞ্চায়িত হয়েছিল নামকরা সব তারকাদের নিয়ে। প্যাট্রিক স্টুয়ার্ট, ইয়ান ম্যাকেলেন, জন টর্টোরো, এথান হাওয়াক, রবিন উইলিয়ামস প্রমুখ তারকারা অভিনয় করেছিলেন সেখানে।


অল্পের জন্য হাতছাড়া হয়নি ‘ওলভেরাইন’ চরিত্রটি

আপডেটেড ৮ এপ্রিল, ২০২৩ ১৫:৪৪
বিনোদন ডেস্ক

২০০০ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘এক্স-মেন’ চলচ্চিত্রের বিখ্যাত ‘ওলভেরাইন’ চরিত্রটিতে অভিনয়ের মাধ্যমে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেন অস্ট্রেলিয়ান অভিনেতা হিউ জ্যাকম্যান। এ ছবিটি জ্যাকম্যানকে ব্যাপক খ্যাতি এনে দিয়েছিল। আর ‘ওলভেরাইন’রূপে তার সর্বশেষ অভিনয় ছিল ২০১৭ সালের ‘লোগান’ সিনেমায়। তবে অল্পের জন্য এই বিখ্যাত চরিত্রটি তার হাতছাড়া হতে যাচ্ছিল আরেক তারকা জনি ডেপের কাছে।

হিউ জ্যাকম্যান অভিনীত ওলভেরাইন যে মার্ভেলের ইতিহাসে অনবদ্য একটি চরিত্র হয়ে থাকবে, তাতে কোনো সন্দেহ নেই। তবে অভিনেতাকে এই চরিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব দেয়ার আগে আরও কয়েকজন অভিনেতার কথা বিবেচনা করা হয়েছিল। অন্যরা সফল না হলেও জনি ডেপের এই ছবিতে অভিনয় প্রায় নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল। সে সময় জনি ডেপ প্রযোজক-পরিচালকের সবচেয়ে পছন্দের একজন ছিলেন এই চরিত্রের জন্য। যদিও দর্শকদের অনেকেই হয়তো হিউ জ্যাকম্যানকেই ‘ওলভেরাইন’ হিসেবে পারফেক্ট মনে করেন এবং শেষ পর্যন্ত এই চরিত্রের প্রস্তাব হিউ জ্যাকম্যানের ঘরেই গেছে।

বর্তমানে ‘ডেডপুল-৩’-এর কাজে ব্যস্ত অভিনেতা। ২০২৪ সালে মুক্তি পেতে চলা সেই ছবিতে দশম বার ‘ওলভেরাইন’ চরিত্রে দেখা যাবে তাকে। তারই মাঝে ত্বকের ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছেন, এ রকম একটা আশঙ্কায় ভেঙে পড়েছেন অভিনেতা।

বিষয়:

কানে স্করসেসির তারকাসমৃদ্ধ সিনেমা

আপডেটেড ৩ এপ্রিল, ২০২৩ ১৩:৪০
বিনোদন ডেস্ক

কান চলচ্চিত্র উৎসবে প্রিমিয়ার হবে তারকাসমৃদ্ধ হলিউড সিনেমা ‘কিলারস অব দ্য ফ্লাওয়ার মুন’। মার্টিন স্করসেসি নির্মিত ছবিতে একঝাঁক হলিউড অভিনেতাকে দেখা যাবে। ১৯৮৬ সালের পর দীর্ঘ সময় পেরিয়ে স্করসেসির সিনেমা কানে দেখানো হচ্ছে।

কান কর্তৃপক্ষ অবশ্য বলেনি যে, ‍ছবিটি অফিশিয়াল সিলেকশনে নাকি এর বাইরে। কারণ কান চলচ্চিত্র উৎসবে কেবল সিনেমা হলে প্রদর্শিত হবে, এমন সিনেমাই অফিশিয়াল সিলেকশনে অংশগ্রহণ করতে পারবে। এই ছবিটি স্ট্রিমিং জায়ান্ট দ্য অ্যাপল অরিজিনাল ফিল্ম। যদিও ছবিটি সিনেমা হলে প্রদর্শনের কথাবার্তাও চলছে। এটি হলে অফিশিয়াল সিলেকশনেও থাকতে পারে স্করসেসির সিনেমাটি।

একঝাঁক অভিনয়শিল্পী নিয়ে মাঠে নেমেছিলেন স্করসেসি। লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও, রবার্ট ডি নিরো, লিলি গ্লাডস্টোন, জেসি প্লেমনস, জ্যানি কলিনস, হিলিয়ান ডিওনসহ একাধিক অভিনয়শিল্পী আছেন ছবিতে। কান কর্তৃপক্ষ আশা করছে, ছবির পুরো ইউনিটই লাল গালিচা মাতিয়ে তুলবে। গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়ের সিনেমা হলে আগামী ২০ মে ছবিটির উদ্বোধনী প্রদর্শনী হবে।

সপ্তাহের শুরুতে অ্যাপল থেকে জানানো হয়, ‘কিলারস অব দ্য ফ্লাওয়ার মুন’ প্রথমে বিশ্বব্যাপী সিনেমা হলে বিশেষ প্রদর্শনী করার কথা। এ বিষয়ে প্যারামাউন্ট পিকচার্সের সঙ্গে একটি চুক্তিও হয়েছে। ৬ থেকে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত এই প্রদর্শনী চলবে। তারপরেই আসবে স্ট্রিমিং সাইটে।

ছবিটি নিয়ে উৎসব-প্রধান থিয়েরি ফ্রেমোর উচ্ছ্বাসও বেশ। তিনি বলেন, উৎসবের এবারের আসর নিশ্চিত করেছে যে, মার্টিন স্করসেসি তার নতুন ছবি নিয়ে হাজির হবেন। যা একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ।

ছবির দৈর্ঘ্য ৪ ঘণ্টা। একই নামের ডেভিড গার্নারের বেস্ট সেলিং বই অবলম্বনে ছবিটি তৈরি হয়েছে। যার স্ক্রিপ্ট লিখেছেন এরিক রোথ ও স্করসেসি নিজে। ১৯২০ সালের ওকলাহোমাকে দেখানো হবে ছবিতে। স্থানীয় মার্কিনিদের ওপর সিরিয়াল হত্যাকাণ্ডের প্রসঙ্গ উঠে আসবে ছবিটিতে।

১৯৭৬ সালে ‘ট্যাক্সি ড্রাইভার’ দিয়ে পাম দর পেয়েছিলেন মার্টিন স্করসেসি। ১০ বছর পরে ‘আফটার আওয়ার্স’ দিয়ে সেরা পরিচালকের পুরস্কার পেয়েছিলেন। এ ছাড়া ১৯৯৮ সালে জুরি হিসেবেও অশংগ্রহণ করেন এই পরিচালক।

বিষয়:

‘গ্ল্যাডিয়েটর টু’তে নেই রাসেল ক্রো

‘গ্ল্যাডিয়েটর’ ছবিতে রাসেল ক্রো
আপডেটেড ২ এপ্রিল, ২০২৩ ১৬:৪১
বিনোদন ডেস্ক

‘গ্ল্যাডিয়েটর’ ছবি মানেই রাসেল ক্রো। এই ছবিতে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে অস্কারও বাগিয়ে ছিলেন এই হলিউড অভিনেতা। কিন্তু ছবির সিকুয়েলে থাকছেন না তিনি। সম্প্রতি এটি নিশ্চিত করেছেন একটি অনুষ্ঠানে। এ বিষয়ে প্রতিবেদন করেছে পশ্চিমা বিনোদনবিষয়ক গণমাধ্যম ইন্ডিওয়্যার।

২০ বছর পর অবশেষে তৈরি হতে যাচ্ছে বিপুল জনপ্রিয় এই ছবির সিকুয়েল। সেই ছবিতে রাসেল ক্রো থাকবেন না, তা কি হয়! অপেক্ষাতেও ছিলেন এই অভিনেতা। কিন্তু শেষমেশ জানা গেল, তার সঙ্গে কেউ যোগাযোগই করেনি সিকুয়েল ছবির পক্ষ থেকে। আরটিএ রেডিওর অনুষ্ঠান ‘দ্য রায়ান টিব্রিডাই শো’তে এই অস্কারজয়ী অভিনেতা জানিয়েছেন, ছবির পরিচালক রিডলি স্কট ও সিকুয়েল টিম থেকে তার জন্য কোনো চরিত্রই রাখা হয়নি।

সিকুয়েলে দেখা যাবে পল মেসক্যালকে। তাকে দেখা যাবে লুইসিয়াসের জ্যেষ্ঠ চরিত্রে। যে কমোডাসের ভাতিজা। কমোডাসকে ম্যক্সিমাস হত্যা করে। ম্যাক্সিমাসের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন রাসেল ক্রো। ছবিতে ড্যানজেল ওয়াশিংটন ও ব্যারি কিওগানকেও দেখা যাবে।

রাসেল ক্রো বলেন, ‘আমি নিশ্চিত ছিলাম যে তারা আমাকে কিছু একটা বলবে। কিন্তু তারা আমার জন্য কিছুই হাতে রাখেনি।’ তিনি আরও যোগ করেন, এটা ওই ছবির একটা বর্ধিত অংশ। ম্যাক্সিমাসের মৃত্যুর পরের কাহিনি। সুতরাং তার এই ছবিতে অংশগ্রহণের কোনো সুযোগই নেই। পল মেসক্যালের ছবিতে যুক্ত হওয়াকে স্বাগত জানিয়েছেন ক্রো। ছবির কাহিনি শুরু হতে পারে তরুণ লুইসিয়াসকে দিয়ে। যে সাম্রাজ্যের দায়িত্ব নেয়ার জন্য এগিয়ে যাচ্ছে। রাসেল ক্রোর মতে, এটা খুবই দারুণ চিন্তা ছবির গল্প শুরু করার ক্ষেত্রে।

‘গ্ল্যাডিয়েটর টু’ ছবির গল্প লিখছেন ‘নেপোলিয়ন’ ছবির চিত্রনাট্যকার ডেভিড স্কার্পা। মূল ‘গ্ল্যাডিয়েটর’ থেকে থাকছেন ‍কস্টিউম ডিজাইনার, প্রোডাকশন ডিজাইনার ও রিডলি স্কট নিজে।


হাউস অব দ্য ড্রাগন: পর্ব কমবে দ্বিতীয় মৌসুমে

‘হাউস অব দ্য ড্রাগন’ সিরিজের একটি দৃশ্য। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ৩০ মার্চ, ২০২৩ ১৫:৩৯
বিনোদন ডেস্ক

‘গেম অব থ্রোনস’-এর প্রিক্যুয়েল ‘হাউস অব দ্য ড্রাগন’-এর দ্বিতীয় মৌসুমের পর্ব কমিয়ে আটটি করা হয়েছে। প্রথম পর্বে ছিল ১০টি পর্ব। পশ্চিমা বিনোদনভিত্তিক গণমাধ্যম ডেডলাইন বলছে, সিরিজটির দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা হিসেবে এটি করা হয়েছে। কারণ তৃতীয় মৌসুমে প্রিক্যুয়েলটির স্পিনঅফ তৈরির পরিকল্পনা করা হয়েছে।

এইচবিওর একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, গল্পের প্রয়োজনেই এই মৌসুমে আটটি পর্ব সাজানো হয়েছে। গল্পকে প্রাধান্য দিতেই অযথা পর্ব বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেননি প্রযোজকরা। ২০২৪ সালের দিকে যুক্তরাজ্যে দ্বিতীয় পর্বের প্রিমিয়ার হওয়ার কথা শোনা যাচ্ছে।

২০২২ সালের ২১ আগস্ট ‘হাউস অব দ্য ড্রাগন’ প্রিমিয়ার হয়। নতুন কোনো অরিজিনাল সিরিজ হিসেবে প্রিমিয়ারেই এটি ইতিহাস গড়ে। ২২ মিলিয়নের বেশি দর্শক একসঙ্গে দেখেছিলেন এটি।

জর্জ আর আর মার্টিনের উপন্যাস ‘ফায়ার অ্যান্ড ব্লাড’ থেকে তৈরি করা হয়েছে সিরিজটি। হাউস অব টারগারিয়ানের কাহিনি; যা ‘গেম অব থ্রোনস’-এর ২০০ বছর আগের কাহিনি। তুমুল জনপ্রিয় ‘গেম অব থ্রোনস’ ২০১৯ সালে আটটি মৌসুমে প্রচারিত হয়।

দ্বিতীয় মৌসুমে একটি বড় যুদ্ধ থাকবে। এখন পর্যন্ত চার মৌসুমের পরিকল্পনা করা হয়েছে। ‘গেম অব থ্রোনস’-এর মিগুয়েল স্যাপুচনিক থাকছেন দ্বিতীয় মৌসুমের পেছনে। সঙ্গে কো-ক্রিয়েটর হিসেবে থাকছেন রায়ান কন্ডাল। দ্বিতীয় মৌসুমে মূল দায়িত্বে থাকছেন কন্ডাল এবং নির্বাহী প্রযোজক হিসেবে থাকবেন স্যাপুচনিক।

বিষয়:

সাবেক প্রেমিক কী করছে, তা নিয়ে মাথাব্যথা নেই এই মডেলের

জিজি হাদিদ
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
বিনোদন ডেস্ক

জায়ান মালিক ও সেলেনা গোমেজ প্রেম করছেন। এই খবর চাউর চারদিকে। জায়ানের সাবেক প্রেমিকা সুপার মডেল জিজি হাদিদ জানিয়েছেন, সাবেক প্রেমিক কী করছেন, সে ব্যাপারে এখন তিনি একদমই ‘ডোন্ট কেয়ার’। এতে তার কোনোই সমস্যা নেই।

যুক্তরাজ্যের সাময়িকী মিরর বলছে, নিউ ইয়র্কে এই দুই পপ তারকাকে দেখা গেছে রেস্তোরাঁয়। সেখানে রাতের খাবার খাচ্ছিলেন তারা। ভক্তদের মাঝে এ নিয়ে আলোচনার ঝড় বইছে।

২৯ বছর বয়সী জিজির মত, মালিকের সঙ্গ এখন অতীত। সুতরাং সামনে এগিয়ে যাওয়াই মূল কথা। তিনি বিষয়টি মজার হিসেবেই দেখছেন। সাবেক ‘ওয়ান ডিরেকশন’-এর সদস্য জায়ান মালিকের সঙ্গে জিজি প্রেম করেন সাত বছর। ২০২০ সালে জিজি জানিয়েছিলেন, তারা বাবা-মা হচ্ছেন।

কিন্তু ২০২১ সালে তাদের বিচ্ছেদ হয়ে যায়। তবে সন্তানের দেখভাল করার দায়িত্ব সুন্দরভাবে পালন করার সিদ্ধান্ত নেন। মিররের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘জিজির কোনো সমস্যা নেই, জায়ান যার সঙ্গেই প্রেম করুক না কেন। তিনি এখন বেশ ফুরফুরে আছেন এবং তার মেয়ে খাই-এর মা হিসেবে দায়িত্ব পালন করে যাবেন।’

যদিও চলতি মাসের শুরুতে সেলেনা জানিয়েছিলেন তিনি কারও সঙ্গে প্রেম করছেন না। এমনকি তার কোনো ক্রাশও নেই। অন্যদিকে ২০২১ সালের অক্টোবরে জিজির সঙ্গে বিচ্ছেদ এবং তাদের মেয়ে খাই জন্ম নেয়ার পরে এখন পর্যন্ত একাই আছেন।

জায়ান ও সেলেনার মেসেজ চালাচালির খবর টিকটকে ভাইরাল হওয়ার পরেই তাদের প্রেমের খবর হওয়া শুরু হয়। একজন ভক্ত দাবি করেছেন, তাদের একসঙ্গে খেতেও দেখা গেছে।


বাবা হচ্ছেন ‘হ্যারি পটার’

ড্যানিয়েল র‌্যাডক্লিফ
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
বিনোদন ডেস্ক

‘হ্যারি পটার’খ্যাত অভিনেতা ড্যানিয়েল র‌্যাডক্লিফের জীবনে নতুন অধ্যায়ের শুরু হতে যাচ্ছে। বাবা হতে যাচ্ছেন ব্রিটিশ এই তারকা। প্রেমিকার সঙ্গে এক দশকেরও বেশি সময় ধরে প্রেম করছেন। ১০ বছর পর এবার নতুন সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছেন ড্যানিয়েল ও তার প্রেমিকা এরিন ডার্ক। অভিনেতার মুখপাত্র জানিয়েছেন, সন্তানসম্ভবা এরিন। শিগগির তাদের ঘর আলো করে আসছে প্রথম সন্তান।

২০১৩ সালে ‘কিল ইওর ডার্লিংস’ ছবিতে প্রথমবার একসঙ্গে কাজ করেন ড্যানিয়েল ও এরিন। ওই ছবির সেটেই বন্ধুত্ব। তারপর প্রেম। এরপর কেটে গেছে প্রায় এক দশক। ‘কিল ইওর ডার্লিংস’-এর সেটে সেই যে একে অপরের হাত ধরেছিলেন, তার পর থেকে একসঙ্গেই পথচলা ড্যান ও এরিনের। যদিও এই সম্পর্ককে ব্যক্তিগত পরিসরে রাখতেই পছন্দ করেন তারা। ‘হ্যারি পটার’-এর মতো জনপ্রিয় সিরিজ়ে অভিনয়ের কারণে সিনেপ্রেমীদের কাছে পরিচিত মুখ ড্যানিয়েল। অন্যদিকে ড্যানিয়েলের জনপ্রিয়তার ধারে কাছে না থাকলেও হলিউডে নিজের স্বতন্ত্র জায়গা তৈরি করেছেন আমেরিকান অভিনেত্রী এরিন ডার্ক।

অভিনয় করেছেন ‘গুড গার্লস রিভল্ট’, ‘বিসাইড স্টিল ওয়াটার্স’, ‘মুনশাইন’-এর মতো ছবি ও সিরিজে। ২০১৬ সালে ড্যানিয়েলের সঙ্গে ‘ডোন্ট থিংক টোয়াইস’ ছবিতেও অভিনয় করেন এরিন। তবে শুধু অভিনয় নয়, এরিনের সঙ্গে ভবিষ্যতে চিত্রনাট্য লেখার ইচ্ছা রয়েছে বলেও জানিয়েছেন ড্যানিয়েল।

ড্যানিয়েলের সাম্প্রতিক ছবি ‘উইয়ার্ড: দ্য অ্যাল ইয়ানকোভিচ’-এর প্রিমিয়ারে একসঙ্গে দেখা গিয়েছিল ড্যান ও এরিনকে। জীবনের নতুন অধ্যায় শুরু করতে যাচ্ছেন তারা। উপভোগ করছেন জীবনের অন্যতম সেরা সময়।


banner close