সোমবার, অক্টোবর ৩, ২০২২

কলকাতায় একটি অবসর জীবনযাপন করছি

কলকাতায় একটি অবসর জীবনযাপন করছি
অভিনেতা মোশররফ করিম।
অপূর্ণ রুবেল
প্রকাশিত

অপূর্ণ রুবেল

বেশ কিছুদিন ধরে কলকাতায় অবস্থান করছেন দেশের জনপ্রিয় অভিনেতা মোশাররফ করিম। শোনা যাচ্ছে, সেখানে তিনি ব্রাত বসুর নতুন ছবি ‘হুব্বা’র কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করছেন। খুব দ্রুতই দেশে ফিরে নতুন কাজে ঢুকবেন। তার আগে কলকাতা থেকে কথা হলো দৈনিক বাংলার সঙ্গে।

আপনি অনেক দিন ধরেই দেশের বাইরে।

হ্যাঁ। কিছুদিন মালয়েশিয়া কাটিয়ে এসেছি। দেশে ফিরে এক দিন পরেই কলকাতায়। এখন দেশে যাওয়ার জন্য মনটা ছটফট করছে। খুব দ্রুতই ফিরছি।

শোনা যাচ্ছে, ব্রাত বসুর হুব্বা নামের নামের সিনেমার শুটিং শুরু করেছেন।

পুরোদমে শুটিং শুরু হয়নি। অক্টোবর থেকে শুরু হবে। এখন যতটুকু হয়েছে বলে শোনা যাচ্ছে সেটা অন্যান্য কলাকুশলীদের। আমার অংশ অক্টোবর থেকে।

কিন্তু হুব্বা শ্যামল চরিত্রের একটা ছবি  সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে গেছে। সেখানে আপনাকে ভিন্নরূপে দেখা গেছে।

একটা ‍লুক সেট করা হয়েছিল। তখনকার ছবি। শুধু ছবিটা না, চরিত্রটা ভিন্নরকমের। চরিত্রটার মধ্যে আরোপিত কিছু নেই। গল্পটা একদম আলাদা। তাই চরিত্রটাও আলাদা। চরিত্রের যে লেয়ার সেটাও দর্শকরা উপভোগ করবেন বলেই আমার মনে হয়।

এক কথায় চরিত্রটা কেমন?

পশ্চিমবঙ্গের কুখ্যাত গ্যাংস্টার হুব্বা শ্যামলের জীবন অবলম্বনে তৈরি হচ্ছে সিনেমাটি। হুগলির গ্যাংস্টার হুব্বার চরিত্র ছিল বর্ণাঢ্য। সেটাই হলো আমার চরিত্র। জীবনে তো আমি অসংখ্য চরিত্র করেছি। কিন্তু কোনোটার সঙ্গে এই চরিত্রটার মিল নেই।

তাহলে এতদিন ধরে কলকাতায় শুধু লুকসেট?

এটাই আরকি। বলা যায় নিজেকে সময় দিচ্ছি। দেখছি। ঢাকায় ফিরেই তো ব্যস্ত হয়ে যাব। ব্যস্ততা তো আমাকে অবসর দেয় না। তাই কলকাতায় একটা অবসর জীবনযাপন করছি বলা যায়।

কলকাতায় তো আপনি আগেও কাজ করেছেন। সেখানে নির্মাতাদের সঙ্গে এ দেশের নির্মাতাদের কাজের কোনো পার্থক্য খুঁজে পান?

এটা আসলে বলার মতো কোনো বিষয় না। পার্থক্য তো থাকবেই। দেশেই তো এক নির্মাতার সঙ্গে আরেক নির্মাতার কাজের কোনো মিল নেই। দেশের বাইরের কীভাবে মিল থাকবে!

দেশে ফিরছেন কবে?

দু-একদিনের মধ্যেই। দেশে ফিরেই কাজে ঢুকব। দেশের ওটিটির জন্য একটা সিনেমার শুটিং শুরু করব। তারপরই নিয়ামুল মুক্তা পরিচালিত বৈদ্য সিনেমার শুটিং শুরু করব। এর মধ্যে আবার কলকাতা ফিরতে হবে হুব্বার জন্য।

তাহলে নাটকে কি আপনাকে পাওয়া যাবে না?

যাবে না কেন। আমি তো এমন অভিনেতা সামনে আসলে ভালো লাগলে সেটা করে ফেলি। তাই মাঝের সময়গুলোতে নাটকেই কাজ করব।

দেশে বেশ কিছু ভালো সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। দেখার সুযোগ হয়েছে কি?

না। মুক্তির আগে থেকেই আমি দেশের বাইরে। তবে আমি শুনেছি সিনেমাগুলোর কথা। খুব ভালো চলছে। দেশে ফিরেই দেখার পরিকল্পনা আছে।


শাকিবের সঙ্গে বিয়ের তারিখ জানালেন বুবলী

শাকিবের সঙ্গে বিয়ের তারিখ জানালেন বুবলী
যুক্তরাষ্ট্রের টাইমস স্কয়ারে শাকিব খান ও বুবলী। ছবি: সংগৃহীত
বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত

চিত্রনায়িকা বুবলী ও তার সন্তানের খবর নিয়ে আলোচিত ছিল ঢালিউড। সে আলোচনার রেশ এখনো কাটেনি। বুবলী তার সন্তানের ছবি ফেসবুকে দিচ্ছেন। ভক্তদের কাছে চেয়েছেন দোয়া। এমনকি সন্তান শেহজাদ খান বীরের নামে খুলেছেন একটি পেজও। এবার জানালেন তার জীবনের স্মরণীয় দুটি দিনের কথা। যার সঙ্গে মিশে আছে সন্তানের বিষয়টিও।

আজ ফেসবুকে স্বামী শাকিব খানের সঙ্গে তিনটি ছবি দিয়েছেন ফেসবুকে। ছবিগুলো যুক্তরাষ্ট্রের টাইমস স্কয়ারে তোলা। ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘এখন পর্যন্ত আমার জীবনের স্বরণীয় দুটো তারিখ’। একটি তারিখ হলো ২০১৮ সালের ২০ জুলাই আর অন্যটি ২০২০ সালের ২১ মার্চ। ওই পোস্টে বুবলী তারিখ দুটোর ব্যাখ্যাও লিখেছেন।

২০১৮ সালের ২০ জুলাই শাকিব খানের সঙ্গে তার বিয়ে হয়েছিল। এই পোস্টের মাধ্যমে এবারই প্রথম এই বিয়ের তারিখ প্রকাশ্যে আনলেন বুবলী। আর ২০২০ সালের ২১ মার্চ তাদের ছেলে শেহজাদ খান বীরের জন্মদিন। দুটো দিনই বুবলীর কাছে বিশেষ ও স্মরণীয়।

শাকিব খান ও বুবলী। ছবি: সংগৃহীত
শাকিব খান ও বুবলী। ছবি: সংগৃহীত

গত ৩০ সেপ্টেম্বর নিজের ছেলের কথা প্রকাশ্যে আনেন বুবলী ও শাকিব খান। ফেসবুক পোস্টে শাকিব খান ও বুবলী ছেলের সঙ্গে ছবি দিয়ে লেখেন, ‘আমরা চেয়েছিলাম একটি শুভ দিনক্ষণ দেখে আমাদের সন্তানকে সবার সম্মুখে আনতে। তবে আল্লাহ যা করেন ভালোর জন্যই করেন। সেই সুখবরটি জানানোর জন্য আর বেশিদিন অপেক্ষা করতে হয়নি। শেহজাদ খান বীর আমাদের সন্তান, আমাদের ছোট্ট রাজপুত্র। আমাদের সন্তান আমার গর্ব, আমার শক্তি। আপনাদের সবার কাছে আমাদের সন্তানের জন্য দোয়া কামনা করছি।’

জানা গেছে, বুবলী ২০২০ সালে শেহজাদ খানের জন্ম দেন। ওই সময় তিনি যুক্তরাষ্টের নিউইর্য়কে অবস্থান করছিলেন। সেখানকার লং আইল্যান্ড জ্যুইশ মেডিকেল হাসপাতালে ছেলের জন্ম দেন এ অভিনেত্রী। তারও মাস কয়েক আগে থেকে আড়ালে চলে যান বুবলী। সেই আড়াল ভেঙে প্রায় নয় মাস পর প্রকাশ্যে আসেন।

বেশ কয়েক বছর আগে থেকেই শাকিব খান ও বুবলীর প্রেমের গুঞ্জন শোনা যায়। তবে বিষয়টি তারা দুজনই অস্বীকার করেন। আড়াল ভেঙে এসে বুবলী প্রেম বিয়ে সন্তান প্রসঙ্গে সরাসরি কিছু বলেননি। এরই মধ্যে গত ২৭ সেপ্টেম্বর বুবলী তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে বেবি বাম্পের দুটি ছবি পোস্ট করেন। সেখানে তিনি লিখেন মি উইথ মাই লাইফ, থ্রো ব্যাক আমেরিকা।’

২০১৬ সালে ‘বসগিরি’ ছবিতে শাকিব খানের নায়িকা হয়ে প্রথমবার পর্দায় আসেন বুবলী। এর আগে তিনি সংবাদ উপস্থাপিকা হিসেবে টেলিভিশন চ্যানেলে কাজ করেছেন। তাদের দুজনকেই দেখা যাবে ‘লিডার আমি বাংলাদেশ’ ছবিতে।


‘বিয়ের জন্য এখনো প্রস্তুত নই’

‘বিয়ের জন্য এখনো প্রস্তুত নই’
মালাইকা অরোরা
বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত

প্রেমের বয়স কম হলো না মালাইকা অরোরা আর অর্জুন কাপুরের। ভক্তরা জানতে চান, কবে হবে তাদের বিয়ে! সম্প্রতি গণমাধ্যমের কাছ থেকে এমন প্রশ্নের মুখোমুখি হলে মালাইকা জানালেন, এখনো নাকি প্রস্তুতই না তিনি।

ভারতের মাসালা সাময়িকীকে মালাইকা বলেন, ‘আমি জানি, বিয়ের নিয়মটি বেশ সুন্দর। একই সময়ে আমি ভাবি না যে বিয়ের জন্য খুব তাড়াহুড়ো করতে হবে। কারণ এটা একটা সামাজিক চাহিদা, আবার চাপও। বিয়েটা সঠিক কারণেই করো। অনেক সময় বাবা-মা বিয়ে করতে চাপ দেয়। মানুষ বলে তোমার শরীরিকভাবে বিয়ের সময় হয়েছে। আমি মনে করি, এটা তখনই সুন্দর বিষয় হয় যখন সঠিক কারণ এসে উপস্থিত হয়। যখন আমাকে কেউ বিয়ের কথা বলে, আমার কাছে মনে হয়, আমি এখনো বিয়ের জন্য প্রস্তুতই হইনি!’

শুধু তা-ই নয়, প্রেমিক অর্জুনকে নিয়েও দিলখোলা কথা বলেছেন মালাইকা। ‘অর্জুনের ব্যাপারে সবচেয়ে বড় বিষয় হলো, ওর সঙ্গে আমার সম্পর্কটা দারুণ জমে। ও আমার সবচেয়ে সেরা বন্ধুও। সেরা বন্ধুকে ভালোবাসা আর তার প্রেমে পড়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ। অর্জুন আমাকে পেয়েছে, সে আমাকে বোঝে। আমি মনে করি, আমরা একে অপরের জন্য আনন্দদায়ক। আমি তার সঙ্গে জীবনের সবকিছুই খোলামেলা আলাপ করতে পারি। সম্পর্কের ক্ষেত্রে এটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দিক।’

মালাইকা বোনদের নিয়ে শিগগিরই শুরু হচ্ছে শো। সেখানে দেখা যাবে মালাইকা অরোরা ও তার বোন অমৃতা অরোর ব্যক্তি ও পারিবারিক জীবন। সেখানে দেখা যেতে পারে একসঙ্গে মালাইকার সাবেক স্বামী আরবাজ খান আবার বর্তমান প্রেমিক অর্জুন কাপুর।


নির্মাণ হবে ‘গণ্ডি’র দ্বিতীয় কিস্তি

নির্মাণ হবে ‘গণ্ডি’র দ্বিতীয় কিস্তি
‘গণ্ডি’ সিনেমাটিতে অভিনয় করেছিলেন সুবর্ণা মুস্তফা ও সব্যসাচী চক্রবর্তী।
বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত

পৃথিবীজুড়ে যখন করোনার থাবা আছড়ে পড়া শুরু করেছিল ঠিক তার আগ মুহূর্তে মুক্তি পেয়েছিল ‘গণ্ডি’ চলচ্চিত্রটি। নন্দিত পরিচালক ফাখরুল আরেফিন খান পরিচালিত এই সিনেমাটিতে অভিনয় করেছিলেন ফেলুদাখ্যাত পশ্চিমবঙ্গের অভিনেতা সব্যসাচী চক্রবর্তী এবং দেশের অভিনেত্রী ও সংসদ সদস্য সুবর্ণা মোস্তফা। দুজন মধ্যবয়সী মানুষের গল্পে ঢুকে পড়েছিল আরও বেশ কয়েকটি চরিত্র। তারা হলেন মাজনুন মিজান, অপর্ণা ঘোষ, আমান রেজা, পায়েল মুখার্জিসহ অনেকেই।

এমন অন্য রকম গল্পের সিনেমা দিয়ে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছিলেন পরিচালক। সেরা সংলাপ রচয়িতার পুরস্কার বগলদাবা করেছিলেন তিনি। তার সঙ্গে পার্শ্বচরিত্রে অভিনয়ের জন্য অপর্ণা ঘোষ এবং শিশুশিল্পী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছিল মুগ্ধতা মোরশেদ ঋদ্ধি। ছবিটি দর্শকও পছন্দ করেছিল বেশ। দেশে ও দেশের মুক্তি ও বেশকিছু পুরস্কারে ভূষিত হয়েছিল ছবিটি।

এসব সফলতা যখন ‘গণ্ডি’কে নিয়ে গেছে অন্য উচ্চতায়, তখনই পরিচালক ফাখরুল আরেফিন খান জানালেন নতুন খবর। তিনি এই মুহূর্তে পরিবারসহ অবস্থান করছেন লন্ডনে। সেখান থেকেই দৈনিক বাংলাকে জানালেন ‘গণ্ডি’ সিনেমার দ্বিতীয় কিস্তি আসছে। দ্বিতীয় কিস্তির জন্য শুটিংয়ের জায়গা চূড়ান্ত করতেই তার এই লন্ডনযাত্রা।

বলেন, “আমরা অনেক দিন ধরেই ‘গণ্ডি’ সিনেমার দ্বিতীয় কিস্তি নিয়ে ভাবছিলাম। সেটা চূড়ান্ত করেছি। স্ক্রিপ্টও চূড়ান্ত হয়েছে প্রায়। আমরা আগামী বছরের শুরুতেই শুটিংয়ের পরিকল্পনা করেছি।”

২০২০ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি মুক্তি পাওয়া ‘গণ্ডি’র বেশির ভাগ অভিনয়শিল্পী থাকছেন দ্বিতীয় কিস্তিতে। তাদের সঙ্গে থাকবেন আরও বেশ কয়েকজন নতুন অভিনয়শিল্পী। সেসব আপাতত চমক হিসেবেই রাখতে চাইলেন পরিচালক।

তবে জানালেন, সিনেমাটির ৯০ ভাগ শুটিং হবে লন্ডনে। বাকি ১০ ভাগ হবে বাংলাদেশে। সেভাবেই প্রস্তুত হয়েছে চিত্রনাট্য।

নামের বেলাতেও আসবে কিছুটা পরিবর্তন। সরাসরি ‘গণ্ডি ২’ রাখা হবে না। কাছাকাছি কোনো সমার্থক শব্দই হবে দ্বিতীয় কিস্তির নাম। তবে নামে পরিবর্তন হলেও গল্পে খুব বেশি পরিবর্তন হবে না। আগের ‘গণ্ডি’র ধারাবাহিকতাই রক্ষা করা হবে দ্বিতীয় কিস্তিতে।

কথা শেষ করার আগে আগে তিনি বলেন, ‘আমরা বেশ কয়েকটি শুটিং স্পট চূড়ান্ত করেছি। লন্ডনের সাউথ অন সিটিসহ বেশ কয়েকটি পার্ক চলবে ‘গণ্ডি’র ক্যামেরা। গল্পের প্রয়োজনেই আমাদের লন্ডনে শুটিং করতে হবে। কারণ, আগের গল্পের দ্বিতীয় ধাপটাই পর্দায় দেখবেন দর্শক।’

জানালেন সবকিছু ঠিকমতো এগেলো আগামী বছরের মাঝে বা শেষ দিকে সিনেমা হলে পৌঁছবে গণ্ডির দ্বিতীয় কিস্তি।


তবু সমালোচনা

তবু সমালোচনা
আনা ডে আরমাস। ছবি: সংগৃহীত
বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত
  • হলিউড

ভেনিস চলচ্চিত্র উৎসবে ১৪ মিনিট দর্শকরা হাততালি দিয়েছিলেন। আর গত ২৮ সেপ্টেম্বর নেটফ্লিক্সে মুক্তি পাওয়ার পরই একেবারে ঢল নেমেছে দর্শকের। গোটা কয়েক দিনেই তালিকায় একেবারে ১ নম্বরে চলে গেছে ‘ব্লন্ড’ ছবি।

তবু মেরিলিন মনরোর জীবনী নিয়ে এই ছবির পিছু ছাড়ছে না দুয়োধ্বনি। সমালোচকদের মতে, আচ্ছা একটা ছবি। একেবারে যৌনতা আর নিষ্ঠুরতা দিয়ে ভরা। পৃথিবীর অন্যতম বাজে ছবিগুলোর একটি।

“৩৬ বছর ধরে সব ধরনের অসম্মান আর ভয়াবহতা সহ্য করা সত্ত্বেও এটাই স্বস্তির বিষয় যে মেরিলিন মনরোকে ‘ব্লন্ড’-এ দেখানো অশ্লীলতা সহ্য করতে হয়নি। সাম্প্রতিক এই উদ্ভট যৌনতাকেন্দ্রিক বিনোদন তাকে শেষ করে দিত।” নিউইয়র্ক টাইমসের চলচ্চিত্র সমালোচক ম্যানোলা ডরগিসের মন্তব্য এমনই।

জয়েস ক্যারলের উপন্যাস অবলম্বনে ‘ব্লন্ড’ বানানো হয়েছে। সেখানে উঠে এসেছে মনরোর জীবনের নানা হৃদয়বিদারক ঘটনা, ইন্ডাস্ট্রিতে যৌন হেনস্তা ইত্যাদি। আনা ডে আরমাস ফুটিয়ে তুলেছেন মনরোকে। আরমাসের অভিনয়ের সবাই প্রশংসা করলেও ছবিকে বলেছেন যাচ্ছেতাই।

ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন গর্ভপাত বিশেষজ্ঞ স্টেফ হেরল্ড বলেন, ‘আমার দুর্ভাগ্য যে আমি গত রাতে নেটফ্লিক্সে ব্লন্ড দেখেছি। আমাকে বলতে হচ্ছে যে ছবিটি গর্ভপাতের বিরুদ্ধে বানানো। খুবই যৌনতায় ঠাসা আর ভয়ংকর।’

ছবির পরিচালক অ্যান্ড্রু ডমিনিক। টুইটারে ছবির বিরুদ্ধে ভয়ংকরভাবে খেপেছেন নেটিজেনরা। তাদের বক্তব্য, একজন নারীবিদ্বেষী পুরুষ এক নারীকে নিয়ে এমন একটি ছবি বানিয়েছেন যে বিষয়ে তার কোনো অভিজ্ঞতাই নেই।


ভালোই তো…

ভালোই তো…
রাশমিকা ও বিজয় দেবরাকোন্ডা।
বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত

অবশেষে মুখ খুললেন রাশমিকা। বিজয় দেবরাকোন্ডা আর রাশমিকা মন্দানার প্রেম নিয়ে উচ্ছ্বসিত ভক্তরা। এই তারকারা ছিলেন চুপ। কিন্তু উন্মাদনা এতটাই যে আর চুপ করে থাকতে পারলেন না ‘পুষ্পা’ ছবির অভিনেত্রী। বললেন, ‘ভালোই তো। তাই না…’

‘গীতা গোবিন্দম’, ‘ডিয়ার কমরেড’- এ দুজনের রসায়ন ভাসিয়ে নিয়ে গিয়েছিল ভক্তদের। ছবির রসায়নকে বাস্তব জীবনেও দেখতে চান ভক্তরা। তাই তাদের প্রেমের গুঞ্জন ভেসে বেড়ায়। এতদিন দুজন চুপ থাকলেও, ভেতরে ভেতরে তারাও যে বেশ মজা পাচ্ছিলেন তা বলা যায়। সম্প্রতি ম্যাশবেলের কাছে এক সাক্ষাৎকারে এ প্রসঙ্গে মুখ ‍খুললেন রাশমিকা। বললেন, ‘পুরো ব্যাপারটাই মিষ্টি। ভালোই তো। তাই না!’

রাশমিকা জানান, হায়দরাবাদে কাজ করতে গিয়ে তাদের আলাদা আলাদা দল তৈরি হয়েছে। যারা সবাই মিউচুয়াল ফ্রেন্ড। তিনি বলেন, ‘হায়দরাবাদে আমার একটা দল আছে। তারও একটা দল আছে। এর মধ্যে মিউচুয়াল ফ্রেন্ড আছে অনেক। এটাই আরকি। এটা ভালোই লাগে, যখন পুরো বিশ্ব মনে করে রাশমিকা আর বিজয়…।’

সামনে আর কোনো ছবিতে কি এই জুটিকে দেখা যাবে? সে ইঙ্গিতও দিলেন এই তারকা। বললেন, ‘আমার খুব শিগগির তার সঙ্গে কাজ করতে হবে। আমাদের জন্য যদি কোনো গল্প থাকে অবশ্যই আমাদের করা উচিত। খুব মজা হবে কাজটি। আমরা ভালো অভিনেতা। আমরা পরিচালককে হতাশ করি না।’

রাশমিকা ব্যস্ত গুডবাই ছবির মুক্তি নিয়ে। তার বলিউডে অভিষেক হবে ছবিটি দিয়ে। এটি মুক্তি পাবে ৭ অক্টোবর।