বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০২৩

নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে তানজিন তিশাকে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম

বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত
বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত : ২১ নভেম্বর, ২০২৩ ১৭:৩০

অভিনেত্রী তানজিন তিশার সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে অপেশাদার আচরণ ও বক্তব্যের প্রতিবাদে বিনোদন সাংবাদিকরা মঙ্গলবার বেলা আড়াইটার দিকে রাজধানীর কারওয়ান বাজারের সার্ক ফোয়ারার সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন আজ। বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকা, অনলাইন পোর্টাল টেলিভিশন ও রেডিওতে নিয়োজিত বিনোদন বিভাগের সংবাদকর্মীরা এই সমাবেশে অংশ নেন।

সমাবেশে তিশাকে ডিবি কার্যালয়ে সংবাদকর্মী মাজহারুল ইসলাম তামিমের বিরুদ্ধে করা আরোপিত অভিযোগ তুলে নিতে ও নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছেন সাংবাদিকরা।

এসময় সিনিয়র সাংবাদিক তানভীর তারেক বলেন, ‘তানজিন তিশার এমন অপেশাদার আচরণ মোটেই মেনে নেওয়া যায় না। সে যা করেছে তার জন্য তাকে ক্ষমা চাইতে হবে, অনুতপ্ত হতে হবে।’

প্রসঙ্গত, ঘটনার সূত্রপাত হয় তানজিন তিশার ‘আত্মহত্যাচেষ্টা’র খবর প্রকাশের মধ্য দিয়ে। ১৫ নভেম্বর মধ্যরাতে অচেতন তিশাকে তার বোন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেওয়ার পর এই খবর বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়।

তানজিন তিশা সর্বশেষ ২০ নভেম্বর ডিবি অফিসে গিয়ে সাইবার বুলিংয়ের অভিযোগ তোলেন চ্যানেল টোয়েন্টিফোর-এর সাংবাদিক মাজহারুল ইসলাম তামিমের বিরুদ্ধে। এর আগে তিশা সাংবাদিকদের ‘উড়িয়ে’ দেওয়ার হুমকি দেন, আবার সোশ্যাল হ্যান্ডেলে এর জন্য ক্ষমাও প্রার্থনা করেন। যদিও সেই ক্ষমা চাওয়ার পোস্ট পরবর্তীতে মুছেও ফেলেন তিনি।


ফেরদৌসের প্রচারণায় ঢাকায় আসবেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত

আপডেটেড ২৯ নভেম্বর, ২০২৩ ০০:০৮
বিনোদন প্রতিবেদক

প্রথমবারের মতো জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন একাধিকবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া ঢাকাই সিনেমার অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদ। ইতোমধ্যেই নির্বাচনী প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন দুই বাংলার জনপ্রিয় এ তারকা। এর মধ্যেই কলকাতার একটি সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেছেন ফেরদৌস। যেখানে তিনি জানিয়েছেন, নির্বাচনের খবরে টলিউডের অনেক তারকাই শুভেচ্ছা বার্তা পাঠিয়েছেন।

ফেরদৌস বলেন, ‘টলিউডে আমার অনেক বন্ধু রয়েছে। ঋতুপর্ণা (ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত) আমার খুব ভালো বন্ধু। ও তো বলেছে প্রয়োজনে ঢাকায় এসে আমার জন্য ভোটের প্রচারও করবে। কলকাতায় যে কাণ্ড ঘটিয়েছিলাম, সেটা আমি ওকে মনে করিয়ে দিই।’

২০১৯ সালে ভারতের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিয়ে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন; সে কথাই ঋতুপর্ণাকে স্মরণ করিয়ে দেন ফেরদৌস।

এ বিষয়ে ফেরদৌস বলেন, ‘কলকাতাকে সব সময়ই দেশের বাইরে আমার দেশ হিসেবে দেখেছি। সেখান থেকে প্রায় দুই বছর আমি দূরে ছিলাম। একাধিক সিনেমার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিতে হয়েছিল। ওই একটা ভুলের জন্য আমাকে প্রচুর ভুগতে হয়েছে। আমি এখনো ওই ঘটনার জন্য দুঃখপ্রকাশ করি। কারণ আমি তখন নিয়মকানুন জানতাম না। কলকাতায় দীর্ঘদিন কাজের ফলে আমি দুই বাংলারই কাছের মানুষ। যারা আমাকে নিয়ে গিয়েছিলেন, তারাও হয়তো আবেগের বশবর্তী হয়ে বিষয়টা খেয়াল করেননি।’

প্রসঙ্গত, ২০০১ সালে ‘ওস্তাদ’ সিনেমায় প্রথমবার জুটি বেঁধে অভিনয় করেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত ও ফেরদৌস। এরপর এ দুই তারকার বন্ধুত্ব সময়ের সঙ্গে সঙ্গে আরও মজবুত হয়েছে। ঢাকায় এলেই ফেরদৌসের কথা স্মরণ করেন ঋতুপর্ণা।


স্বতন্ত্র হিসেবেই লড়বেন মাহি

ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
বিনোদন প্রতিবেদক

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনের ঘোষণা দিয়েছেন জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। নির্বাচনে রাজশাহী-১ (তানোর-গোদাগাড়ী) আসনের প্রার্থী হতে সোমবার (২৭ নভেম্বর) সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও তানোর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিল্লাল হোসেনের কার্যালয় থেকে মাহিয়া মাহির মনোনয়নপত্র তোলা হয়েছে। সেখানে জাতীয় পরিচয়পত্র অনুসারে প্রার্থী হিসেবে মাহিয়া মাহির নাম লেখা হয়েছে শারমিন আক্তার নিপা। স্বতন্ত্রভাবে মনোনয়নপত্র তোলার বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিশ্চিত করেছেন মাহি নিজেই।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেওয়া এক ভিডিও বার্তায় মাহি বলেন, ‘আমরা যারা মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলাম, তাদেরকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী (আমার নেত্রী) দিক নির্দেশনা দিয়েছেন যে, এই নির্বাচন যেন একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হয়। এই নির্বাচনে যাতে একটা উৎসবমুখর পরিবেশ তৈরি হয়। যারা নির্বাচন করতে চায় (অর্থাৎ অন্যান্য দল-মত যারা ভেতরে পোষণ করে), তাদেরকে আমরা যেন উৎসাহ দিই, তারা যেন নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে,সেটা যেন আমরা নিশ্চিত করি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশনা আসার পরে আমার এলাকা তথা রাজশাহী-১ এর অনেক মানুষ আছেন, যারা আমাকে ফোন করছেন। বলছেন, আপনি আসেন। আপনি ইলেকশন করেন। অনেক তরুণরা আমাকে উৎসাহ দিচ্ছে। সুতরাং তাদের জন্য এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি এই নির্বাচনে রাজশাহী-১ থেকে স্বতন্ত্র ইলেকশন করব।’

এ সময় নির্বাচনী এলাকাবাসীদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে মাহি বলেন, ‘আমরা তো আসলে কম খাই, কম খেতে পছন্দ করি-যদি কেউ সম্মান করে। সম্মানটাকে অনেক গুরুত্ব দিই আমরা। কথা দিচ্ছি, যদি নির্বাচিত হই আমার এলাকার মানুষকে সম্মানিত করব। শিক্ষক তার সম্মান পাবে। কৃষক সম্মান পাবে। প্রত্যেকটা মানুষ সম্মান নিয়ে এই এলাকায় বসবাস করবে, কাউকে ভয় পেয়ে নয়। মানুষের জন্য আমি মানবিক কাজ করে যাচ্ছি। এখন যদি তারা চান,তাহলে আমাকে ভোট দেবেন।’

উল্লেখ্য,আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে রাজশাহী-১ ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র তুলেছিলেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি।


সামরিক প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন বিটিএস তারকা ভি

আপডেটেড ২৮ নভেম্বর, ২০২৩ ১৪:৩৫
বিনোদন ডেস্ক

বিশ্বের তরুণ প্রজন্মের কাছে তুমুল জনপ্রিয় দক্ষিণ কোরিয়ার ব্যান্ডদল বিটিএস। এরই মধ্যে ব্যান্ডটির প্রতিটি সদস্যই আলাদা আলাদাভাবেও শ্রোতাদের মনে জায়গা করে নিয়েছেন। এই পরিবারের অন্যতম এক সদস্য ‘ভি’ ওরফে কিম তেহিউং। কিছুদিন আগেই আর এম, জিমিন, জাংকুকদের পথ ধরে এবার একক গানে নাম লিখিয়েছেন তিনি। স্টেজে লম্বা চুলে ঝাঁকুনিসহ তার গেটআপেও যেন মুগ্ধ ভক্তরা। ২৬ নভেম্বর তার ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে মেঝেতে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা চুলের একটি ছবি শেয়ার করেছেন। ছবিটি বিটিএস ভক্ত মহলে বেশ সাড়া ফেলে।

বাধ্যতামূলক সামরিকসেবায় যোগদানের প্রস্তুতি হিসেবে তাকে চুল কেটে ফেলতে হয়েছে বলে অনুমান করা হচ্ছে। অনেক ভক্ত তার এই পরিবর্তন নিয়ে বিরূপ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। তবে কেউ কেউ প্রিয় তারকাকে নতুন রূপে দেখতে অধীর আগ্রহও জানান।

দক্ষিণ কোরিয়ার ১৮ থেকে ২৮ বছর বয়সী যুবকদের বাধ্যতামূলকভাবে ২ বছরের জন্য সামরিক বাহিনীতে কাজ করার আইন রয়েছে। তবে এর আগে বিটিএস সদস্যদের এ বিষয়ে কিছুটা ছাড় দেয়া হলেও এবার একে একে তারা সবাই সামরিক বাহিনীতে যোগদান করছেন। বিগহিট মিউজিক কোম্পানি গত ২২ নভেম্বর একটি আনুষ্ঠানিক বিবৃতির মাধ্যমে ব্যান্ড সদস্য আরএম, জিমিন, ভি এবং জাংকুকের বাধ্যতামূলক সামরিকসেবায় তালিকাভুক্তি প্রক্রিয়ার আরম্ভ ঘোষণা করেছে। পরে জাংকুক তার সামরিক প্রশিক্ষণে যোগদানের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

বিগহিট এজেন্সি আনুষ্ঠানিকভাবে এক বিবৃতিতে জানায়, ‘আমরা আমাদের ভক্তদের জানাতে চাই যে, আর এম, জিমিন, ভি ও জাংকুক সামরিক তালিকাভুক্তির প্রক্রিয়া শুরু করেছেন। শিল্পীরা তাদের সামরিক দায়িত্বগুলো পুরোপুরি পালনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন। আমরা নির্দিষ্ট সময় পরপর আপনাদের এ বিষয়ে আপডেট দিয়ে যাব।’

ধারণা করা হচ্ছে, সামরিকসেবায় যোগদানের আগে ভি কোনো এক আন্তর্জাতিক সংগীতশিল্পীর সঙ্গে গান প্রকাশ করতে পারেন। ব্যান্ডের অন্যান্য সদস্য জিন, জেহোপ এবং সুগা ইতোমধ্যে সামরিক প্রশিক্ষণে নিয়োজিত আছেন।


নেতিবাচক চরিত্রে দীপা খন্দকার

আপডেটেড ২৮ নভেম্বর, ২০২৩ ১৪:৩৫
বিনোদন প্রতিবেদক

দর্শকপ্রিয় নাট্যাভিনেত্রী দীপা খন্দকার মিডিয়াতে পথচলার ২৫ বছর অতিবাহিত করছেন। আজ ২৮ নভেম্বর এই মডেল অভিনেত্রীর জন্মদিন। তবে প্রতিবারের মতো এবারও নিজের জীবনের বিশেষ এই দিন নিয়ে বিশেষ কোনো আয়োজন করছেন না বলেই জানান এই সিনিয়র তারকা। জন্মদিন প্রসঙ্গে দীপা বলেন, ‘জন্মদিন উপলক্ষে কোনো কাজ রাখিনি। আমার স্বামী (অভিনেতা শাহেদ আলী), দুই সুন্তান আদ্রিক ও আরোহীকে নিয়েই দিনটি বিশেষভাবে উদযাপন করার চেষ্টা করব। আর কিছু কাছের মানুষ তো আসবেই- এটা আমার আত্মবিশ্বাস। কারণ প্রতিবছরই জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানাতে কয়েকজন কাছের মানুষ ও সহকর্মী ফুল ও নানা উপহারসামগ্রী নিয়ে হাজির হন আমার বাসায়। এটা সত্যিই আমার জন্য অন্যরকম এক ভালোলাগা। এ ছাড়া সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও ভক্ত-অনুরাগীরা শুভেচ্ছা জানান। জন্মদিনে সবার কাছে দোয়া চাই।’

দীপা খন্দকার বাংলাদেশের নাট্যাঙ্গন এবং সিনেমার এমনই একজন অভিনেত্রী, যিনি তার অভিনয় জীবনের দীর্ঘ ২৫ বছরের পথচলায় কখনো অভিনয়ে বিরতি নেননি। কখনো কখনো পুরো মাসজুড়ে তার ব্যস্ততা ছিল আবার কখনো কখনো কাজ একটু কমিয়ে সংসারে সময় দিয়েছেন। তবে কখনোই তিনি অভিনয় থেকে দূরে সরে যাননি। কারণ অভিনয়ই তার কাছে মনেপ্রাণে নেশা, পেশা। নিজেকে একজন অভিনেত্রী হিসেবেই তাই সবসময় ভীষণ স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন।

সিনেমার পর এবার নাটকে ভিলেন চরিত্রে অভিনয় করছেন দীপা খন্দকার। দীপ্ত টিভিতে চলতি ধারাবাহিক নাটক সাজ্জাদ সুমন পরিচালিত ‘মাশরাফি জুনিয়র’ নাটকে নেতিবাচক চরিত্রে দেখা মিলবে তার। দীপা খন্দকার বলেন, ‘নাটকে যদিও আমার শুরুটা পজিটিভ উপস্থিতি দিয়েই। তবে এই নাটকে আমার চরিত্রটি মূলত নেগেটিভ। আমি জেনেবুঝেই এই চরিত্রে কাজ করার জন্য আগ্রহী হয়ে উঠি। এরই মধ্যে ধারাবাহিকটির তিন দিনের শুটিংয়ে আমি অংশ নিয়েছি। সাজ্জাদ সুমনের পরিচালনায় এর আগে কাজ করেছি কি না ঠিক মনে নেই। কিন্তু এবার কাজ করে মনে হলো বেশ গুছিয়ে কাজ করে। আমার কাছে ভালো লেগেছে। আর ধারাবাহিকটি এরই মধ্যে বেশ দর্শকপ্রিয়তাও পেয়েছে। আশা করছি নাটকে আমার ভিন্ন ধরনের উপস্থিতিও দর্শকের ভালো লাগবে।’

বিষয়:

ঢাকায় আসছেন শর্মিলা ঠাকুর

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
বিনোদন প্রতিবেদক

আসন্ন ২২তম ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব উপলক্ষে ঢাকায় আসছেন বলিউডের খ্যাতিমান অভিনেত্রী শর্মিলা ঠাকুর। আগামী বছরের ২০ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে এ চলচ্চিত্র উৎসব। চলবে ২৮ জানুয়ারি পর্যন্ত। উৎসবের এশিয়ান কম্পিটিশন বিভাগের জুরি হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন শর্মিলা।

উৎসব কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এশিয়ান কম্পিটিশন বিভাগে শর্মিলার সঙ্গে বিচারক হিসেবে থাকবেন আরও চারজন। তারা হলেন রাশিয়ান প্রযোজক আনা সালাসিনা, চায়নিজ চলচ্চিত্র বিশেষজ্ঞ ও প্রযোজক শি চুয়ান, বাংলাদেশি নির্মাতা সামিয়া জামান এবং থাইল্যান্ডের নির্মাতা ও প্রযোজক টম ওয়ালার।

ঢাকা চলচ্চিত্র উৎসবের পরিচালক আহমেদ মুজতবা জামাল বলেন, ‘২০ থেকে ২৮ জানুয়ারি উৎসব চলাকালে ঢাকায় আসবেন শর্মিলা ঠাকুর। উৎসবে উপস্থিত থাকবেন তিনি। এশিয়ান কম্পিটিশন বিভাগে জমা পড়া সিনেমাগুলো দেখে বিচারক হিসেবে তার রায় জানাবেন।’

শর্মিলা ঠাকুর ছাড়াও এবারের ঢাকা উৎসবে দেখা যাবে বিশ্ব চলচ্চিত্রের একাধিক খ্যাতিমান ব্যক্তিত্বকে। উৎসবে চলচ্চিত্র নির্মাণের ওপর মাস্টারক্লাস নিতে ঢাকায় আসবেন ‘চিলড্রেন অব হ্যাভেন’ খ্যাত ইরানের বিখ্যাত পরিচালক মাজিদ মাজিদি। আরও দুটি মাস্টারক্লাস নেবেন পশ্চিমবঙ্গের নির্মাতা, অভিনেতা ও সংগীতশিল্পী অঞ্জন দত্ত ও চীনের চলচ্চিত্র বিশেষজ্ঞ শি চুয়ান।

এবার ঢাকা উৎসবের এশিয়ান কম্পিটিশন বিভাগে স্থান পাওয়া সিনেমাগুলো থেকে সেরা সিনেমা, সেরা নির্মাতা, অভিনেতা, অভিনেত্রী, চিত্রনাট্যকার ও চিত্রগ্রাহক নির্বাচন করবেন তারা।

চলচ্চিত্র নিয়ে দেশের বৃহত্তম আয়োজন ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব নিয়মিতভাবে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ১৯৯২ সাল থেকে। ‘নান্দনিক চলচ্চিত্র, মননশীল দর্শক, আলোকিত সমাজ’ স্লোগান নিয়ে উৎসব আয়োজন করে আসছে রেইনবো ফিল্ম সোসাইটি। আসন্ন ২২তম আসরে থাকছে ৭৫টি দেশের ২৫০টির বেশি সিনেমা।


এবার ডিপফেকের শিকার আলিয়া ভাট

আপডেটেড ২৮ নভেম্বর, ২০২৩ ০০:০৬
বিনোদন ডেস্ক

নেট দুনিয়ায় এখন নতুন বিপদের নাম ভুয়া ভিডিও। এর আগে অভিনেত্রী রাশমিকা মান্দানা, কাজল, সারা টেন্ডুলকার, ক্যাটরিনা কাইফ, শিল্পপতি রতন টাটার মতো ব্যক্তিত্বদের ‘আপত্তিকর’ ভিডিও প্রকাশ হয়েছে। এখন এই তালিকায় যুক্ত হলো বলিউড অভিনেত্রী আলিয়া ভাটের নাম। আপত্তিকর এসব ভিডিও নেট দুনিয়ায় হু হু করে ছড়িয়ে পড়ছে। বিশেষ করে বলিউড নায়িকারা এই কুরুচিকর ভিডিও নির্মাণের শিকার হচ্ছেন। আলিয়ার ভিডিও দ্রুত ভাইরাল হচ্ছে। ইন্টারনেটে ভাইরাল হওয়া ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, একজন নারী নীল রঙের ফুল ছাপা কো-অর্ড সেট পরে আধাশোয়া অবস্থায় আছেন। আর মেয়েটি ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে অশ্লীল ইঙ্গিত করছেন। ওই নারীর চেহারা আলিয়ার মতো লাগছে। তবে একটু গভীরভাবে দেখলে বোঝা যাবে যে, এই ভিডিওর নারীটি আসলে আলিয়া নন।

এই বলিউড নায়িকার মুখ অন্য কোনো নারীর শরীরের ওপর সম্পাদনা করে বসানো হয়েছে। প্রযুক্তির অপব্যবহার করে এ ধরনের ভিডিও বানানোর ট্রেন্ড এখন দেখা যাচ্ছে।

ভারতের পুলিশ, প্রশাসন এর ওপর কড়া পদক্ষেপ নিতে কোমর বেঁধে নেমে পড়েছে। তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব জানিয়েছেন, এসব ভুয়া ভিডিও গণতন্ত্রের জন্য নতুন এক বিপদ। আর সরকার এ ধরনের ভিডিওর সঙ্গে মোকাবিলা করার জন্য খুব শিগগিরই নিয়ম জারি করবে।
এর আগে রাশমিকা মান্দানার ডিপফেক ভিডিও ভাইরাল হতেই নেট দুনিয়ায় হুলুস্থূল পড়ে গিয়েছিল। এই প্যান ইন্ডিয়া নায়িকা এ ধরনের ভিডিও দেখার পর জানিয়েছিলেন, তিনি রীতিমতো চিন্তিত।

রাশমিকা টুইটারে লিখেছিলেন, ‘সত্যি বলতে, এ ধরনের ভিডিও শুধু আমার জন্য নয়, সবার জন্য ভয়ের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। প্রযুক্তির অপব্যবহারের কারণে অনেক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হচ্ছে আমাদের।

একজন নারী আর অভিনেত্রী হিসেবে আমি আর আমার পরিবার ও বন্ধুবান্ধবদের কাছে কৃতজ্ঞ, যাঁরা আমাকে সুরক্ষিত রাখছেন। কিন্তু স্কুল বা কলেজজীবনে আমার সঙ্গে এ ঘটনা ঘটলে আমি তা করতে পারতাম না।’ এই অভিনেত্রীর ভুয়া ভিডিওটি নিয়ে তদন্তে নেমেছে পুলিশ। রাশমিকা ছাড়াও কাজলের সঙ্গে একই ঘটনা ঘটেছে। শুধু তা-ই নয় ‘টাইগার থ্রি’ ছবির ক্যাটরিনা কাইফের একটি সম্পাদনা করা ছবি ভাইরাল হয়েছিল।


নতুন পরিচয়ে কুসুম শিকদার

আপডেটেড ২৮ নভেম্বর, ২০২৩ ০০:০৬
বিনোদন প্রতিবেদক

একসময় নাটক ও চলচ্চিত্রে সরব উপস্থিতি ছিল কুসুম শিকদারের। পাঁচ বছর আগে হঠাৎ ছন্দপতন, অভিনয় থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন তিনি। বিরতির পর নতুন রূপে হাজির হচ্ছেন তিনি। ‘শরতের জবা’ শিরোনামের একটি সিনেমা দিয়ে ক্যারিয়ারে প্রথমবার সিনেমার প্রযোজক, পরিচালক ও চিত্রনাট্যকার হিসেবে নাম লিখিয়েছেন কুসুম ।

ছবিটি নির্মিত হচ্ছে কুসুমের লেখা 'অজাগতিক ছায়া' গল্পগ্রন্থ অবলম্বনে। কুসুমের সঙ্গে সিনেমাটি যৌথভাবে পরিচালনা করেছেন সুমন ধর। পাশাপাশি সিনেমাটিতে গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্রে অভিনয়ও করছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এই অভিনেত্রী। এর মাধ্যমে অনেক দিন পর অভিনয়ে দেখা যাবে এই মডেল-অভিনেত্রীকে। কুসুমের বিপরীতে রয়েছেন ইয়াশ রোহান।

কাজ নিয়ে হইচই পছন্দ করেন না বলেই চুপিসারে নিজের পরিচালিত ও প্রযোজিত প্রথম সিনেমার দৃশ্যধারণ শেষ করেছেন কুসুম। এই অভিনেত্রী জানালেন, এরই মধ্যে সিনেমার দৃশ্যধারণ ও ডাবিং শেষ হয়েছে। এবার মুক্তির অপেক্ষা। নতুন বছরের শুরুতে তার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান পহরডাঙ্গা পিকচার্স থেকে সিনেমাটির মুক্তির পরিকল্পনা করছেন বলে জানান কুসুম শিকদার।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘প্রথম সবকিছু তুলনাহীন। সিনেমাটি দিয়ে নতুন পরিচয়ে সবার সামনে আসতে যাচ্ছি। এ কারণে দর্শকরা অপেক্ষা করছেন এর জন্য। তাদের অপেক্ষার পালা শিগগিরই শেষ হচ্ছে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে নতুন বছরের শুরুতেই সিনেমাটি মুক্তি দিতে পারব।’

কাজের অভিজ্ঞতা নিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘শরতের জবা’ আমার স্বপ্নের প্রজেক্ট। ২০০২ সাল থেকে ক্যামেরার সামনে কাজ করছি। নিজের প্রোডাকশন হাউস থেকে সিনেমা বানানোর পরিকল্পনা আগে থেকেই ছিল। সেই ইচ্ছা পূরণ হয়েছে। শুটিংয়ের পুরো সময় পরিচালনা বেশ উপভোগ করেছি। তবে প্রযোজনা ছিল চ্যালেঞ্জিং। একসঙ্গে অভিনয়, পরিচালনা ও প্রযোজনা নিয়ে চাপ ছিল। আগে আমাকে শুধু অভিনয় নিয়ে ভাবতে হতো। এ সিনেমা শেষ করতে গিয়ে আমাকে একসঙ্গে অনেক কিছু সামলাতে হয়েছে। এত বড় টিম, তাদের থাকা-খাওয়া, আর্থিক বিষয়াদিও খেয়াল রাখতে হয়েছে। এখন সিনেমা মুক্তি, সেন্সর পর্ব, কীভাবে প্রচারণা চালাব– তা নিয়েও ভাবতে হচ্ছে। চেষ্টা করেছি সাধ্যমতো এটি নির্মাণ করতে। আশা করছি, দর্শক সিনেমাটি দেখে নিরাশ হবেন না।


স্বাগতম স্বাগতা!

আপডেটেড ২৭ নভেম্বর, ২০২৩ ১৭:২৮
বিনোদন প্রতিবেদক

আলোচিত অভিনেত্রী ও সংগীতশিল্পী জিনাত সানু স্বাগতাকে এবার দেখা যাবে পরিচালক হিসেবে। বিটিভির ‘ছোট ছবি, বড় স্বপ্ন’ প্রকল্পের আওতায় একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণের মাধ্যমে প্রথমবারের মতো পরিচালনায় আসছেন তিনি। স্বাগতা পরিচালিত প্রথম সিনেমার নাম ''অতএব''।

এ প্রসঙ্গে স্বাগতা বললেন,''পুরো বিষয়টিই আমার জন্য দারুণ আনন্দের মাসখানেক আগে বিটিভির ''ছোট ছবি, বড় স্বপ্ন'' প্রকল্পের সার্কুলেশন দেখে চিত্রনাট্যটি জমা দিয়েছিলাম।প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত হওয়ার পর সাক্ষাৎকারের জন্য ডাক আসে। সব প্রক্রিয়া শেষ করে অবশেষে ২৩ নভেম্বর বিটিভির পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয়, নির্বাচিত হয়েছে আমার চিত্রনাট্যটি। এখানে আর একটা বলে রাখতে চাই সেটা হলো আমি ক্যামেরার পেছনে নিয়মিতভাবে কাজ করার ইচ্ছা আছে আমার।''

আর নিজের এই স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নিয়ে স্বাগতা বলেন,''এটি ভালোবাসার গল্প। রোমিও-জুলিয়েট, শিরি-ফরহাদের মতো ব্যর্থ প্রেমের গল্প। সামাজিক বৈষম্যের কারণে প্রকৃত ভালোবাসা পূর্ণতা না পাওয়ার গল্পই দেখা যাবে। পরিচিত একটি গল্প। তবে দেখাতে চাই আমার মতো করে।’

কথা প্রসঙ্গে স্বাগতা জানালেন, এই সিনেমায় কারা অভিনয় করবেন, তা এখনো চূড়ান্ত হয়নি। নতুন শিল্পীদের নিয়েই কাজটি করতে চান তিনি।

প্রসঙ্গত,স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিল্ম অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগে পড়েছেন স্বাগতা। মাস্টার্সের অংশ হিসেবে একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য সিনেমা তৈরির কথা ছিল। অতএব গল্পটি তাঁর তখনকার লেখা। এখনো মাস্টার্স শেষ করা হয়ে ওঠেনি স্বাগতার। ফলে এটিও এত দিন তৈরি করা হয়নি।


পপ তারকা ক্রিসের ১৩ বছর কারাদণ্ড বহাল

আপডেটেড ২৭ নভেম্বর, ২০২৩ ১৩:১০
বিনোদন ডেস্ক

কানাডিয়ান পপ তারকা ক্রিস উ-কে ধর্ষণসহ একধিক অপরাধের জন্য ১৩ বছরের কারাদণ্ডের রায় দিয়েছিলেন চীনের এক আদালত। গত বছরের নভেম্বরে দেয়া সেই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন ক্রিস উ। এই রায়ের বিপরীতে আপিল করেও রেহাই পাননি এই পপ তারকা। সেই আপিল খারিজ করে দিয়েছেন দেশটির আরেক আদালত। ফলে ১৩ বছর কারাগারেই কাটাতে হবে এই শিল্পীকে। শুক্রবার রায়ের জন্য সেখানে উপস্থিত ছিলেন ক্রিসের পরিবার, ঘনিষ্ঠজন এবং চীনে কানাডিয়ান দূতাবাসের কর্মকর্তারা। ২০২১ সালের জুলাইয়ে চীনের ১৮ বছর বয়সী এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে ক্রিসকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সে সময় পুলিশের দেয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়, তিনি যৌনতায় লিপ্ত হতে ‘বারবার কমবয়স্ক নারীদের প্রলোভন দেখিয়ে নিয়ে আসেন’– অনলাইনে এমন মন্তব্যের জের ধরে পুলিশ একটি তদন্ত চালায়। এরপর তার বিরুদ্ধে আরও কয়েকটি ধর্ষণের অভিযোগ প্রকাশ্যে আসে। এর মধ্যে তদন্তে ২০১৮ সালে ও ২০২০ সালেও একাধিক নারীকে ধর্ষণের প্রমাণ পান আদালত। এক বিবৃতিতে আদালত জানিয়েছেন, ‘নারীদের সম্মতি ছাড়াই মদ্যপ অবস্থায় যৌন সম্পর্ক করেছেন; এটি ধর্ষণ। এর মধ্যে অনেক অপ্রাপ্ত বয়স্ক নারীও রয়েছে।’

যদিও সেই নারীরা অপ্রাপ্ত বয়স্ক ছিল না বলে দাবি করেছে ক্রিস। ২০১২ সালের ৮ এপ্রিল কোরীয় ব্যান্ড এক্সোতে যোগ দেন ক্রিস উ। এই ব্যান্ড তাকে এনে দিয়েছিল খ্যাতি। ২০১৪ সালে একক ক্যারিয়ার গড়ার লক্ষ্যে ব্যান্ড ছেড়ে চীনে চলে আসেন ক্রিস উ। এখানে এসে গায়ক, অভিনেতা, মডেল হিসেবেও সফল ছিলেন ক্রিস উ। তিনি হলিউডের সিনেমায়ও অভিনয় করেছেন, মডেল হিসেবেও পরিচিতি রয়েছে তার।

বিষয়:

বিদ্রুপের শিকার শাহরুখকন্যা সুহানা

আপডেটেড ২৭ নভেম্বর, ২০২৩ ১৩:১০
বিনোদন ডেস্ক

বলিউড বাদশাখ্যাত শাহরুখ খানের কন্যা সুহানা বাবার নাম-ডাকের কারণে আলাদা একটা পরিচিতি পেয়েছেন অনেক আগে থেকেই। মাঝখানে একটি শর্টফিল্মে অভিনয়ের মাধ্যমে শোবিজে নাম লেখানোর পর রীতিমতো সেলিব্রেটি বনে যান তিনি। তবে এবার আর শর্টফিল্ম নয়, জোয়া আখতারের ‘দ্য আর্চিস’-এর মাধ্যমে বলিউডে অভিষেক হতে যাচ্ছে তার। এই ছবিটিতে সুহানা ছাড়া আরও অভিনয় করেছেন অমিতাভ বচ্চনের নাতি অগস্ত্য নন্দা ও শ্রীদেবী এবং বনি কাপুরের ছোট মেয়ে খুশি কাপুর।

আগামী ৭ ডিসেম্বর নেটফ্লিক্সে মুক্তি পাবে সিনেমাটি। এর প্রচার করতে গিয়েই কটাক্ষের শিকার হলেন সুহানা। অগস্ত্যও পেলেন না ছাড়। শাহরুখপুত্র আরিয়ানকে ক্যামেরার সামনে দেখার আশা ছিল অনেকের। তবে আরিয়ান নাকি অভিনয়ে আগ্রহী নন। তার মন পরিচালনার কাজে। অবশ্য সুহানা ইতোমধ্যেই গ্ল্যামার গার্ল। প্রথম সিনেমা মুক্তির আগেই নামী প্রসাধনী ব্র্যান্ডের অ্যাম্বাসাডর হয়েছেন তিনি।

কিন্তু ট্রলের হাত থেকে রেহাই পাননি শাহরুখের একমাত্র কন্যা সুহানা। ‘দ্য আর্চিস’ সিনেমার প্রচারে অগস্ত্যর সঙ্গে নেচেছিলেন তিনি। সেই ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই শুরু হয়ে যায় ব্যঙ্গবিদ্রুপ।

সুহানা-অগস্ত্যর এই ভিডিওর কমেন্ট বক্সেই লেখা হয়েছে, ‘ওএমজি! সুহানার এক্সপ্রেশন তো রাখি সাওয়ান্তের মতো।’ অগস্ত্যকে মামা অভিষেক বচ্চনের ‘কপি’ বলেও কটাক্ষ করা হয়েছে। একজন ভিডিও দেখে আবার লিখেছেন, ‘বাচ্চাদের বার্ষিক অনুষ্ঠান মনে হচ্ছে।’ এ ছাড়া ‘জিরো ট্যালেন্ট’ বলেও ব্যঙ্গ করা হয়েছে।

অবশ্য সিনেমার ট্রেলার প্রকাশ্যে আসার পর অনেকেই সুহানার সাবলীল অভিনয়ের প্রশংসা করেছিলেন। সুহানা-অগস্ত্য-খুশি ছাড়াও জোয়া আখতারের সিনেমার ট্রেলারে নজর কেড়েছেন মিহির আহুজা, বেদং রায়না, যুবরাজ মেন্দার মতো তরুণ অভিনেতারা।

বিষয়:

প্রথমবার জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দুই বাংলার জনপ্রিয় তারকা ফেরদৌস

আপডেটেড ২৭ নভেম্বর, ২০২৩ ১৩:০৯
বিনোদন প্রতিবেদক

দুই বাংলায় সমান সমাদৃত বাংলাদেশি চলচ্চিত্র অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদ। অভিনয়ে বরাবরই আলো ছড়িয়ে আসা এই তারকা এখন রাজনীতির মাঠেও সরব। আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১০ আসনে নৌকার মাঝি হচ্ছেন এই তারকা। ঢাকাই চলচ্চিত্রের এই নায়ক এবারই প্রথম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। গতকাল রোববার বিকেলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ৩০০ সংসদীয় আসনে দল মনোনীত প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেছেন। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বিকেল সোয়া ৪টার দিকে নাম ঘোষণা শুরু করেছেন তিনি। তারই প্রক্রিয়া হিসেবে ঢাকার দুটি আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন তিনি। গত শনিবার সকালে দুটি আসনে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের বিষয়টি নিশ্চিত করেছিলেন তিনি।

ফেরদৌস জানান, তফসিল ঘোষণার পরই মনোনয়ন ফরম প্রদান কার্যক্রম শুরুর দ্বিতীয় দিনে অনলাইনে তিনি ঢাকার দুই আসন থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন। পরদিন দুই আসনের মনোনয়ন ফরম জমাও দেন। ফেরদৌস ঢাকা-১০ ও ঢাকা-১৮ এই দুই আসন থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন।

১৯৯৭ সালে ছটকু আহমেদ পরিচালিত ‘বুকের ভেতর আগুন’ ছবির মাধ্যমে প্রথমবার চলচ্চিত্রে আত্মপ্রকাশ করেন ফেরদৌস। এরপর ১৯৯৮ সালে এককভাবে নায়ক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন অঞ্জন চৌধুরী পরিচালিত ‘পৃথিবী আমারে চায় না’ ছবির মধ্য দিয়ে। একই বছর ফেরদৌস ব্যাপকভাবে আলোচিত ও জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন ভারতের চলচ্চিত্রকার বাসু চ্যাটার্জি পরিচালিত যৌথ প্রযোজনার ‘হঠাৎ বৃষ্টি’ ছবির মাধ্যমে। এই ছবিতে অভিনয় করে তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। এরপর থেকে তিনি একাধারে বাংলাদেশ ও ভারতের বাংলা চলচ্চিত্রে অভিনয় করছেন। এ ছাড়া ‘মিট্টি’ নামে একটি বলিউড ছবিতেও তাকে দেখা গেছে। ফেরদৌস তার ক্যারিয়ারে ৪টি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেছেন। অভিনয়ের পাশাপাশি কয়েকটি সিনেমা প্রযোজনাও করেছেন তিনি।

বিষয়:

এবারও স্বপ্নভঙ্গ অগ্নিকন্যা মাহির

আপডেটেড ২৭ নভেম্বর, ২০২৩ ০০:০২
বিনোদন প্রতিবেদক

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এবারও মনোনয়ন পেলেন না অগ্নিকন্যাখ্যাত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের জন্য আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছিলেন জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। এই আসনে এবার মনোনয়ন পেয়েছেন এ আসনের বর্তমান এমপি জিয়াউর রহমান।

গতকাল রোববার বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের মনোনয়নপ্রাপ্তদের নাম ঘোষণা করেন।

গত কয়েক বছর ধরে রাজনীতিতে সক্রিয় ভূমিকা পালন করছেন মাহি। অভিনয় ছেড়ে পুরোদমে রাজনীতির মাঠে নামেন তিনি। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে অভিনেত্রী বলেছিলেন, ‘আমি চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে মনোনয়ন নিয়েছি। আমার এলাকাবাসী তৃণমূলের মতামত যদি যাচাই করা হয়, তাহলে আমি শতভাগ আশাবাদী মনোনয়ন ইনশাল্লাহ আমি পাব। দলীয় মনোনয়ন আমাকে দেয়া হবে। আর যদি পাই তাহলে আমার এলাকার জন্য কাজ করব। যেহেতু আমাদের কৃষি এলাকা তাদের ফোকাস করব আর নারী উন্নয়নে কাজ করব।’

মাহি আরও বলেছিলেন, ‘আর আমি যদি মনোনয়ন না পাই, তাহলে আমি পেলে ঠিক যতটুকু কাজ করতাম, তার থেকে কোনো অংশে কম করব না। দলকে জেতানোই হচ্ছে মূল লক্ষ্য।’

এর আগে ২০২২ সালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হয়ে মনোনয়ন ফরম কিনেছিলেন মাহিয়া মাহি। সংসদ থেকে বিএনপির পদত্যাগের ফলে আসনটি শূন্য হয়। ওই আসনে ১ ফেব্রুয়ারি উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

প্রসঙ্গত, ‘ভালোবাসার রং’ সিনেমা দিয়ে ঢালিউডে অভিষেক হয় মাহিয়া মাহির। ১১ বছরে চলচ্চিত্রের নানা অলিগলি পেরিয়ে মাহিকে দেখা গেছে রাজনীতির মাঠেও। বর্তমানে অভিনয় কমিয়ে দিয়ে স্বামী-সংসার ও সন্তান দেখাশোনার পাশাপাশি রাজনীতিতেই ব্যস্ত এই তারকা।


কলকাতায় সৌরভ ছড়াচ্ছেন লাক্স তারকা মিম

আপডেটেড ২৭ নভেম্বর, ২০২৩ ০০:০৩
বিনোদন ডেস্ক

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা মিম বেশ কয়েক বছর ধরে নাটক ছেড়ে চলচ্চিত্রেই ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। শুধু বাংলাদেশেই নয়, কলকাতার চলচ্চিত্রেও কাজ করছেন এই লাক্স তারকা। সেই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে বাংলাদেশের পরিচালক সঞ্জয় সমাদ্দার পরিচালিত মিম অভিনীত ‘মানুষ’ সিনেমাটি। ছবিতে মিমের বিপরীতে অভিনয় করেছেন ওপার বাংলার জনপ্রিয় নায়ক জিৎ।

এরই মধ্যে সিনেমাটি দর্শকের মধ্যে বেশ সাড়া ফেলেছে। শুধু তাই নয়, সিনেমাটিতে মন্দিরা চরিত্রে মিমের দুর্দান্ত অভিনয়ও দর্শককে মুগ্ধ করেছে। কলকাতার বিভিন্ন চ্যানেল, অনলাইন পোর্টাল, সংবাদ মাধ্যম এবং বিভিন্ন পেজে মিমের অভিনয়ের প্রশংসা করছে। যারাই সিনেমাটি দেখছেন মিমের অভিনয়ের প্রশংসা করছেন। জিতের অভিনয় নিয়েও নতুন করে অন্যরকম আলোচনা শুরু হয়েছে। যদিও ‘মানুষ’ মুক্তির মুহূর্তে কলকাতায় যেতে পারেননি মিম। তবে কলকাতায় তার ভক্ত দর্শকের কাছ থেকে তিনি বেশ ভালো সাড়া পাচ্ছেন। বিদ্যা সিনহা মিম বলেন, ‘সঞ্জয় সমাদ্দার দাদা বাংলাদেশে অনেক ভালো ভালো গল্পের নাটক নির্মাণ করে বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছেন। তিনি নির্মাণে মেধার স্বাক্ষর রেখে অ্যাওয়ার্ডও পেয়েছেন। তার নির্মিত ‘মানুষ’ কলকাতার দর্শকের মধ্যে সাড়া ফেলেছে। এটা আমাদের জন্য সত্যিই গর্ব করার মতো।

আমি আশাবাদী ছিলাম যে, এ সিনেমাটি দর্শক বেশ আগ্রহ নিয়ে দেখবেন। গত কয়েকদিনের মধ্যে গতকাল সিনেমাটির দর্শক বেড়েছে। আমার বিশ্বাস, দিন দিন এই সিনেমার দর্শক বাড়বে। কারণ এ সিনেমার গল্প এবং আমাদের সবার অভিনয়ই দর্শককে মুগ্ধ করার মতো। এটি সত্যি যে, এ সিনেমায় অভিনয়ের জন্য আমি অনেক শ্রম দিয়েছি, কষ্ট করেছি। যার ফল পাচ্ছি আমি। আশা করছি, সপ্তাহজুড়েই দর্শক ‘মানুষ’-এ মুগ্ধ হবেন। একজন শিল্পী হিসেবে এখানেই আমার তৃপ্তি।’

মিম বর্তমানে ব্যস্ত আছেন ২০১৮-২০১৯ সালের সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত ওয়াহিদ তারেক পরিচালিত ‘দিগন্তে ফুলের আগুন’ সিনেমার ডাবিং নিয়ে। এ সিনেমায় মিম শহীদুল্লাহ কায়সারের স্ত্রী পান্না কায়সার, অর্থাৎ জনপ্রিয় অভিনেত্রী শমী কায়সারের মায়ের চরিত্রে অভিনয় করেছেন। ডাবিং শেষে আগামী বছরের শুরুতে সিনেমাটি মুক্তি পাওয়ার সম্ভাবনা আছে।


banner close