রোববার, ৩ মার্চ ২০২৪

তুরস্কে ভূমিকম্প: এক প্রদেশেই নিহত ৫, ধসে পড়ল ৩৪ ভবন

তুরস্কে ভূমিকম্পের তাণ্ডবচিত্র। ছবি: আনাদোলু এজেন্সি
আপডেটেড
৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ১০:৫২
প্রতিবেদক, দৈনিক বাংলা
প্রকাশিত
প্রতিবেদক, দৈনিক বাংলা
প্রকাশিত : ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ০৯:৪২

তুরস্কের মধ্যাঞ্চলে সোমবার ভোরে যে ভয়াবহ ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে, তার তাণ্ডবচিত্র প্রকাশ পাচ্ছে সেখানকার সংবাদমাধ্যমে। এখন পর্যন্ত পাওয়া খবরে, কেবল একটি প্রদেশেই ৩৪টি ভবন ধসে পড়েছে। প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত ৫ জন।

সকালে দক্ষিণাঞ্চলীয় ওসমানীয়ে প্রদেশের গভর্নরের কার্যালয়ের বরাত দিয়ে আনাদোলু এজেন্সি জানায়, ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল গাজিয়ানতেপ প্রদেশ থেকে সোয়া শ’ কিলোমিটারেরও বেশি দূরত্বের ওসমানীয়েতে ধ্বংসলীলা চোখে পড়ছে। সকাল থেকে বিভিন্ন এলাকার ক্ষয়ক্ষতির খবর আসছে। এ পর্যন্ত পাওয়া খবরে প্রদেশটিতে ৩৪টি ভবন ধসে পড়েছে, সেখানে প্রাণ হারিয়েছেন ৫ জন। আহত হয়েছেন অনেকে। তবে হতাহতের সংখ্যা বাড়তে পারে।

তুরস্কে ভূমিকম্পের তাণ্ডবচিত্র। ছবি: টিআরটি ওয়ার্ল্ড

যুক্তরাষ্ট্রের ভূতত্ত্ব জরিপ (ইউএসজিএস) জানায়, স্থানীয় সময় ভোর ৪টা ১৭ মিনিটে মধ্য-দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ গাজিয়ানতেপের শহর নুরদায়ির ২৬ কিলোমিটার পূর্বে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৭ দশমিক ৮। এর কেন্দ্রস্থল ছিল সমতলের ১৭ দশমিক ৯ কিলোমিটার গভীরে।

এই কম্পনের তীব্রতা এতই বেশি ছিল যে, তারপর আরও কয়েকটি পরাঘাত অনুভূত হয়। নুরদায়ি শহরের আশপাশে গাজিয়ানতেপেই রিখটার স্কেলে ৬ দশমিক ৭ ও ৫ দশমিক ৬ মাত্রার দুটি কম্পন অনুভূত হয়।

অবশ্য তুরস্কের ভূতত্ত্ববিদরা বলেছেন, প্রথমে আঘাত হানা ভূমিকম্পটির মাত্রা রিখটার স্কেলে ৭ দশমিক ৪ ছিল। কয়েক মিনিট পরেই সেখানে দ্বিতীয় ভূমিকম্পটি আঘাত হানে।

তুরস্কে ভূমিকম্পের তাণ্ডবচিত্র। ছবি: আনাদোলু এজেন্সি

বিবিসি অনলাইনের খবরে বলা হয়েছে, ভূমিকম্পে কেঁপেছে রাজধানী আঙ্কারাসহ তুরস্কের অন্য শহর ও এলাকাও। বিভিন্ন এলাকায় বহু ভবন ধসের খবর মিলছে, লোকজন ঘুমে থাকাবস্থায় এই ভূমিকম্প আঘাত হানার কারণে অনেকে সেখানে আটকা পড়ে থাকতে পারেন।

দিয়ারবাকির শহরে কর্মরত বিবিসির করেসপন্ডেন্ট জানান, ভূমিকম্পে সেখানে একটি শপিং মল ধসে পড়েছে।

বিষয়:

বিজেপি ছাড়তে চান গৌতম গম্ভীর

গৌতম গম্ভীর। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

ক্রিকেটে আরও বেশি মনোনিবেশ করতে রাজনীতি থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন লোকসভা সদস্য ও ভারতের জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক ওপেনার ব্যাটসম্যান গৌতম গম্ভীর। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে এক টুইটে তিনি এই ঘোষণা দিয়েছেন। একই সঙ্গে তিনি তার দল বিজেপি থেকে অব্যাহতি চেয়েও আবেদন করেছেন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

চলতি বছরের এপ্রিল ও মে মাসে ভারতে জাতীয় নির্বাচন তথা লোকসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। তার মাত্র মাসখানেক আগে রাজনীতিতে সরে যাওয়ার এই ঘোষণা দিলেন গৌতম গম্ভীর। এই ঘোষণা তার ভক্ত তো বটেই বিশ্লেষকদেরও অবাক করেছে।

গম্ভীর তার এক্স স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘আমি পার্টি সভাপতি জেপি নাড্ডাকে আমার রাজনৈতিক দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেছি। যাতে আমি আমার ক্রিকেটের প্রতি যে কমিটমেন্টগুলো আছে তাতে মনোনিবেশ করতে পারি। আমাকে জনগণের সেবা করার সুযোগ দেওয়ার জন্য আমি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাই।’

ধারণা করা হচ্ছে, খুব শিগগিরই বিজেপি আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে তাদের সম্ভাব্য প্রার্থীদের একটি প্রথম তালিকা প্রকাশ করবে। এই তালিকায় ১০০ জনেরও বেশি নেতাকে অন্তর্ভুক্ত করা হবে। যেখানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের মতো হেভিওয়েট প্রার্থীরা থাকবেন।

দলটি দিন কয়েক আগে প্রার্থী চূড়ান্ত করতে ম্যারাথন বৈঠক করেছে কয়েক দফা। এর মধ্যে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে দিল্লিতে নরেন্দ্র মোদির সরকারি বাসভবনে। রাত ১১টায় শুরু হয়ে সেই বৈঠক শেষ হয় রাত ৪টায়। এর আগে গৌতম গম্ভীর ২০১৯ সালের মার্চে বিজেপিতে যোগ দেন।

বিষয়:

টোঙ্গা দ্বীপপুঞ্জে ভূমিকম্প

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

টোঙ্গা দ্বীপপুঞ্জে ৫ দশমিক ১ মাত্রার ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে।

জার্মান রিসার্চ সেন্টার ফর জিওসায়েন্সেস(জিএফজেড) জানায়, শনিবার টোঙ্গা দ্বীপপুঞ্জে ৫ দশমিক ১ মাত্রার ভূমিকম্প অনুভূত হয়। খবর সিনহুয়ার।

কম্পনটির কেন্দ্রস্থল ছিল ভূ-পৃষ্ঠ থেকে ২৯১ দশমিক ৯ কিমি গভীরে ১৭ দশমিক ৯৫ ডিগ্রি দক্ষিণ অক্ষাংশ ও ১৭৪ দশমিক ৯০ ডিগ্রি পশ্চিম দ্রাঘিমাংশে।


গাজায় আকাশ থেকে ত্রাণ ফেলার ঘোষণা বাইডেনের

সংগৃহীত ফাইল ছবি
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র গাজায় আকাশ থেকে ত্রাণ ফেলা শুরু করবে।

ত্রাণ বহরে হামলায় একশ’রও বেশি ফিলিস্তিনী নিহত হওয়ার একদিন পর শুক্রবার বাইডেন এই ঘোষণা দিয়েছেন।

হোয়াইট হাউসে ইতালির প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের শুরুতে সাংবাদিকদের বাইডেন আরো বলেছেন, আমাদের আরও কিছু করা প্রয়োজন। যুক্তরাষ্ট্র আরও কিছু করবে।

তিনি বলেছেন, আগামী কয়েকদিনের মধ্যে আমরা জর্ডানসহ আমাদের অন্য বন্ধুদের সাথে মিলিত হবো এবং অতিরিক্ত খাদ্যসহ অন্যান্য ত্রাণ গাজায় ফেলা শুরু করবো।

গত ৭ অক্টোবর ফিলিস্তিনী সংগঠন হামাস ইসরায়েলে হামলা চালানোর পর থেকে ভূ-খন্ডটিতে তেল আবিব পাল্টা প্রতিশোধমূলক অভিযান শুরু করে। গাজায় এখন চলছে তীব্র মানবিক সংকট।

এদিকে গাজায় যুদ্ধবিরতির আলোচনাও অব্যাহত রয়েছে। বাইডেন আশা প্রকাশ করে বলেছেন, শিগগিরই পবিত্র রমজান মাসকে কেন্দ্র করে গাজায় ছয় সপ্তাহের যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করা হবে।

কিন্তু যুদ্ধবিরতির এই আলোচনায় জটিলতা তৈরি হয়েছে বৃহস্পতিবারের ঘটনার কারণে। এই দিন মরিয়া ফিলিস্তিনীরা ত্রাণ বহরের দিকে ছুটে যাওয়ার সময়ে ইসরায়েলি হামলায় একশ’রও বেশি লোক নিহত হয়।

এদিকে জাতিসংঘ সতর্ক করে বলেছে, গাজা দুর্ভিক্ষের দ্বারপ্রান্তে।

গাজায় ক্রমবর্ধমান মানবিক বিপর্যয় সত্ত্বেও যুক্তরাষ্ট্র ইসরায়েলকে সামরিক সহায়তা প্রদান অব্যাহত রেখেছে।

এই সহায়তা অব্যাহত থাকবে বলেও জানিয়েছেন হোয়াইট হাউসের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের মুখপাত্র জন কিরবি।

তিনি বলেছেন, আমরা এখনও ইসরায়েলকে তাদের আত্মরক্ষার স্বার্থে সাহায্য করছি।

বিষয়:

গাজায় ত্রাণের সারিতে ইসরায়েলি বাহিনীর গুলি, নিহত ১০৪

ছবি : সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

ত্রাণের অপেক্ষায় থাকা গাজার বাসিন্দাদের ওপর গুলি চালিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। এতে অন্তত ১০৪ জন নিহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবারের এ হামলায় অন্তত ৭৬০ জন আহত হয়েছে বলে গাজার স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে সিএনএন জানিয়েছে। গাজা শহরের পশ্চিমে আল-নাবুসি গোলচত্বরে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

আল-জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আল-রশিদ সড়ক দিয়ে ময়দাবহনকারী ত্রাণবাহী ট্রাক আসার কথা ছিল। সেখানে অসংখ্য গাজাবাসী ত্রাণের ট্রাকের জন্য অপেক্ষা করছিলেন। হঠাৎ সেখানে গুলিবর্ষণ শুরু হয়। ওই এলাকায় অ্যাম্বুলেন্স না পৌঁছানোর কারণে নিহত ও আহতদের ট্রাকে করে হাসপাতালের দিকে নেওয়া হয়েছে।

এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, ‘আমরা ময়দা আনতে গিয়েছিলাম। ইসরায়েলি সেনাবাহিনী আমাদের লক্ষ্য করে গুলি করেছে। অনেকে নিহত হয়ে মাটিতে পড়ে আছেন।’

ঘটনাস্থল থেকে আল-জাজিরার প্রতিবেদক ইসমাইল আল-ঘৌল জানান, গুলি চালানোর পর ইসরায়েলি ট্যাংক নিহত ও আহতদের ওপর দিয়ে চলে যায়।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আশরাফ আল-কিদরার বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, হামলায় আহতদের মধ্যে অনেককে আল-শিফা হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। তাদের চিকিৎসা দিতে স্বাস্থ্যকর্মীরা হিমশিম খাচ্ছেন।

গাজা শহরের কামাল আদওয়ান হাসপাতালের প্রধান হুসাম আবু সাফিয়াহ বলেন, শহরের পশ্চিমে হামলার ঘটনায় ১০ জনের মরদেহ এ হাসপাতালে আনা হয়েছে।

গত ৭ অক্টোবর থেকে গাজায় ইসরায়েলি হামলায় প্রায় ১৩ হাজার শিশুসহ মোট ৩০ হাজারের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে।

গত ৭ অক্টোবর ইসরায়েলি ভূখণ্ডে অতর্কিত হামলা চালায় হামাস। এতে ১ হাজার ২০০ জন নিহত হন এবং হামাসের হাতে জিম্মি হন প্রায় ২৫৩ জন মানুষ। জিম্মিদের মধ্যে ১৩০ জন এখনো গাজায় আছেন এবং ৩১ জন নিহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

এ ঘটনার পর থেকে প্রায় হামাসকে নির্মূলের লক্ষ্যে গাজায় পাঁচ মাস ধরে সর্বাত্মক ও নিরবচ্ছিন্ন হামলা চালাচ্ছে ইসরায়েল। এই হামলায় নিহত ৩০ হাজারেরও বেশি মানুষের বেশির ভাগই নারী ও শিশু। সর্বশেষ প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী নিহত শিশুর সংখ্যা প্রায় ১৩ হাজার ও নারীর সংখ্যা প্রায় ৮ হাজারের মতো।


রমজানে মুসলমানদের আল আকসায় নামাজ পড়ার অনুমতি দিতে আহ্বান যুক্তরাষ্ট্রের

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্র পবিত্র রমজানে মুসলমানদের আল আকসা মসজিদ কম্পাউন্ডে নামাজ পড়ার অনুমতি দিতে ইসরায়েলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

উগ্র ডানপন্থী এক মন্ত্রী দখলকৃত পশ্চিমতীর থেকে আল আকসায় ফিলিস্তিনীদের নামাজ পড়ায় বাধা দেয়ার প্রস্তাবের পর বুধবার যুক্তরাষ্ট্র এ আহ্বান জানাল।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার সাংবাদিকদের বলেছেন, পূর্বের মতোই শান্তিপূর্ণ মুসল্লীদের রমজানে আল আকসা ব্যবহারের সুযোগ দিতে আমরা ইসরায়েলের প্রতি অব্যাহত আহ্বান জানাচ্ছি।


দুর্ভিক্ষ থেকে এক ধাপ দূরে গাজার ৬ লাখ মানুষ: জাতিসংঘ

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

ফিলিস্তিনের গাজায় ত্রাণের জন্য মরিয়া মানুষের কাছে সহায়তা পৌঁছে দিতে ইসরায়েল বাধা সৃষ্টি করছে বলে অভিযোগ করেছেন জাতিসংঘের কর্মকর্তারা। সেই সঙ্গে সতর্ক করে বলা হয়েছে, জরুরি পদক্ষেপ না নেওয়ার কারণে অবরুদ্ধ গাজার এক-চতুর্থাংশ মানুষ দুর্ভিক্ষ থেকে এক ধাপ দূরে রয়েছে।

গাজার উত্তরাঞ্চলে খাবার সংগ্রহ করতে জড়ো হওয়া ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি বাহিনী আবারও গুলি করছে, এমন ভিডিও ফুটেজ গত মঙ্গলবার অনলাইনে ছড়িয়ে পড়েছে। এর পরপরই জাতিসংঘের কর্মকর্তারা এমন সতর্কবার্তা দিয়েছেন।

অসহায় ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি বাহিনীর গুলি ছোড়ার ঘটনায় কেউ হতাহত হয়েছেন কি না, প্রাথমিকভাবে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

গাজায় ইসরায়েলি বাহিনীর নির্বিচার হামলার পাঁচ মাস চলছে। নিহতের সংখ্যা ৩০ হাজারের কাছাকাছি পৌঁছে গেছে। তাদের বেশির ভাগই নারী ও শিশু। ইসরায়েলি ভূখণ্ডে গত ৭ অক্টোবর হামাসের হামলার পর এ যুদ্ধের শুরু। ওই হামলায় হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়। হামাসের হাতে জিম্মি হন প্রায় আড়াই শ মানুষ।

প্রতিদিন শুধু আকাশপথে হামলা নয়, গাজার উত্তরাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে বড় পরিসরে স্থল অভিযানও চালাচ্ছে ইসরায়েলি বাহিনী। সেই সঙ্গে গাজায় প্রবেশ ও বের হওয়ার প্রায় সবগুলো পথ (চেকপয়েন্ট) অবরোধ করে রাখা হয়েছে। এর ফলে গাজায় মানবিক-সংকট জোরালো হয়েছে।

জাতিসংঘের মানবিক সহায়তাবিষয়ক সংস্থার (ওসিএইচএ) উপপ্রধান রমেশ রাজাসিংঘাম জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদকে বলেছেন, ‘আমরা এমন এক পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে আছি, ফেব্রুয়ারির শেষে এসে গাজায় অন্তত ‍৫ লাখ ৭৬ হাজার মানুষ দুর্ভিক্ষ থেকে এক ধাপ দূরে এসে পৌঁছেছে। গাজার মোট জনসংখ্যার এক-চতুর্থাংশ এটা।’

গাজাবাসীর খাদ্যনিরাপত্তা নিয়ে এক বৈঠকে জাতিসংঘের কর্মকর্তা রমেশ বলেন, গাজার উত্তরাঞ্চলে দুই বছরের কম বয়সি প্রতি ছয় শিশুর একজন তীব্র অপুষ্টিতে ভুগছে। সেই সঙ্গে অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ২৩ লাখ মানুষের প্রায় সবাইকে বেঁচে থাকার জন্য দুঃখজনকভাবে ‘অপর্যাপ্ত’ খাদ্যসহায়তার ওপর নির্ভর করতে হচ্ছে।

রমেশ রাজাসিংঘাম আরও বলেন, যদি কিছু করা না হয়, তাহলে গাজায় অনিবার্যভাবে ব্যাপক পরিসরে দুর্ভিক্ষ ছড়িয়ে পড়তে পারে। সেই সঙ্গে সংঘাতে আরও অনেক মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।


একদিনে সৌদি আরবে ৭ শিরশ্ছেদ

আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
প্রতিবেদক, দৈনিক বাংলা

সৌদি আরবে একদিনে সাতজনের শিরশ্ছেদ করে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। ভয়েস অব আমেরিকার খবরের বরাতে জানা যায়, স্থানীয় সময় গতকাল মঙ্গলবার সাতজনের এ মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়।

২০২২ সালের পর এটাই একদিনে দেশটিতে সর্বোচ্চ মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের ঘটনা। এর আগের রেকর্ডটি ছিল ৮১ জনের শিরশ্ছেদ, যা বিশ্বজুড়ে নিন্দার ঝড় তুলেছিল।

উপসাগরীয় রাজ্যটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে সরকারি সৌদি প্রেস এজেন্সি বলেছে, ‘সন্ত্রাসী সংগঠন তৈরি ও এতে অর্থায়ন করার’ দায়ে ওই সাতজনকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগের বিস্তারিত বিবরণ দেওয়া হয়নি।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তদের তাদের জাতীয়তা প্রকাশ করা হয়নি। তবে প্রকাশিত তাদের নাম-পদবি থেকে ধারণা করা হচ্ছে, তারা সবাই সৌদি আরবেরই নাগরিক।

বার্তাসংস্থা এএফপির তথ্যানুসারে, বিশ্বের সবচেয়ে বেশি মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয় সৌদি আরবে। গত বছর ১৭০ জনের শিরশ্ছেদসহ মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। চলতি বছরে এখন পর্যন্ত এ সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৯ জন। অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলেছে, ২০২২ সালে অন্য যে কোনো দেশের চেয়ে বেশি মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে সৌদি আরব, চীন এবং ইরান।

গত বছর সৌদিতে যাদের মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছিল তাদের মধ্যে সন্ত্রাস-সম্পর্কিত অপরাধে অভিযুক্ত ৩৩ জন এবং রাষ্ট্রদ্রোহের দায়ে দোষী সাব্যস্ত দুই সৈন্য অন্তর্ভুক্ত।


পাকিস্তানে প্রেসিডেন্টের সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়ালো পার্লামেন্ট

প্রেসিডেন্ট ড. আরিফ আলভি। ফাইল ফটো
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

পাকিস্তানের সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচনের ২১ দিনের মধ্যে সংসদ অধিবেশন আহ্বান করার কথা। গত ৮ ফেব্রুয়ারি সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সেই হিসাবে আগামী ২৯ ফেব্রুয়ারি মধ্যেই অধিবেশন আহ্বান করতে হবে। এ নিয়ে দেশটির প্রেসিডেন্টের সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়েছে পার্লামেন্ট।

পাকিস্তানে নবনির্বাচিত সংখ্যাগরিষ্ঠ জোট এবং জাতীয় পরিষদের সচিবালয়ের সঙ্গে তুমুল বিরোধিতা সৃষ্টি হয়েছে প্রেসিডেন্ট ড. আরিফ আলভির। সেখানে সংবিধানের অধীনে নির্বাচনের ২১ দিনের মধ্যে নতুন পার্লামেন্টের অধিবেশন আহ্বানে বাধ্যবাধকতা আছে। কিন্তু এই সময়ের মধ্যে অধিবেশন আহ্বান প্রত্যাখ্যান করেছেন তিনি। এরপর প্রেসিডেন্টকে এড়িয়ে অধিবেশন ডেকেছে জাতীয় পরিষদ।

এর কারণ, নির্বাচিত রাজনৈতিক দলগুলোকে নির্বাচন কমিশন সংরক্ষিত আসনগুলোর আসন বণ্টন করেছে। কিন্তু ইমরান খানের দলের স্বতন্ত্র প্রার্থীরা একটি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যোগ দিলেও তাদেরকে সংরক্ষিত আসন দেওয়া হয়নি, তা ঝুলিয়ে রেখেছে নির্বাচন কমিশন। কিন্তু এর কারণ জানানো হয়নি।

প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি ছিলেন ইমরান খানের প্রতিষ্ঠিত দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) নেতা। ২০১৮ সালের আগস্টে ইমরান প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছিলেন। পরের মাসে পিটিআই মনোনীত প্রার্থী হিসেবে দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন আরিফ আলভি। মেয়াদ শেষ হলেও পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত না হওয়া পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন তিনি।

পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদ সচিবালয় বলছে, নির্বাচন হওয়ার পর ২১তম দিনে অধিবেশন ডাকার জন্য প্রেসিডেন্ট বা স্পিকারের অনুমতির প্রয়োজন হয় না।

প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভির অধিবেশন আহ্বানে রাজি না হওয়ার প্রধান কারণ, তিনি মনে করেন, রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে সংরক্ষিত আসনগুলো বণ্টন না হওয়ায় জাতীয় পরিষদ অসম্পূর্ণ রয়েছে। পাকিস্তান নির্বাচন কমিশন (ইসিপি) নির্বাচনে জয়ী রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে সংখ্যানুপাতিক হারে জাতীয় পরিষদের সংরক্ষিত ৭০টি আসন বণ্টন করে দেবে। এই আসনগুলো পেতে পিটিআই-সমর্থিত জয়ী স্বতন্ত্র প্রার্থীরা এরই মধ্যে সুন্নি ইত্তেহাদ কাউন্সিলে যোগ দিয়েছেন। কিন্তু ওই কাউন্সিল সংরক্ষিত আসন পাবে কি না, তা এখনো নিশ্চিত নয়।

এদিকে, পাকিস্তানে সরকার গঠনের জন্য পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) ও পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) নেতৃত্বে ছয়দলীয় জোট কাজ করছে। ২ মার্চের মধ্যেই এ সরকার গঠিত হতে পারে। জাতীয় পরিষদে ছয়দলীয় জোটের সদস্য ২০৭ জন। ৩৩৬ সদস্যের পার্লামেন্টে সরকার গঠনের জন্য ১৬৯ আসন প্রয়োজন।

পিএমএল-এন ও পিপিপির সমঝোতা অনুযায়ী পিএমএল-এনের নেতা শাহবাজ শরিফ প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন। আর পিপিপির নেতা আসিফ আলী জারদারি প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন। অন্যদিকে পিটিআই-সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা এসআইসিতে যোগ দিয়ে বসতে যাচ্ছেন বিরোধী দলে।


পেট্রোল রপ্তানিতে রাশিয়ার নিষেধাজ্ঞা

প্রতীকী ছবি
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

অভ্যন্তরীণ চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় ছয় মাসের জন্য পেট্রোল রপ্তানি নিষিদ্ধ করল রাশিয়া। আগামী সপ্তাহ থেকে দেশটির এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে। মঙ্গলবার রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম তাস এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, বিদেশে রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞায় অনুমোদন দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী মিখাইল মিশুস্তিন, যা ১ মার্চ থেকে কার্যকর হবে। গত বছরের শুরুর দিকেও একই ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছিল রাশিয়া।

রাশিয়ার অন্য একটি গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ডেপুটি প্রধানমন্ত্রী অ্যালেকজান্ডার নোভাক এক চিঠির মাধ্যমে নিষেধাজ্ঞার প্রস্তাব করেন। এতে তিনি অভ্যন্তরীণ বাজারের চাহিদার কথাও উল্লেখ করেন।

নোভাক বলেন, পেট্রোলিয়াম পণ্যের চাহিদার কথা মাথায় রেখে দাম নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া উচিত।

এদিকে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ তিন বছরে গড়িয়েছে। কবে থামবে এই রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ তার কোনো ইঙ্গিতও মিলছে না। তবে যুদ্ধকে কেন্দ্র করে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। রাশিয়ার ওপর আরোপ করা হয়েছে নিষেধাজ্ঞা।

যুদ্ধে ৩১ হাজার ইউক্রেনীয় সেনা প্রাণ হারিয়েছেন বলে দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি জানিয়েছেন। তবে কতজন আহত হয়েছেন তার তথ্য দেবেন না বলে জানিয়েছেন তিনি। কারণ এটি রাশিয়ার সামরিক পরিকল্পনায় সহায়তা করতে পারে।

বিষয়:

আরও এক অপরাধে অভিযুক্ত ইমরান খান

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ১৯:৫৬
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

ঘুষ নেওয়ার দায়ে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে অভিযুক্ত করেছেন দেশটির আদালত। একই অভিযোগে অভিযুক্ত হয়েছেন তার স্ত্রী বুশরাও।

মঙ্গলবার এ তথ্য জানিয়েছে ইমরান খানের নিজ রাজনৈতিক দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)।

পিটিআই জানিয়েছে, ঘুষ নেওয়ার নতুন অভিযোগটি করা হয়েছে আল-কাদির ট্রাস্ট নিয়ে। ২০১৮ সালে প্রধানমন্ত্রী থাকার সময় ইমরান ও তার স্ত্রী বুশরা বিবি মিলে এ ট্রাস্ট গঠন করেন।

এর আগে গত ৮ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদের নির্বাচন হয়। এই নির্বাচনের আগে আরও কয়েকটি মামলায় অভিযুক্ত ছিলেন তিনি। তিনটি মামলায় তাকে কারাদণ্ডও দেওয়া হয়। এর পরও ওই নির্বাচনে তার দলের স্বতন্ত্র প্রার্থীরা সর্বোচ্চ আসন পান।

৭১ বছর বয়সী পাকিস্তানের এই কিংবদন্তি ক্রিকেটার গত বছরের আগস্ট থেকে কারাগারে বন্দি রয়েছেন। তার বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত যেসব অভিযোগ আনা হয়েছে সবগুলোই তিনি অস্বীকার করেছেন।

বিষয়:

ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধবিরতি শুরু আগামী সপ্তাহে: যুক্তরাষ্ট্র

আপডেটেড ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ১১:২৪
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যে যথা শিগগির সম্ভব সোমবার থেকে যুদ্ধবিরতি শুরু হতে পারে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এ কথা বলেছেন।

যুদ্ধবিরতির এ চুক্তিতে হামাসের কাছে আটক বেশকিছু সংখ্যক জিম্মি মুক্তির বিনিময়ে ইসরায়েলে থাকা ফিলিস্তিনী বন্দীদের ছেড়ে দেয়ার কথা রয়েছে।

ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যে যুদ্ধবিরতির জন্যে মিসর, কাতার, যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্সসহ অন্যান্যরা প্রচেষ্টা চালিয়ে আসছে। আলোচনা এখনও চলছে।

তারা ছয় সপ্তাহের যুদ্ধবিরতি এবং হামাসের কাছে থাকা ইসরায়েলী জিম্মিদের মুক্তি নিয়ে কাজ করছেন। একইসঙ্গে ইসরায়েলে আটক শত শত ফিলিস্তিনী বন্দীকেও মুক্তি দেয়া নিয়ে আলোচনা অব্যাহত রয়েছে।

যুদ্ধবিরতি চুক্তি কবে নাগাদ শুরু হবে এমন প্রশ্নের জবাবে বাইডেন সোমবার বলেছেন, আমি আশা করছি আগামী সোমবার নাগাদ যুদ্ধবিরতি শুরু হবে।

তবে তিনি এও বলেছেন, আমরা চুক্তির কাছাকাছি আছি। এখনও চুক্তির কাজ সম্পন্ন হয়নি।

তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ইসরায়েলী কর্মকর্তা আলোচনা ইতিবাচক দিকেই যাচ্ছে বলে আভাস দিয়েছেন।

কিন্তু ইসরায়েলী প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু জোর দিয়ে বলেছেন, যে কোন যুদ্ধবিরতিই গাজার দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর রাফায় স্থল অভিযানকে বিলম্বিত করবে, কিন্তু প্রতিহত করতে পারবে না। কারণ, হামাসের বিরুদ্ধে পুরো জয়ের জন্যে সেখানে অভিযান চালানো প্রয়োজন।

এদিকে ইসরায়েল গত পাঁচ মাস ধরে গাজার সকল শহর এল্কাায় অভিযান চালিয়ে আসছে। এ প্রেক্ষিতে প্রায় ১৪ লাখ ফিলিস্তিনী এখন রাফায় আশ্রয় নিয়েছে।

নেতানিয়াহুর কার্যালয় থেকে সোমবার বলা হয়েছে, রাফা থেকে বেসামরিক ফিলিস্তিনীদের সরিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী যুদ্ধকালীন কেবিনেটকে দেখিয়েছে।

তবে বাস্তুচ্যুত এসব লোক কোথায় যাবে তা নিয়ে কিছু বলা হয়নি।


ফিলিস্তিনের প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ

ফিলিস্তিনের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ শতায়েহ। ছবি: সংগৃহীত
আপডেটেড ১ জানুয়ারি, ১৯৭০ ০৬:০০
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

অধিকৃত পশ্চিম তীরে ইসরায়েলিদের ক্রমবর্ধমান সহিংসতা এবং গাজায় ইসরায়েলি আগ্রাসনের কারণে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন ফিলিস্তিনের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ শতায়েহ। পশ্চিম তীরের কিছু অংশের শাসনকারী সরকারই ফিলিস্তিনের সরকার হিসেবে আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত। ফিলিস্তিনের অপর অংশ গাজা শাসন করে স্বাধীনতাকামী গোষ্ঠী হামাস। প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ শতায়েহ প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের কাছে তার পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন। খবর আল-জাজিরার।

গতকাল সোমবার প্রেসিডেন্টের কাছে জমা দেওয়া পদত্যাগপত্রে মোহাম্মদ শতায়েহ বলেন, ‘পশ্চিম তীর এবং জেরুজালেমে অভূতপূর্ব বৃদ্ধি এবং গাজা উপত্যকায় যুদ্ধ, গণহত্যা এবং অনাহারের পরিস্থিতিতে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমি দেখতে পাচ্ছি যে পরবর্তী পর্যায় এবং এর চ্যালেঞ্জগুলোর জন্য নতুন সরকারি ও রাজনৈতিক ব্যবস্থার প্রয়োজন, যা গাজার নতুন বাস্তবতাকে বিবেচনা করে এবং ফিলিস্তিনি ঐক্যের ওপর ভিত্তি করে সবার ঐকমত্যের প্রয়োজন।’

ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষকে নাড়াতে এবং যুদ্ধের পর একটি ফিলিস্তিনি রাষ্ট্রকে শাসন করতে পারে এমন একটি রাজনৈতিক কাঠামোয় কাজ শুরু করার জন্য মাহমুদ আব্বাসের ওপর মার্কিন চাপ বাড়ার পর এমন মন্তব্য করলেন শতায়েহ।

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজায় দখলদার ইসরায়েলের নির্বিচারে হামলায় নিহতের সংখ্যা ২৯ হাজার ৬৯২ জনে পৌঁছেছে। রোববার গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এই তথ্য জানিয়েছে। এদিকে কাতারে আলোচনা চালিয়ে যেতে চায় ইসরায়েল। রোববার গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের আক্রমণ অব্যাহত থাকায় গত ২৪ ঘণ্টায় অন্তত ৮৬ ফিলিস্তিনি নিহত এবং ১৩১ জন আহত হয়েছেন।

মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘ইসরায়েলি দখলদারিত্ব গাজা উপত্যকায় পরিবারের বিরুদ্ধে সাতটি গণহত্যা করেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ৮৬ জন শহীদ ও ১৩১ জন আহত হয়েছে।’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ‘অনেক মানুষ এখনও ধ্বংসস্তূপের নিচে এবং রাস্তায় আটকা পড়ে আছে, কারণ উদ্ধারকারীরা তাদের কাছে পৌঁছাতে পারছে না।’

এদিকে, জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস বলেছেন, রাফাহতে একটি পূর্ণ মাত্রায় ইসরায়েলি সামরিক অভিযান গাজায় মানবিক সহায়তা কর্মসূচির চূড়ান্ত মৃত্যু ঘটাবে। যেখানে বর্তমান ‘সম্পূর্ণভাবে অপর্যাপ্ত’ সহায়তাও পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাবে বলেও তিনি সতর্ক করেন।

জেনেভায় জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলের সামনে বক্তৃতাকালে গুতেরেস বলেন, গাজার দক্ষিণতম শহরে সর্বাত্মক আক্রমণ ‘সেখানে আশ্রয় নেওয়া এক মিলিয়নেরও বেশি ফিলিস্তিনি বেসামরিক নাগরিকের জন্য কেবল ভয়ঙ্করই হবে না; এটি আমাদের সাহায্য কর্মসূচির কফিনেও চূড়ান্ত পেরেক ঠুকে দেবে।’


গাজায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৯,৭৮২ জনে

ফাইল ছবি
আপডেটেড ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ১৭:৫১
দৈনিক বাংলা ডেস্ক

গাজা উপত্যকার হামাস পরিচালিত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সোমবার বলেছে, ফিলিস্তিনি যোদ্ধা এবং ইসরাইলি বাহিনীর মধ্যে যুদ্ধে অবরুদ্ধ এ উপত্যকায় এ পর্যন্ত কমপক্ষে ২৯ হাজার ৭৮২ জন নিহত হয়েছে। খবর এএফপির।

মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় গাজায় ইসরাইলি হামলায় ৯০ জন নিহত হওয়ায় এ সংখ্যা বেড়ে মোট ২৯,৭৮২ জনে দাঁড়ালো।

এদিকে গত ৭ অক্টোবর যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে গাজায় মোট ৭০ হাজার ৪৩ জন আহত হয়েছে।


banner close