আপডেট : বুধবার, জুন ১, ২০২২, ১২:০০ am

হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণগুলো

দৈনিক বাংলা ডেস্ক
হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণগুলো
হার্ট অ্যাটাকের প্রতিকী ছবিটি ইন্টরনেট থেকে নেওয়া

হার্ট যখন অপর্যাপ্ত ও অনিয়মিতভাবে রক্ত সঞ্চালন করে, তখনই হার্ট অ্যাটাক হয়। উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, ধূমপান, অস্বাস্থ্যকর জীবনযাপন, মানসিক চাপসহ নানা কারণে হার্ট অ্যাটাক হতে পারে। আনন্দবাজার পত্রিকার এক প্রতিবেদনে উঠে এসেছে হার্ট অ্যাটাকের কিছু লক্ষণ। চলুন দেখে নেই।

-

বুকে ব্যথা

হার্ট অ্যাটাক হলে সাধারণত বুকের মাঝখানে প্রচণ্ড ব্যথা অনুভূত হয়। আস্তে আস্তে সেই ব্যথা চোয়ালে, বাম কাঁধ ও হাতে ছড়িয়ে পড়তে থাকে।


-শ্বাসকষ্ট ও দম ফুরিয়ে যাওয়া

যদি আপনার শ্বাসকষ্ট বা অন্য কোনো সমস্যা না থাকে এবং হঠাৎ করে শ্বাস নেয়ার ক্ষেত্রে সমস্যা দেখা দেয়, তবে সেটা খারাপ লক্ষণ। মূলত হৃদরোগ থেকে ফুসফুসে পানি জমাসহ বিভিন্ন জটিলতার কারণে ঠান্ডা না থাকার পরও শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা দিতে পারে। অল্পতেই দম ফুরিয়ে যাওয়া, মুখ দিয়ে নিঃশ্বাস নেয়াও হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ।

-

অতিরিক্ত ঘাম হওয়া

অতিরিক্ত ঘাম হওয়া হার্ট অ্যাটাকের পূর্ব লক্ষণ। বিশেষ করে ডায়াবেটিক রোগীদের ক্ষেত্রে বুকে ব্যথা হওয়া ছাড়াও অতিরিক্ত ঘাম, বুক ধড়ফড়, হঠাৎ শরীর খারাপ লাগতে শুরু করলে অবশ্যই চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে।

-

কাশি

আপনার যদি দীর্ঘদিন কাশির সমস্যা থাকে, এবং তার সঙ্গে সাদা বা কিছুটা ঘোলাটে কফ বের হয়, তবে বুঝতে হবে আপনার হার্ট ঠিকমতো কাজ করছে না। ভবিষ্যতে হার্ট অ্যাটাক হতে পারে। তবে হ্যাঁ, কাশি সব সময় হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ নাও হতে পারে। কফের সঙ্গে নিয়মিত রক্ত বের হলে হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা থেকেই যায়।

-

অজ্ঞান হয়ে যাওয়া

যদি কাজ করার মধ্যে আপনি প্রায়ই হঠাৎ করে অজ্ঞান হয়ে যান, তাহলে বুঝবেন হার্টের সমস্যা রয়েছে।

-

তাড়াতাড়ি ক্লান্ত হয়ে পড়া

আপনি কি অল্পতেই ক্লান্ত হয়ে পড়েন? কিছুক্ষণ কাজ করলে বুক ধড়ফড় করে? তবে আপনি এখনই কোনো চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। বিশেষ করে মহিলাদের হার্টের সমস্যার প্রধান লক্ষণ এটি।

-

মাথাব্যথা

যখনই প্রচণ্ড মাথাব্যথা হয়, আমরা ওষুধ খেয়ে থাকি। কিন্তু জানেন কি, হার্ট অ্যাটাকের অন্যতম লক্ষণ হলো প্রতিদিনের প্রচণ্ড মাথাব্যথা?

-

অনিয়মিত পালস রেট

আপনি যদি অনেক বেশি নার্ভাস থাকেন বা কোথাও থেকে দৌড়ে আসেন আপনার পালস রেট ওঠা-নামা করতে পারে। তবে এটি যখন কোনো কারণ ছাড়াই হয়, তবে তা চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। হার্ট অ্যাটাকের আগে এমনটি হয়ে থাকে।