সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২২

রইছ উদ্দিন এখন মানসিক ভারসাম্যহীন

রইছ উদ্দিন এখন মানসিক ভারসাম্যহীন
রইছ উদ্দিন।
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত
  • সাইমুম সাব্বির, জামালপুর

ভাঙাচোরা একটি আস্তাবল। সে আস্তাবলে মাত্র এক বছর আগেও ছিল রইছ উদ্দিনের (৩৫) প্রিয় ঘোড়াটি। ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে সেখানে এখন সেই ঘোড়ার বদলে স্থান হয়েছে স্বয়ং রইছ উদ্দিনের।

এক রাতের একটি ঘটনা রইছ উদ্দিনের পুরো জীবনটাকে ওলটপালট করে দিয়েছে। ছারখার হয়ে যাচ্ছে তার সোনার সংসার। ২০২১ সালের ৭ জুলাই। নিজ বাড়ি জামালপুরের মেলান্দহের চংদরিয়া থেকে শ্বশুরবাড়ি চিনিতোলা যাওয়ার পথে বয়ড়া ডাংগা এলাকায় রাত আনুমানিক ১০টার দিকে চোর সন্দেহে রইছ উদ্দিনকে ব্যাপক মারধর করে স্থানীয় তপু সরকার, রনি সরকার, মুনছর সরকার ও হাসেম সরকারসহ আরো কয়েকজন। এতে রইছ উদ্দিন গুরুতর আহত হলে পরদিন সকালে রিকশাযোগে বাড়ির সামনে তাকে ফেলে যাওয়া হয়। এরপর থেকেই ধীরে ধীরে মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েন দুই সন্তানের জনক রইছ উদ্দিন।

কখনো দিনমজুরি, কখনো ঘোড়ার গাড়ি চালিয়ে, আবার কখনো মাছ শিকার করে সংসার চালাতেন রইছ উদ্দিন। পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তির এমন অবস্থা হওয়ায় বিপাকে রয়েছে গোটা পরিবার। আর নাড়িছেঁড়া ধনকে নিয়ে এখন দুঃখের সাগরে ভাসছেন জনম দুঃখী মা।

রইছ উদ্দিনের মা রহিমা বেগম বলেন, ‘পুলাডার দিক তাকায়ে নাতিনেরা কান্দাকাটি করে। আঙ্গর জীবনডা শ্যাষ। যারা আঙ্গর সুখের সংসারটার এমুন হাল করল, হ্যাগো বিচার চাই।’

রইছ উদ্দিনের বাবা জয়নাল শেখ বলেন, ‘আমার পুলাটারে এমন মাইর দিছে। পুলাটা আমার আস্তে আস্তে পাগল হইয়া গেল। এহন আমরা খায়ে না খায়ে থাকি। আদালতে এডা মামলা করছিলাম। প্রথমে মেলান্দহ থানা পুলিশ আর পরে পিবিআইয়ের তদন্ত প্রতিবেদনে সব তথ্য উঠে আসে নাই। তাই আমরা মামলার কোনো সুফল পাইতাছি না।’

রইছ উদ্দিনের ফুপু রহিমা খাতুন দৈনিক বাংলাকে বলেন, ‘যে ঘোড়ার গাড়ি চালায়ে রইছ ভাত খাইতো, সেই ঘোড়া বেইচে কয়ডা দিন চিকিৎসা চালাইছে রইছের বাবা-মা। এহন ওদের আর কিছুই নাই। তাই রইছের চিকিৎসাও হইতাছে না, মামলাও চালাবার পাইতাছে না।’

গ্রামবাসী ও জনপ্রতিনিধিরা বলছেন, হামলাকারীরা মারধরের কথা স্বীকার করলেও প্রভাব খাটিয়ে চিকিৎসক ও পিবিআইয়ের প্রতিবেদন পরিবর্তন করায় সুবিচার পাচ্ছে না হতদরিদ্র রইছ উদ্দিনের পরিবার।

চংদরিয়া এলাকার সাবেক ইউপি সদস্য বেলাল উদ্দিন দৈনিক বাংলাকে বলেন, ‘অভিযুক্ত তপু সরকার, রনি সরকার, মুনছর সরকার ও হাসেম সরকার বিষয়টা মীমাংসার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু রইছের পরিবার রাজি হয়নি। তখন তারা টাকা-পয়সা দিয়ে হাসপাতালের রিপোর্ট, পুলিশ আর পিবিআইয়ের তদন্ত প্রতিবেদন পরিবর্তন করে ফেলেছেন। তাই মারধরের পুরো ঘটনাটি ধামাচাপা পড়ে গেছে।’

জেলার মানবাধিকারকর্মী জাহাঙ্গীর সেলিম দৈনিক বাংলাকে বলেন, ‘মারধরের পর রইছ উদ্দিন ধীরে ধীরে মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েছে। তবে ডাক্তারদের প্রতিবেদনে বিষয়টি সঠিকভাবে উঠে আসেনি। রইছ উদ্দিনকে নির্যাতনের বিষয়টি পুলিশের প্রতিবেদনে এলেও আইনের ফাঁকফোঁকর ও বিবাদী প্রভাবশালী হওয়ায় বিচারহীনতার শিকার পরিবারটি। সরকারের উচিত এই পরিবারের পাশে দাঁড়ানো।’

এদিকে মারধরের কথা অকপটে স্বীকার করলেও মামলা খারিজ হয়ে যাওয়ায় বেশ দাপটেই রয়েছে হামলাকারীরা।

মামলার আসামি হাসেম সরকার দৈনিক বাংলাকে বলেন, ‘সেই দিন রাতে কিছু পুলাপান চোর সন্দেহে রইছ উদ্দিনকে দু-একটা চড়থাপ্পড় দিছে। তাকে জোরালো কোনো আঘাত করা হয় নাই। পুলিশ আর পিবিআইয়ের তদন্তে এসব উঠে এসেছে।’

মামলার আরেক আসামি মুনছর সরকার বলেন, ‘এমন কোনো মাইর দেয়া হয় নাই। যেটার কারণে রইছ উদ্দিন পাগল হবে।’

এসব বিষয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) পুলিশ সুপার এম এম সালাহ উদ্দিন বলেন, ‘সবকিছু যাচাই-বাছাইয়ের পর বিবাদীর বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন দেয়া হয়েছে। আর তদন্ত প্রতিবেদনে সন্তুষ্ট না হলে আদালতে নারাজি দিতে পারেন মামলার বাদী।’


সাজেদা চৌধুরীর আসনে উপনির্বাচন ৫ নভেম্বর

সাজেদা চৌধুরীর আসনে উপনির্বাচন ৫ নভেম্বর
সোমবার নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। ছবি : সংগৃহীত
প্রতিবেদক, দৈনিক বাংলা
প্রকাশিত

আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর প্রয়াত সদস্য ও সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর নির্বাচনী এলাকা ফরিদপুর-২ শূন্য আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৫ নভেম্বর।

নির্বাচন কমিশন (ইসি) আজ সোমবার এই তফসিল ঘোষণা করেছে।

ইসি ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ১০ অক্টোবর, মনোনয়নপত্র বাছাই ১২ অক্টোবর ও প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ১৯ অক্টোবর। মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল দায়ের ১৩ থেকে ১৫ অক্টোবর এবং আপিল নিষ্পত্তি ১৬ থেকে ১৮ অক্টোবর।

ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত এই আসনে উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে বলে নির্বাচন কমিশন সূত্র জানিয়েছে।

ফরিদপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য জাতীয় সংসদের উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী গত ১২ সেপ্টেম্বর রাতে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে মারা গেছেন।

 


ট্রেন আসতেই লাইনে শুয়ে পড়েন নারী, অতঃপর…

ট্রেন আসতেই লাইনে শুয়ে পড়েন নারী, অতঃপর…
প্রতীকী ছবি
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি
প্রকাশিত

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে শিরিনা বেগম (৫৩) নামের এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। আজ সোমবার উপজেলার বারইয়ারহাট এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত শিরিনা বেগম ফেনী জেলার ছাগলনাইয়া উপজেলার নিজকুঞ্জরা এলাকার নুরুল হুদার স্ত্রী।

সীতাকুণ্ড রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক জহিরুল ইসলাম এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

উপপরিদর্শক জহিরুল বলেন, ‘রেলে কাটা পড়ে নারীর মৃত্যুর খবর পেয়ে ঘটনাস্থল এসেছি। স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানতে পেরেছি, ঢাকাগামী চট্টলা এক্সপ্রেস যাওয়ার সময় হঠাৎ সামনে শুয়ে পড়েন ওই নারী। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পরে ওই নারীর পরিবার লাশ নিয়ে যায়।’


রমেক হাসপাতালে অব্যবস্থাপনা বন্ধের দাবি চিকিৎসকদের

রমেক হাসপাতালে অব্যবস্থাপনা বন্ধের দাবি চিকিৎসকদের
রমেক হাসপাতালে অনিয়ম বন্ধের দাবিতে মানববন্ধনে চিকিৎসকরা। ছবি: দৈনিক বাংলা
রংপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত

রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালের নানা অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনা বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন খোদ হাসপাতালটির চিকিৎসকরা। চিকিৎসাসেবা স্বাভাবিক রাখতে হাসপাতাল থেকে অসাধু চক্রকে বিতাড়িত ও চক্রের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা cbWfv দাবি জানিয়েছেন তারা।

আজ সোমবার দুপুরে হাসপাতাল চত্বরে ‘রংপুরের সম্মিলিত চিকিৎসক সমাজ’ এর ব্যানারে আয়োজিত মানববন্ধন থেকে তারা এ দাবি জানান।

এর আগে এসব অনিয়মের কথা উল্লেখ করে গত ১৮ সেপ্টেম্বর হাসপাতালের পরিচালক বরাবর লিখিত অভিযোগ দেন হাসপাতালের অর্থো সার্জারি বিভাগের চিকিৎসক এবিএম রাশেদুল আমীর।

মানববন্ধনে রমেকের অধ্যক্ষ ডা. বিমল চন্দ্র রায় বলেন, এখানে এতো অনিয়ম হচ্ছে যে, আমাদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে। এ কারণে রাস্তায় নেমেছি। দ্রুত হাসপাতালের অনিয়ম-দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনা বন্ধ হোক। এ বিষয়ে কর্তৃপক্ষ যথাযথ পদক্ষেপ না নিলে আমরা কঠোর কর্মসূচিতে যাব।

এ সময় বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়শেনের নেতা ডা. মামুনুর রশীদ বলেন, হাসপাতালের জরুরি বিভাগ থেকে শুরু করে ওয়ার্ড পর্যন্ত পদে পদে টাকা দিতে হচ্ছে। এখানে রোগী নিয়ে আসলে ভোগান্তির শেষ থাকে না।

মামুনুর রশীদ আরও বলেন, দুর্নীতিবাজদের কোনো দল নেই, সমাজ নেই। রংপুরের সব স্তরের মানুষকে আহ্বান করছি, হাসপাতালের অব্যবস্থাপনার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান।

রংপুর মেডিকেল কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. নুরুন্নবী লাইজু বলেন, রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসা ব্যবস্থা একটি অসাধু সিন্ডিকেটের হাতে জিম্মি। এখানে চিকিৎসা নিতে আসা রোগী ও তাদের স্বজনদের চরম হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। এখানে কেউ মারা গেলে ওই চক্রকে টাকা দিতে হয়, তা না হলে হয়রানির শিকার হতে হয়। এই অব্যবস্থাপনা বন্ধ করতে হবে।

মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন, রংপুর মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. মাহফুজার রহমান ও বিএমএ’র সহ-সভাপতি ডা. দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।


পুকুরে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু

পুকুরে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু
প্রতীকী ছবি
খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি
প্রকাশিত

খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় পুকুরে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু হয়েছে। আজ সোমবার সকালে দীঘিনালার কবাখালী ইউনিয়নের মুসলিম পাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, মুসলিমপাড়ার কামাল হোসেনের ছেলে ফারহান হোসেন (২) ও নুর আলমের মেয়ে নুসরাত জাহান (২)। নিহতরা সম্পর্কে চাচা-ভাতিজি।

কবাখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নলেজ চাকমা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, সোমবার সকালে বাড়ির পাশে পুকুর পাড়ে দুই শিশু বসেছিল। কিছুক্ষণ পরে তাদের দেখতে না পেয়ে স্বজনরা খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে পুকুরে তাদের মরদেহ ভাসতে দেখেন। পরে উদ্ধার করে দীঘিনালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

দীঘিনালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. প্রমেশ চাকমা জানান, হাসপাতালে আনার আগে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে।


অনিয়মের অভিযোগ, মেয়রের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি

অনিয়মের অভিযোগ, মেয়রের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি
পৌরসভার মেয়র ফারুক হোসেনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবিতে মানববন্ধন।
ঝিনাইদহ প্রতিনিধি
প্রকাশিত

ঝিনাইদহের হরিনাকুন্ডু পৌরসভার মেয়র ফারুক হোসেনের বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ তুলেছেন পৌরসভার কাউন্সিলর ও পৌরবাসীদের অনেকেই। এই অভিযোগের তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা। আজ সোমবার সকালে উপজেলা শহরের দোয়েল চত্বরে আয়োজিত মানববন্ধনে এই দাবি জানানো হয়।

ঘণ্টাব্যাপী চলা এ মানববন্ধনে ব্যানার, লিফলেট, ফেসটুন ও প্ল্যাকার্ড নিয়ে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেন। এ সময় পৌরসভার সাবেক মেয়র শাহীনুর রমান রিন্টু, বর্তমান কাউন্সিলর নাসির উদ্দিন ও আবু আহসান রনুসহ অনেকেই বক্তব্য দেন।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বর্তমান মেয়র ফারুক হোসেন পৌরসভায় অবৈধভাবে নিয়োগ-বাণিজ্য করছেন। এ ছাড়া পৌরবাসী জন্ম নিবন্ধন করতে গেলে নির্ধারিত ফি থেকে কয়েকগুণ বেশি টাকা আদায় করা হচ্ছে। যার রশিদও আছে। পৌরবাসী নাগরিক সেবা নিতে গেলে বিভিন্ন অনিয়ম করছে মেয়র। এ সময় মেয়রের এমন কর্মকাণ্ডের তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান তারা।